Waters of Life

Biblical Studies in Multiple Languages

Search in "Bengali":

Home -- Bengali -- John

This page in: -- Arabic -- Armenian -- BENGALI -- Cebuano -- Chinese -- English -- Farsi -- French -- Hausa -- Hindi -- Indonesian -- Kiswahili -- Kyrgyz -- Malayalam -- Peul -- Portuguese -- Russian -- Serbian -- Spanish -- Tamil -- Telugu -- Turkish -- Urdu -- Uyghur -- Uzbek -- Yiddish

Previous Book? -- Next Book?

যোহন - নূর অন্ধকারের মধ্যে জ্বলছে

যোহন বর্ণীত মসিহের নাজাতের বারতার সুসমাচার ওপর অধ্যয়ন

মূল অধ্যায়ে যাওয়া: ০১ -- ০২ -- ০৩ -- ০৪ -- ০৫ -- ০৬ -- ০৭ -- ০৮ -- ০৯ -- ১০
মূল অধ্যায়ে যাওয়া: ১১ -- ১২ -- ১৩ -- ১৪ -- ১৫ -- ১৬ -- ১৭ -- ১৮ -- ১৯ -- ২০ -- ২১

প্রথম অংশ - বেহেশতি নূর ঝলমল করছে (যোহন ১:১ - ৪:৫৪)

ক - খোদার বাক্য ঈসা মসিহের মাধ্যমে জন্ম নিলেন (যোহন ১:১-১৮)
১. মানবরূপ ধারণের আগে বাক্যের সারাংশ এবং কার্য (যোহন ১:১-৫)
২. বাপ্তিস্মদাতা, ঈসা মসিহের পথ প্রস্তুত করেন (যোহন ১:৬-১৩)
৩. খোদার পূর্ণতা তার দেহধারণের মধ্য দিয়ে প্রকাশিত হলো (যোহন ১:১৪-১৮)
বি - ঈসা মসিহ তার সাহাবিদেরকে অনুতাপের গোলক থেকে মিলনের আনন্দের দিকে পরিচালনা করেন (যোহন ১:১৯ - ২:১২)
১. সদ্দুকীদের একটি দল বাপ্তিস্মদাতার কাছে প্রশ্ন করছিলেন৷ (যোহন ১:১৯-২৮)
২. ঈসা মসিহ সম্পর্কে বাপ্তিস্মদাতার আরও বেশি আলোড়িত সাক্ষ্যসমূহ৷ (যোহন ১:২৯-৩৪)
৩. প্রথম ছয় সাহাবিরা (যোহন ১ : ৩৫-৫১)

৪. প্রশ্ন : কান্নানগরে বিবাহভোজে ঈসা মসিহের প্রথম মাজেজা (যোহন ২:১-১২)
সি - জেরুজালেমে মসিহের প্রথম আগমন (যোহন ২:১৩ - ৪:৪৫) -- খাঁটি এবাদত বলতে কী বুঝায়?
১. এবাদতখানা পরিষ্কারকরণ (যোহন ২:১৩-২২)
২. ঈসা মসিহ নিকোদিমের সাথে কথা বলেন (যোহন ২:২৩ - ৩:২১)
ক) মানুষেরা ঈসা মসিহের দিকে ঝুকে পড়ে (যোহন ২:২৩-২৫)

খ) একটি নতুন জন্মলাভের প্রয়োজন (যোহন ৩:১-১৩)
গ) ক্রুশ, পুনর্জন্মের নিমিত্ত (যোহন ৩:১৪-১৬)
ঘ) ঈসা মসিহকে প্রত্যাখ্যান করলে বিচারের মুখোমুখি হতে হয় (যোহন ৩:১৭-২১)
৩. বিবাহের বর ঈসা মসিহের নিকট বাপ্তিস্মদাতার সাক্ষ্য (যোহন ৩:২২-৩৬)

৪. শমরীয়ায় ঈসা মসিহ (যোহন ৪:১-৪২)
ক) ঈসা ব্যভিচারিণীকে অনুতাপ স্বীকারের জন্য পরিচালিত করলেন (যোহন ৪:১-২৬)
খ) ঈসা মসিহ তার সাহাবিদের উত্‍পন্ন ফসল দেখতে নিয়ে গেলেন (যোহন ৪:২৭-৩৮)
গ) শমরীয়াতে সুসমাচারের প্রচার (যোহন ৪:৩৯-৪২)
৫. রাজকর্মচারীর ছেলেকে সুস্থ করা৷ (যোহন ৪:৪৩-৫৪)

দ্বিতীয় খণ্ড - নূর অন্ধকারের মধ্যে জ্বলিতেছে (যোহন ৫:১ - ১১:৫৪)
ক - জেরুজালেমে দ্বিতীয় যাত্রা (যোহন ৫:১-৪৭) -- ঈসা মসিহ এবং ইহুদিদের মধ্যে বিবাধের শুরু হলো
১. পক্ষাঘাতগ্রস্ত ব্যক্তির বৈথেসদাতে সুস্থকরণ (যোহন ৫:১-১৬)
২. খোদা তার পুত্রের সাথে কাজ করেন (যোহন ৫:১৭-২০)
৩. ঈসা মসিহ মৃতকে পুনুরুত্থিত করেন এবং দুনিয়ার বিচার করেন (যোহন ৫:২০-৩১)
৪. খোদাবন্দ মসিহের বিষয়ে চারটি স্বাক্ষ্য (যোহন ৫:৩১-৪০)
৫. অবিশ্বাসের কারণ (যোহন ৫:৪১-৪৭)

বি - ঈসা মসিহ হলেন জীবনের রুটি (যোহন ৬:১-৭১)
১. পাঁচ হাজার লোককে খাওয়ান (যোহন ৬:১-১৩)
২. রাজমুকুটে ভূষিত করবার আবেদন প্রত্যাহার করলেন৷ (যোহন ৬:১৪-১৫)
৩. চরম দুর্দশার সময় ঈসা মসিহ তার সাহাবিদের কাছে আসলেন (যোহন ৬:১৬-২১)
৪. ঈসা মসিহ মানুষদেরকে তাদের পছন্দের ব্যাপারে পেশ করলেন, 'গ্রহণ করো অথবা প্রত্যাখান কাের!' (যোহন ৬:২২-৫৯)
৫. সাহাবিদের বাছাই করুন (যোহন ৫:৫৯-৭১)

সি - জেরুজালেমে ঈসা মসিহের শেষ যাত্রা (যোহন ৭:১ - ১১:৫৪) -- অন্ধকার ও নূরের পৃথককরণ
১. তাঁবুর মধ্যে উপাসনালয়ের ভোজে ঈসা মসিহের কথা (যোহন ৭:১ - ৮:৫৯)
ক) ঈসা মসিহ এবং তার ভাইয়েরা ইউহোন্না (৭:১-১৩)
খ) লোকদের ভিতর এবং উচ্চ পরিষদের মধ্যে ঈসা মসিহের ব্যাপারে ভিন্ন ভিন্ন অভিমতো (যোহন ৭:১৪-৬৩)

গ) আইনজ্ঞরা বিচারের জন্য একজন ব্যভিচারিণীকে ঈসা মসিহের কাছে আনলো৷ (যোহন ৮:১-১১)
ঘ) ঈসা মসিহ দুনিয়ার নুর (যোহন ৮:১২-২৯)
ঙ) পাপ হলো দাসত্ববন্ধন (যোহন ৮:৩০-৩৬)
চ) এফ. শয়তান, খুনী এবং মিথ্যাবাদী (যোহন ৮:৩৭-৪৭)
ছ) ইব্রাহীমের আগেই ঈসা মসিহ বিদ্যমান ছিলেন (ইউহোন্না ৮:৪৮-৫৯)

২. অন্ধ লোকটির চোখ ভালো করা (যোহন ৯:১-৪১)
ক) বিশ্রামবারে সুস্থতা দান (যোহন ৯:১-১২)
খ) আরোগ্যপ্রাপ্ত লোকটিকে ইহুদিদের জেরা (যোহন ৯:১৩-৩৪)
গ) ঈসা মসিহ নিজেকে খোদার পুত্র হিসেবে আরোগ্যপ্রাপ্ত লোকটির কাছে প্রকাশ করলো (যোহন ৯:৩৫-৪১)

৩. ঈসা মসিহ একজন ভালো রাখাল (যোহন ১০:১-৩৯)
ক) মেষেরা আসল রাখালের ডাক শোনে (যোহন ১০:১-৬)
খ) ঈসা মসিহ হলো প্রকৃত দরজা (যোহন ১০:৭-১০)
গ) ঈসা মসিহই ভালো রাখাল (যোহন ১০:১১-২১)
ঘ) পিতা ও পুত্রের একাত্বতার মধ্যে আমাদের নিরাপত্তা (যোহন ১০:২২-৩০)
ঙ) খোদার পুত্র পিতার মধ্যে এবং পিতা তার মধ্যে (যোহন ১০:৩১-৩৬)

৪. লাসারের পুনুরুত্থান ও তার উদ্ভুদ ফলাফল (যোহন ১০:৪০ - ১১:৫৪)
ক) ঈসা মসিহ জর্দানের অপর পারে (যোহন ১০:৪০ - ১১:১৬)
খ) ঈসা মসিহ মার্থা এবং মরিয়মের সাথে দেখা করলেন (যোহন ১১:১৭-৩৩)
গ) লাসারের পুনুরুত্থান (যোহন ১১:৩৪-৪৪)
ঘ) ইহুদি পরিষদ কর্তৃক ঈসা মসিহের মৃতু্য দণ্ডাদেশ (যোহন ১১:৪৫-৫৪)

খন্ড ৩ - সাহাবিদের প্রত্যেকের মধ্যে নূর জ্বলিতেছে (যোহন ১১:৫৫ - ১৭:২৬)
ক - পবিত্র সপ্তাহের ভূমিকা বা প্রস্তাবনা (যোহন ১১:৫৫ - ১২:৫০)
১. বেথানিয়াতে ঈসা মসিহের তৈল দ্বারা অভিসিক্ত করণ (যোহন ১১:৫৫ - ১২:৮)
২. ঈসা মসিহের জেরুজালেমে প্রবেশ (যোহন ১২:৯-১৯)
৩. গ্রিক লোকেরা ঈসা মসিহের সাথে পরিচিত হতে চায় (যোহন ১২:২০-২৬)
৪. প্রবল বিক্ষোভের মধ্যে পিতা মহামান্বিত হলেন (যোহন ১২:২৭-৩৬)
৫. লোকেরা নিজেদেরকে বিচারের বিষয়ে নির্মম করে (যোহন ১২:৩৭-৫০)

বি - প্রভুর ভোজের আগের ঘটনা (যোহন ১৩:১-৩৮)
১. ঈসা মসিহ তার সাহাবিদের পা ধুয়ে দিলেন (যোহন ১৩:১-১৭)
২. বিশ্বাসঘাতকটি প্রকাশিত হয়ে পড়লো এবং অপ্রতিভ হলো (যোহন ১৩:১৮-৩২)
৩. মন্ডলীর জন্য নুতন আজ্ঞা (যোহন 13:33-35)

৪. মসিহ পিতরের অস্বীকার করার কথা ভবিষ্যতবাণী করেছিলেন (যোহন ১৩:৩৬-৩৮)
সি. উপরের ঘরে বিদায়কালীন ভাষণ (যোহন ১৪:১-৩১)
১. ঈসা মসিহের মধ্যে খোদা বিদ্যামন (যোহন ১৪:১-১১)
২. পবিত্র ত্রিত্ত্বের অভিষেক পাকরূহের মাধ্যমে ইমানদারগণের ওপরে দত্ত হইলো (যোহন ১৪:১২-২৫)
৩. ঈসা মসিহের বিদায়কালীন শান্তি (যোহন ১৪:২৬-৩১)

ডি. গেত্‍সিমানী যাওয়ার পথে বিদায় সম্ভাবন (যোহন ১৫:১ - ১৬:৩৩)
১. ঈসা মসিহের মধ্যে থাকলে অনেক ফল বয়ে আনে (যোহন ১৫:১-৮)
২. পিতার সহভাগিতার সঙ্গে থাকা আমাদের পারস্পরিক ভালোবাসার মধ্যে প্রকাশ হয় (যোহন ১৫:৯-১৭)
৩. ঈসা মসিহ এবং তার সাহাবিদেরকে দুনিয়া ঘৃণা করে (যোহন ১৫:১৮ - ১৬:৩)

৪. পাক-রূহ ইতিহাসের সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা সমুহ প্রকাশিত করেন (যোহন ১৬:৪-১৫)
৫. পুনুরুত্থানের মধ্যে সাহাবিদের আনন্দের বিষয়ে ঈসা মসিহের ভবিষ্যবাণী (যোহন ১৬:১৬-২৪)
৬. আমাদের মধ্যে ঈসা মসিহের শান্তি দুনিয়ার দূর্দশাকে পরাজিত করে (যোহন ১৬:২৫-৩৩)

ই. ঈসার মধ্যস্থতা মূলক প্রার্থনা (যোহন ১৭:১-২৬)
১. মধ্যস্থতা মূলক প্রার্থনার ভূমিকা৷
২. পিতার গৌরবের জন্য প্রার্থনা
৩. ঈসা মসিহ তার প্রেরিতদের জন্য মধ্যস্থতা করলেন (যোহন ১৭:৬-১৯)
৪. সাহাবিদের ঐক্যের জন্য ঈসা মসিহের মধ্যস্থতা (যোহন ১৭:২০-২৬)

চতুর্থ খন্ড - নূর অন্ধকারকে জয় করে (যোহন ১৮:১ - ২১:২৫)
ক - গ্রেফতার হওয়া থেকে সমাহিত করা অবধি ঘটনা সমূহ (যোহন ১৮:১ - ১৯:৪২)
১. বাগানের মধ্যে ঈসা মসিহ গ্রেফতার হলেন (যোহন ১৮:১-১৪)
২. হাননের সম্মুখে মসিহকে জেরা করা এবং পিতরের ৩ বার অস্বীকার (যোহন ১৮:১৫-২১)
৩. রোমীয় সরকারের দেওয়ানী আদালতে ঈসা মসিহের জেরা (যোহন ১৮:২৮ – ১৯:১৬)
ক) নিজেকে রাজা বলে দাবি করার অভিযোগে ঈসা মসিহকে রোমীয় দেওয়ানী আদালতে (যোহন ১৮:২৮-৩৮)
খ) বারাব্বা ও মসিহের মধ্যে মনোনয়ন (যোহন ১৮:৩৯-৪০)

গ) অভিযোগকারীদের সম্মুখে ঈসা মসিহকে বেত্রাঘাত করা (যোহন ১৯:১-৫)
ঘ) ঈসা মসিহের ঐশি চরিত্র দেখে পীলাত হতবাক হয়ে পড়েন (যোহন ১৯:৬-৭)
ঙ) মসিহের ওপরে পীলাতের অশোভন রায় (যোহন ১৯:১২-১৬)
৪. সলিব ও মসিহের মৃতু্যবরণ ইউহোন্না (যোহন ১৯:১৬খ-৪২)
ক) সলিবে হত্যা এবং কাফনের কাপড় (যোহন ১৯:১৬খ-২২)
খ) মসিহের পোশাক ভাগাভাগি করা এবং লটারি ধরা (যোহন ১৯:২৩-২৪)
গ) মায়ের কাছে মসিহের বাণী ইউহোন্না (যোহন ১৯:২৫-২৭)
ঘ) সমাপ্তি ইউহোন্না (যোহন ১৯:২৮-৩০)
ঙ) মসিহের পঞ্জর বিদ্ধ করন৷ (যোহন ১৯:৩১-৩৭)
চ) মসিহের কবর সম্পন্ন (যোহন ১৯:৩৮-৪২)

বি - ঈসা মসিহের পুনরম্নত্থান ও উপস্থিতি (যোহন ২০:১ - ২১:২৫)
১. সপ্তাহের প্রথম দিন অর্থাত্‍ পুনরম্নত্থানের প্রতু্যশে (যোহন ২০:১-১০)
ক) মগদলীনী মরিয়ম কবরস্থানে হাজির হলেন (যোহন ২০:১-২)
খ) পিতর এবং ইউহোন্না কবরপানে ছুটে গেলেন (যোহন ২০:৩-১০)
গ) ঈসা মসিহ মগদলীনী মরিয়মের কাছে দেখা দেন (যোহন ২০:১১-১৮)
২. উপরের ঘরে সাহাবিদের সাথে মসিহের দর্শন দান৷ (যোহন ২০:১৯-২৩)
৩. সাহাবিদের মধ্যে যখন থোমা ছিলেন তখন মসিহ তাদের সাথে দেখা করেন৷ (যোহন ২০:২৪-২৯)
৪. ইউহোন্না বর্ণীত সুসমাচারের উপসংহার (যোহন ২০:৩০-৩১)

৫. টিবেরিয়া সাগরের পারে মসিহ সাহাবিদের সাথে দেখা দেন৷ (যোহন ২১:১-২৫)
ক) কুদরতীভাবে মাছ ধরা (যোহন ২১:১-১৪)
খ) বিশ্বাসিদের দেখাশুনা করার বিষয়ে পিতর প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হলেন (যোহন ২১:১৫-১৯)
গ) মসিহের ভবিষ্যত্‍ কথন (যোহন ২১:২০-২৩)
ঘ) ইউহোন্নার সাৰ্য ও তার নথি ভুক্ত সুসমাচার (যোহন ২১:২৪-২৫)

www.Waters-of-Life.net

Page last modified on February 21, 2014, at 08:49 AM | powered by PmWiki (pmwiki-2.2.109)