Waters of Life

Biblical Studies in Multiple Languages

Search in "Bengali":
Home -- Bengali -- John - 116 (Peter and John race to the tomb)
This page in: -- Arabic -- Armenian -- BENGALI -- Burmese -- Cebuano -- Chinese -- English -- Farsi? -- French -- Hausa? -- Hindi -- Indonesian -- Kiswahili -- Kyrgyz -- Malayalam -- Peul -- Portuguese -- Russian -- Serbian -- Spanish? -- Tamil -- Telugu -- Turkish -- Urdu -- Uyghur? -- Uzbek -- Vietnamese -- Yiddish

Previous Lesson -- Next Lesson

যোহন - নূর অন্ধকারের মধ্যে জ্বলছে
যোহন বর্ণীত মসিহের নাজাতের বারতার সুসমাচার ওপর অধ্যয়ন
চতুর্থ খন্ড - নূর অন্ধকারকে জয় করে (যোহন ১৮:১ - ২১:২৫)
বি - ঈসা মসিহের পুনরম্নত্থান ও উপস্থিতি (যোহন ২০:১ - ২১:২৫)
১. সপ্তাহের প্রথম দিন অর্থাত্‍ পুনরম্নত্থানের প্রতু্যশে (যোহন ২০:১-১০)

খ) পিতর এবং ইউহোন্না কবরপানে ছুটে গেলেন (যোহন ২০:৩-১০)


যোহন ২০:৬-৮
শিমোন-পিতরও তাঁর পিছনে পিছনে এসে কবরের ভিতরে ঢুকলেন এবং কাপড়গুলো পড়ে থাকতে দেখলেন৷ তিনি আরও দেখলেন, তাঁর মাথায় যে রম্নমালখানা জড়ানো ছিলো তা অন্য কাপড়ের সঙ্গে নেই, কিন্তু আলাদা করে এক জায়গায় গুটিয়ে রাখ হয়েছে৷ যে সাহাবি প্রথমে কবরের কাছে পেঁৗছেছিলেন তিনিও তখন ভিতরে ঢুকলেন এবং সবকিছু দেখে বিশ্বাস করলেন৷

ইউহোন্না কবরের বাহিরে পিতরের আগমনের অপেৰাতে ছিলেন, এটা প্রবীন সাহাবির প্রতি সম্মান প্রদর্শন৷ কবরের ভিতরে প্রবেশ করার বিয়য়ে তাকে প্রথম স্থান দেয়া হবে এবং যেস্থানে মসিহ শায়িত ছিলেন তা অবলোকন করা৷ যুবক ইউহোন্না প্রথম নজরে যা কিছু দেখতে পেয়েছিলেন তাতে সে বিহ্বল হয়ে গিয়েছিলেন; দেখেছিলেন পাথরটাকে গড়িয়ে সরিয়ে দেয়া হয়েছে, কবরের মুখ খোলা আর মরদেহ উধাও৷ অথচ কাফনের কাপড়টি ভাজ করে সযত্নে রাখা হয়েছে৷ এ দৃশ্যে তার হৃদয়ে আনন্দের উদ্রেক হয়েছে এবং মনে মনে প্রার্থনা করেছেন, প্রভু যেন ঘটে যাওয়া ঘটনার বিষয়ে তাকে আলোক ও জ্ঞান দান করেন৷

একটু পরেই পিতর সেখানে এসে হাজির হলেন৷ তিনি সোজাসুজি কবরের মধ্যে প্রবেশ করলেন, দেখলেন, যে কাপড়ের টুকরোটি দিয়ে মসিহের মুখ ঢেকে রাখা হয়েছিল তা ভাজ করে আলাদা স্থানে রাখা হয়েছে৷ এর অর্থ দাঁড়ায় মরদেহ চুরি হয়ে যায় নি, কেননা সবকিছু ছিল পরিপাটি৷

পরিদর্শকের মতোই পিতর কবরে প্রবেশ করলেন কিন্তু অবশ্যম্ভাবি নিদর্শনগুলোর কোনোই অর্থ খুঁজে পেলেন না৷ ইউহোন্না সবকিছু নিয়ে চিনত্মা করেছেন, প্রার্থনা করেছেন এবং রহস্যের মধ্যে আশার আলো দেখতে পেলেন৷ পিতরের ডাকে তিনি সাড়া দিলেন, ভিতরে প্রবেশ করলেন, তখন তার হৃদয় আত্মা আলোকাজ্জল হয়েছিল এবং মসিহের পুনরম্নত্থানে বিশ্বাস স্থাপন করলেন৷ পুনরম্নত্থিত ব্যক্তির সাথে যে তাঁর মোলাকাত হয়েছিল তা নয়, বরং ঘটনাপুঞ্জের আলোকে তিনি পুনরম্নত্থিত প্রভুর ওপর তার বিশ্বাস দৃঢ় করেছিল৷ খালী কবর, কাফনের কাপড় গুছিয়ে রাখার দৃশ্য তার হৃদয়ে বিশ্বাসের ভিত দৃঢ় করলো৷

যোহন ২০:৯-১০
মৃতু্য থেকে ঈসার জীবিত হয়ে উঠবার যে দরকার আছে, পাক-কিতাবের সেই কথা তাঁরা আগে বুঝতে পারেন নি৷ এর পরে সাহাবিরা ঘরে ফিরে গেলেন৷

দার্শনিক, নবী, সাধার গুনাহগার ব্যক্তিদের মতো মসিহ কবরে পড়ে থাকেন নি, তিনি পুনরম্নত্থিত, যা কিছু মৃত তা পিছনে ফেলে জীবিত হয়ে উঠেছেন৷ যেমন কেউ পুরানো কাপড় পরিত্যাগ করে৷ পূতপবিত্র ব্যক্তি বেগুনাই রইলেন৷ তাঁর ওপর মৃতু্যর ৰমতা কার্যকর হবার নয়৷ খোদার মহব্বত বৃথা যেতে পারে না৷

ঈসা মসিহের মরদেহ বিক্রিত হয়েছে এমন কোনো দাবি বা যুক্তি ঈসা মসিহের শত্রম্নরা দাঁড় করাতে পারে না, কেননা কবরটি হলো শূন্য৷ মসিহ পালিয়ে যান নি অথবা অপহৃত হন নি, কেননা তাঁর মৃতু্যটি সংঘঠিত হয়েছে নিয়ম মোতাবেক৷ ইউহোন্না সেই সাৰী দিয়েছেন, তিনি মৃতু্য ঠেকাতে জাগতিক অস্রসস্ত্র ব্যবহার করেন নি এবং ওগুলোর প্রয়োজন বোধ করেন নি৷ যাবপাত্রে নবজাতকের পোশাক দিয়ে তার জীবন যাত্রা শুরম্ন হয়েছে, এবং কাফনের কাপড়ের মধ্য দিয়ে তিনি বিদায় নিলেন৷ পুনরম্নত্থানের মধ্য দিয়ে তাঁর নতুন জীবনের হলো শুরম্ন অর্থাত্‍ বেহেশতি পরিকল্পনার বাসত্মবায়ন আরম্ভ হলো৷ পুনরম্নত্থানের পরেও তিনি মানবীয় চরিত্র রৰা করেছেন৷

এসব চিনত্মা ও ভাব ইউহোন্নার মনকে আনন্দিত করে তুললো যখন তিনি খোলা কবর দেখে ফিরে গেলেন৷ তবুও তার অভিজ্ঞতার কারণে গর্ব প্রকাশ করলেন না৷ খোদার পুত্র মসিহের বিজয়ী পুনরম্নত্থানের প্রথম সাৰী হলেন তিনি৷ তিনি স্বীকার করলেন এবং বিশ্বাস করলেন ঐশি কুদরতে, তবে অন্ধকারে নিমজ্জিত অবস্থায় থাকা ব্যক্তির মতো; যদিও পাক-কালামে বিষয়টি অতি স্পষ্ট ভাবে সবিশেষ বর্ণীত রয়েছে৷ তার চোখ সম্পূর্ণ অন্ধছিল, নবীদের বর্ণনায়, যথা: যিশাইয় ৫৩ অধ্যায় এবং রাজা দাউদের বর্ণনায় যে বিষয়ে উলেস্নখ রয়েছে, (লুক ২৪ : ৪৪-৪৮, প্রেরিত ২ : ২৫-৩২, যবুর ১৬ : ৮-১১)

মহাভোজের দিন অতিপ্রতু্যশে প্রথম সাৰীদ্বয় ফিরে আসলেন আপন আপন গৃহে, হতবিহ্বল তবুও আনন্দ প্রত্যাশায় উত্‍ফুলস্ন, বিশ্বাস রয়েছে গভীর তবুও নানা প্রশ্নের বাণ বিদ্ধ করে চলছে, আর সে কারণে প্রার্থনা চলছে প্রভুর কাছে, তিনি বর্তমানে কোথা আছেন৷

প্রার্থনা: প্রভু মসিহ, আনত্মরিক ধন্যবাদ জ্ঞাপন করছি তোমাকে, কেবল তুমিই বিজয়ী, তুমিই সমাসিন রয়েছো প্রত্যেকটি বিশ্বাসীর অনত্মরে, তোমার পুনরম্নত্থানের উপর তাদের আস্থা ও বিশ্বাস মজবুত করে তুলছো৷ অননত্ম জীবনে দান এবং তার নিশ্চয়তা কেবল তুমিই আমাদের দান করেছো৷ আমরা তোমার ভজনা করি, কেননা তুমিই অননত্মজীবি খোদা, এবং তোমার দয়ায় আমরা হতে পেরেছি অননত্ম জীবনের অধিকারী৷ আমাদের স্বজন-প্রিয়জন যারা অদ্যাবধি পাপে ডুবে মরছে তাদের রৰা করো এবং তোমার ওপর বিশ্বাস স্থাপনের মাধ্যমে যেন তারাও অননত্ম জীবনের অধিকারী হতে পারে৷

প্রশ্ন:

১২০. খোলা ও খালি কবরের মধ্যে ইউহোন্না কোন বিষয়ে বিশ্বাস করেছিলেন?

www.Waters-of-Life.net

Page last modified on July 30, 2013, at 11:01 AM | powered by PmWiki (pmwiki-2.2.109)