Waters of Life

Biblical Studies in Multiple Languages

Search in "Bengali":
Home -- Bengali -- John - 025 (Rejecting Christ)
This page in: -- Arabic -- Armenian -- BENGALI -- Burmese -- Cebuano -- Chinese -- English -- Farsi? -- French -- Hausa? -- Hindi -- Indonesian -- Kiswahili -- Kyrgyz -- Malayalam -- Peul -- Portuguese -- Russian -- Serbian -- Spanish? -- Tamil -- Telugu -- Turkish -- Urdu -- Uyghur? -- Uzbek -- Vietnamese -- Yiddish

Previous Lesson -- Next Lesson

যোহন - নূর অন্ধকারের মধ্যে জ্বলছে
যোহন বর্ণীত মসিহের নাজাতের বারতার সুসমাচার ওপর অধ্যয়ন
প্রথম অংশ - বেহেশতি নূর ঝলমল করছে (যোহন ১:১ - ৪:৫৪)
সি - জেরুজালেমে মসিহের প্রথম আগমন (যোহন ২:১৩ - ৪:৪৫) -- খাঁটি এবাদত বলতে কী বুঝায়?
২. ঈসা মসিহ নিকোদিমের সাথে কথা বলেন (যোহন ২:২৩ - ৩:২১)

ঘ) ঈসা মসিহকে প্রত্যাখ্যান করলে বিচারের মুখোমুখি হতে হয় (যোহন ৩:১৭-২১)


যোহন ৩:১৭-২১
১৭. 'খোদা মানুষকে দোষী প্রমাণ করিবার জন্য তাহার পুত্রকে দুনিয়াতে পাঠান নাই, বরং মানুষ যেন পুত্রের দ্বারা পাপ হইতে উদ্ধার পায় সেই জন্য তিনি তাহাকে পাঠাইয়াছেন৷ ১৮. যে সেই পুত্রের ওপর ঈমান আনে তাহার কোন বিচার হয় না, কিন্তু যে ঈমান আনে না তাহাকে দোষী বলিয়া আগেই স্থির করা হইয়া গিয়াছে, কারণ সে খোদার একমাত্র পুত্রের ওপর ঈমান আনে নাই৷ ১৯. তাহাকে দোষী বলিয়া স্থির করা হইয়াছে, কারণ দুনিয়াতে নূর আসিয়াছে, কিন্তু মানুষের কাজ খারাপ বলিয়া মানুষ নূরের চেয়ে অন্ধকারকে বেশি ভালোবাসিয়াছে৷ ২০. যে কেহ অন্যায় কাজ করিতে থাকে, সে নূর ঘৃণা করে৷ তাহার অন্যায় কাজগুলি প্রকাশ হইয়া পড়িবে বলিয়া সে নূরের নিকটে আসে না৷ ২১. কিন্তু যে সত্যের পথে চলে সে নূরের নিকটে আসে, যেন তাহার কাজগুলি যে খোদার ইচ্ছামতো করা হইয়াছে তাহা প্রকাশ পায়৷'

বাপ্তিস্মদাতা নাজাতদাতার (মসিহ) বিষয়ে প্রচার করেছিলেন যে তিনি মানুষের বিচার করবেন, তিনি তার দেশের ভিতরে জীর্ণ গাছসমূহকে কেটে ফেলবেন৷ কিন্তু ঈসা মসিহ নিকদিমকে বলেছিলেন যে তিনি এগুলোকে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে ফেলবেন না বরং তিনি এসেছেন তাদেরকে রক্ষা করতে৷ আমাদের নাজাতদাতা করুণাময়৷ যখন বাপ্তিস্মদাতা তার বদলিস্বরূপ প্রায়শ্চিতের গোপন কথা উপলব্ধি করলেন, তিনি ঈসা মসিহকে খোদার মেষ শাবক বলে আখ্যা দিলেন৷

খোদা তার ভালোবাসার মধ্য দিয়ে তার পুত্রকে কেবলমাত্র ইহুদিদের জন্য পাঠান নাই কিন্তু সরা পৃথিবীর জন্য পাঠিয়েছেন৷ 'দুনিয়া' এই শব্দটি ১৭ পদে তিনবার প্রকাশিত হয়েছে৷ এটি ইহুদিদের জন্য একটি আঘাত স্বরূপ ছিল যারা অইহুদিদের সাথে কুকুরদের মতো আচরন করতো৷ কিন্তু খোদা সব জাতিকেই ততটাই ভালোবাসতেন যতটা ইব্রাহিমের বংশধরদের ভালোবাসতেন৷ সবাই বিচারের যোগ্য, কিন্তু ঈসা মসিহ এসেছিলেন দণ্ডাদেশ দিতে নয় বরং রক্ষা করতে৷ প্রথম থেকেই তিনি তার ক্রুশের ঝুলিয়ে রাখা সাপের রূপক অলঙ্কার পূর্ণ করেছিলেন, মানুষের জন্য খোদার বিচারকে বহন করতে৷ খোদার ভালোবাসার মধ্যে জাতি বৈষম্যতা ছিল না কিন্তু সব মানুষই অন্তভর্ুক্ত ছিল৷

ঈসা মসিহ তারপর একটি লক্ষণীয় উক্তি ব্যবহার করেন, 'যে কেউ পুত্রের ওপর ঈমান আনে সে বিচারিত হবে না'৷ এভাবে বিচারের দিনের সব ভীতি দূরীভূত হলো৷ সুতরাং ঈসা মসিহের ওপর বিশ্বাস আমাদেরকে মৃতু্য থেকে মুক্ত করে, অন্যথায় আমরা মৃতু্যর যোগ্য৷ আপনি যদি ঈসা মসিহের ওপর ঈমান আনেন তাহলে আপনি বিচার থেকে মুক্ত৷

যারা মসিহের মধ্যে দিয়ে অর্জিত নাজাত প্রত্যাখান করে এবং চিন্তা করে তাদের এটার কোন প্রয়োজন নাই, তারা অন্ধ, মূর্খ এবং তাঁর রহমতো থেকে বিছিন্ন৷ যারা ঈসা মসিহের ক্ষমতোাকে স্বাগত জানায় না তারা পাক-রুহের আলোর জ্যোতিকে দূরে সরিয়ে রাখে৷ যে কেউ মসিহের মৃতু্যকে অবজ্ঞা, অস্বীকার করে, সে খোদার বিরুদ্ধে বিদ্রোহ করে এবং আত্ম ন্যায্যতাকে বেছে নেয়৷ আমাদের সকল কার্য সমূহ অপ্রতুল এবং আমরা খোদার মহিমা থেকে বঞ্চিত৷

ঈসা মসিহ ব্যাখ্যা করেছেন, কেন কিছু জাতিগোষ্ঠি মুক্তির পথকে অগ্রাহ্য করে; তারা খোদার ন্যায়পরায়ণতা থেকে পাপকেই বেশি ভালোবাসে এবং ঈসা মসিহ থেকে সরে আসে যিনি দুনিয়ার আলো৷ তাই তারা তাদের পাপের সাথে জড়িয়ে থাকে৷ ঈসা মসিহ আমাদের হৃদয়কে জানেন এবং আমাদের নিষ্ঠুর চিন্তাসমূহের মূল কারণকেও জানেন৷ মানুষের কার্যসমূহ হলো জঘন্য৷ একজনও তার নিজের চিন্তা ধারনায় ভালো নেই৷ আমাদের চিন্তাধারণা, কথাবার্তা এবং কার্যসমূহ যুবক বয়স থেকেই মন্দ৷ এই অভিব্যক্তিগুলো নিকদিমকে গভীরভাবে আঘাত করেছিল, বিশেষ করে যখন ঈসা মসিহ তাদের কছে মন্তব্য করেছিল ভালোবাসার আবেগের সাথে তার গর্বকে খর্ব করতে এবং তাকে অনুতপ্ত হতে৷

ঈসা মসিহ আরও বললেন যে কেউ ঈসা মসিহের ওপর ঈমান আনে না সে মন্দকে ভালোবাসে এবং ভালোকে ঘৃণা করে এবং তার পাপসমূহের মধ্যে জড়িয়ে থাকে৷ বেশির ভাগ মানুষই হলো ভণ্ড এবং তাদের পাপগুলিকে মৃদু হাস্যের নিচে লুকিয়ে রাখে৷ তারা ঈসা মসিহকে অজ্ঞাতভাবে অথবা ইচ্ছাকৃত ভাবে ঘৃণা করে৷ আপনি কি আপনার পাপ গুলিকে ঈসা মসিহের কাছে স্বীকার করেছেন? আপনি যদি আপনার নিষ্ঠুরতাকে স্বীকার না করেন তাহলে আপনি নতুন জন্ম লাভ করতে পারেন না৷ আপনার হৃদয়কে খোদার নূরের কাছে উম্মোচন করুন, আপনি, বিশোধন হবেন; খোদার মেষশাবকের ওপর ঈমান আনলে আমাদেরকে মুক্তপাপ করেন৷ সুতরাং নিজেকে অবনমিতো করুন, আপনার দোষ স্বীকার করুন ঈসা মসিহের ওপর বিশ্বাস রাখুন এবং আপনি চিরকাল বেঁচে থাকবেন৷

বাস্তবে আমাদের ঈমানের চর্চার অর্থ হলো সঠিক কিছু করা৷ খোদার এই সত্যকে গ্রহণ করার এই প্রস্তুতি আমাদের নবজীবন লাভের একটি শর্ত৷ যে কেউ ঈসা মসিহের সত্যে প্রবেশ করে তার বুদ্ধি দিয়ে নয় কিন্তু সম্পূর্ণভাবে নিজেকে নিয়োজিত করে সে নৈতিকভাবে রপান্তরিত হয়৷ মিথ্যাবাদীরা সত্যবাদী হয়, কপটেরা অপকট হয়, বিশ্বাস ঘাতকেরা বিশ্বস্থ হয়৷ ওই সমস্ত পুনরায় জন্মপ্রাপ্ত ব্যক্তিরা আগে ভালো ছিল না, কিন্তু তারা তাদের ক্রুটিগুলো স্বীকার করেছে এবং বিশ্বস্ত খোদা তাদেরকে ক্ষমা করে দিয়েছেন৷ তাদের মধ্যে পবিত্রকরণ শুরু হয়ে গেছে; তিনি তাদেরকে ভালোবাসার শক্তি দেন তাঁর পাক-রুহের কার্যাবলিকে অনুশীলন করতে৷ ঈসা মসিহের দ্বারা খোদা বিশ্বাসীদের মধ্যে কাজ করেন যাতে করে তারা শান্তির কাজগুলি অর্জন করতে পারেন৷

আমরা ভালো কাজগুলিকে প্রত্যাখ্যান করি না কিন্তু এগুলি আমাদের থেকে নয় বরং খোদা থেকে আসে৷ এতে আমাদের কোন কৃতিত্ব নেই, এটা তার রহমতো৷ এটার অর্থ হলো আমরা আত্মন্যায়পরায়ণতা থেকে সরে আসি যার ভিত্তি হলো আত্মবাদী প্রচেষ্টা এবং রহমতের ন্যায়পরায়ণতা উম্মোচিত হয় যা ঈসা মসিহের রক্তের ওপর নির্ভর করে৷ যারা পুনর্জন্ম প্রাপ্ত এবং ঈসা মসিহের মধ্যে বাস করে তারা সবাই খোদাকে সন্তুষ্ট করে৷ তাদের জীবন তার রহমতের জন্য ধন্যবাদের উত্‍স হয়ে থাকে৷ নতুন জন্ম এবং পবিত্র জীবন হচ্ছে এবাদত যা খোদাকে খুব সন্তুষ্ট করে৷

প্রার্থনা: প্রভু ঈসা, তোমাকে ধন্যবাদ দেই দুনিয়ার বিচারকে বহন করার জন্য৷ আমরা তোমার কাছে নতজানু হই কারণ আমাদেরকে বিচারের মুখোমুখি হতে হবে না, কারণ বিশ্বাসের মধ্য দিয়ে আমরা তোমার সাথে একাত্ম হয়েছি৷ তুমি আমাদেরকে খোদার ক্রোধের হাত থেকে মুক্ত করেছ৷ আমরা তোমার সামনে আমাদের পাপসমূহ স্বীকার করি; পাপের প্ররোচনা থেকে আমাদেরকে পরিষ্কার কর৷ আমাদের ভিতরে রুহের ফসল সৃষ্টি করো, যাতে করে আমাদের জীবন খোদার এবাদতের জন্য প্রদর্শিত হতে পারে, হে বেহেশতি পিতা৷

প্রশ্ন:

২৯. ঈসা মসিহের ওপর বিশ্বাসীরা কেন বিচারের মুখোমুখি হবে না?

www.Waters-of-Life.net

Page last modified on June 12, 2012, at 10:44 AM | powered by PmWiki (pmwiki-2.2.109)