Waters of Life

Biblical Studies in Multiple Languages

Search in "Bengali":
Home -- Bengali -- John - 092 (Abiding in the Father's fellowship appears in mutual love)
This page in: -- Arabic -- Armenian -- BENGALI -- Burmese -- Cebuano -- Chinese -- English -- Farsi? -- French -- Hausa? -- Hindi -- Indonesian -- Kiswahili -- Kyrgyz -- Malayalam -- Peul -- Portuguese -- Russian -- Serbian -- Spanish? -- Tamil -- Telugu -- Turkish -- Urdu -- Uyghur? -- Uzbek -- Vietnamese -- Yiddish

Previous Lesson -- Next Lesson

যোহন - নূর অন্ধকারের মধ্যে জ্বলছে
যোহন বর্ণীত মসিহের নাজাতের বারতার সুসমাচার ওপর অধ্যয়ন
দ্খন্ড ৩ - সাহাবিদের প্রত্যেকের মধ্যে নূর জ্বলিতেছে (যোহন ১১:৫৫ - ১৭:২৬)
ডি. গেত্‍সিমানী যাওয়ার পথে বিদায় সম্ভাবন (যোহন ১৫:১ - ১৬:৩৩)

২. পিতার সহভাগিতার সঙ্গে থাকা আমাদের পারস্পরিক ভালোবাসার মধ্যে প্রকাশ হয় (যোহন ১৫:৯-১৭)


যোহন ১৫:৯
৯. পিতা যেমন আমাকে মহব্বত করিয়াছেন, আমিও তেমনই তোমাদের মহব্বত করিয়াছি৷

পিতা পুত্রকে এতই ভালোবেসেছিলেন যে জর্ডান নদীতে বাপ্তিস্ম গ্রহণের সময় তিনি বেহেস্তকে উম্মুক্ত করেছিলেন৷ পাক-রূহ কপোত আকারে নেমে এসেছিল এবং একটি কন্ঠস্বর শোনা গিয়েছিল, "এ হলো আমার প্রিয় পুত্র, ইহাতেই আমি প্রিত৷" পবিত্র ত্রিত্বের এই ঘোষণা ছিল যে বাপ্তিস্মের নিদর্শনের মধ্য দিয়ে ঈসা মসিহ মানব জাতির পাপ বহন করেছিলেন যা ছিল খোদার মেষশাবকের কোরবানি হবার পথে অগ্রসর হওয়া৷ পিতার ইচ্ছাকে পুর্ন করতে পুত্র নিজেকে নিঃস্ব করেন৷ এই ভালোবাসা পিতা ও পুত্রের মধ্যেই কেবল সীমাবদ্ধ নয় কিন্তু এই মন্দ দুনিয়ার জন্য তারা এই ভালোবাসার মধ্যে একাত্ব হয়েছিলেন যার ফলে গোটা পতিত বিশ্বের অভাবিত নাজাতলাভ ঘটে তারও ব্যবস্থা করা হয়েছিল৷

ঈসা মসিহ তার পিতার ভালোবাসার মানদণ্ডে আমাদের ভালোবাসেন৷ অথচ তিনি আজ্ঞানুবতর্ী ছিলেন কিন্তু আমরা তা নই৷ আমাদের একজনও অনন্তকালের আগে থেকে জন্ম লাভ করি নাই৷ যা ঘটেছিল তা হলো পুত্র আমাদের মত পাপীদের বেছে নিয়েছিলেন এবং পরিস্কৃত করেছিলেন৷ তিনি পাক-রূহের মাধ্যমে আমাদেরকে দ্বিতীয়বার জন্ম দান করেন এবং আমাদেরকে পবিত্র করেন৷ আমরা তার হাতের পুতুলের মত নই যা ইচ্ছা করলে ছুড়ে ফেলে দেওয়া যায়৷ তিনি সারাদিন আমাদের নিয়ে চিন্তা করেন এবং আমাদের যত্ন নেন৷ তিনি আমাদের জন্য মধ্যস্থতা করেন এবং সুসংবাদের মধ্য দিয়ে আমাদের কাছে ভালোবাসার পত্র লেখেন৷ তিনি আমাদেরকে বিশ্বাস, ভালোবাসা, এবং আশায় উদ্ধুদ্ধ করেন৷ আমরা যদি এই দুনিয়াতে আমাদের পিতা মাতার সকল ভালোবাসাকে একসাথে জড় করি এবং সেই ভালোবাসাকে সকল পঙ্কিলতা ও কলুষতা থেকে বিশুদ্ধ করি তাহলে এ সব কিছুই আমাদের প্রতি ঈসা মসিহের ভালোবাসার তুলনায় সামান্য মনে হবে যা কখনো ব্যর্থ হয় না৷

যোহন ১৫:১০
১০. আমার মহব্বতের মধ্যে থাক৷ আমি আমার পিতার সমস্ত হুকুম পালন করিয়া যেমন তাহার মহব্বতের মধ্যে রহিয়াছে, তেমনই তোমরাও যদি আমার হুকুম পালন কর তবে তোমরাও আমার মহব্বতের মধ্যে থাকিবে৷

ঈসা মসিহ আপনাকে সতর্ক করে বলেছেন, আমার ভালোবাসা থেকে তোমরা নিজেদেরকে বিচ্ছিন্ন কর না৷ আমি তোমাদের ভালোবাসি এবং আমার প্রতি তোমাদের ভালোবাসার প্রমাণের দিকে তাকিয়ে থাকি৷ কোথায় তোমাদের সেই প্রার্থনা, সেগুলো কি বেহেস্তের সাথে টেলিফোনের সংযোগের মত? আমার ত্রাণকার্যের নিমিত্তে অভাবীদের জন্য কোথায় তোমাদের সেই দান? আমি তোমাদেরকে ভাল কাজ করার জন্য পরামর্শ দিচ্ছি, যা মনোরম, দয়া এবং পবিত্রতায় পূর্ণ৷ আমার ভালোবাসার মধ্যে থাক৷ পাক-রূহ তোমাদেরকে ভাল কাজ করতে প্রেরণা দেবে ঠিক যেমন খোদা অনবরত তা করে থাকেন৷"

খোদা যেমন ভালোবাসেন তেমনি কাউকে ভাল না বাসা একটি পাপ৷ ঈসা মসিহ আমাদেরকে তুলে ধরতে চান খোদার করুনার মাত্রার মধ্যে, "আমি এবং পিতা যেমন করুনায় পূর্ণ তোমারও তেমনি হও৷" আপনি হয়তো এটাকে অসম্ভব মনে করতে পারেন, যদি বিষয়টি মানবিক চিন্তার মাত্রার মধ্যে ভেবে থাকেন৷ কিন্তু আপনি জানেন না ঈসা মসিহ কি চান, তিনি আপনার মধ্যে কি কাজ করতে পারেন৷ তিনি আপনার মধ্যে পাক-রূহ ঢেলে দেন যাতে করে আপনি তার মত ভালোবাসতে পারেন৷ এই রূহের মাধ্যমে পৌল বলেন, "আমি ঈসা মসিহের মধ্য দিয়ে সব কিছু করতে পারি যিনি আমার মধ্যে শক্তি সঞ্চার করেন৷"

ঈসা মসিহ এই ঘটনার সাক্ষ্য বহন করেছিলেন যে, তিনি কখনো ঐক্যতানের মধ্যে তার পিতার ইচ্ছার বাইরে মাত্রা ছাড়িয়ে যাননি, বরং তিনি সব সময় খোদার ভালোবাসার মধ্যে ছিলেন৷ ঈসা মসিহ আমাদের মধ্যে খোদার শান্তি ফিরিয়ে আনেন৷

যোহন ১৫:১১
১১. এই সমস্ত কথা আমি তোমাদের বলিলাম, যেন আমার আনন্দ তোমাদের অন্তরে থাকে ও তোমাদের আনন্দ পূর্ণ হয়৷

মানুষ যতক্ষণ খোদা থেকে দূরে থাকবে ততক্ষন তার হৃদয় কষ্ট এবং তৃষ্ণায় পূর্ণ থাকবে৷ ঈসা মসিহ তার পিতার ভালোবাসার মধ্যে ছিলেন এবং পরিপূর্ণ আনন্দ ও পরম সুখের মধ্যে ছিলেন৷ তার সত্ত্বার মধ্যে খোদার জন্য গান এবং প্রশংসা অবিরামভাবে চলতো৷ তার উদ্ধার পর্বের সাথে তিনি আমাদেরকে মহা সাগরের মত ভালোবাসা দিতে চান৷ খোদা হলেন আনন্দে পরিপূর্ণ খোদা৷

ভালোবাসার মধ্যে দিয়ে আনন্দ উদ্ভূত হয় যা রূহের ফলের তালিকা অনুযায়ী দ্বিতীয় ফল৷ যেখানে পাপকে অকার্যকর করা হয় সেখানে আনন্দের পরিব্যাপ্তি ঘটে৷ ঈসা মসিহ আমাদের মধ্যে মুক্তির আনন্দকে শক্তিশালী করতে চান, যাতে করে অন্যদের উপরে তা উপচে পড়ে৷ আনন্দেপূর্ণ ব্যক্তি তার আনন্দকে নিজের মধ্যে ধরে রাখতে পারে না, কিন্তু সে খোদার আশ্বাসের আনন্দ ও ক্ষমার মধ্য দিয়ে অন্যদের উদ্ধার করতে চায়৷ তখন আমাদের আনন্দ পূর্ণ হয় যখন অনেকে নাজাত লাভ করে৷ যেমন প্রেরিত বলেছে, "খোদা চায় সবাই নাজাত পাক এবং খাঁটি জ্ঞানে পূর্ণ হোক"৷ দ্বন্দ এবং ভোগান্তির মধ্যে সুসংবাদ প্রচার হলো আনন্দের ফোয়ারা৷

যোহন ১৫:১২-১৩
১২. আমার হুকুম এই, আমি যেমন তোমাদের মহব্বত করিয়াছি তেমনি তোমরাও একজন অন্যজনকে মহব্বত কর৷ ১৩. কেহ যদি তাহার বন্ধুদের জন্য নিজের প্রান দেয়, তবে তাহার চেয়ে বেশী মহব্বত আর কাহারও নাই৷

ঈসা মসিহ আমাদের ভালোবাসেন, আমাদের নাম চরিত্র এবং অতীতের বিষয় জানেন৷ তিনি আমাদের দূর্দশা ও সমস্যা গুলির ব্যাপারে অনুভব করেন৷ ভবিষ্যতে আমাদেরকে সাহায্য করার জন্য তার একটি পরিকল্পনা আছে৷ তিনি আমাদের প্রার্থনার মধ্যে সর্বদাই কথপোকথন করতে প্রস্তুত, তিনি আমাদের পাপ সমূহ ক্ষমা করেন এবং সত্য ও বিশুদ্ধতার মধ্যে আমাদেরকে পবিত্র জীবন-যাপন করতে প্রেরণা দেন৷

যেমন ঈসা মসিহ আমাদের ভালোবাসেন তাই তিনি চান আমরাও যেন একে অপরকে ভালোবাসি৷ আমরা আমাদের আত্মিয় ও বন্ধু বান্ধবদের বিষয় বেশী সচেতন হই এবং তাদের অবস্থা ও দূর্দশার বিষয়ও অনুভব করি৷ আমরা তাদের উদ্দেশ্য এবং ব্যক্তিত্বের বিষয় উপলব্ধি করত শুরু করি৷ আমরা তাদের সমস্যা গুলির সমাধান খুঁজি এবং তাদের সাহায্য করি ও তাদের সাথে সময় কাটাই৷ যদি তারা ভূল করে তবে আমরা তাদের ক্ষমা করি এবং তা সহ্য করি কিন্তু তাদের ভূল বা ব্যর্থতাকে উল্লেখ করি না৷

ঈসা মসিহ তার জীবনের সর্বোচ্চ ভালোবাসার বর্ণনা করেন৷ তিনি কেবল মাত্র কথা বলেননি এবং সাহায্য করেননি কিন্তু পাপীদের জন্য নিজেকে উত্‍সর্গ করতে প্রত্যাশা করেন৷ যে তার মন্দ চায় তিনি তার জন্য প্রার্থনা করেন এবং তাদেরকে বন্ধু হিসেবে মেনে নেন৷ তিনি তার শত্রুদের জন্য প্রার্থনা করেছেন, "পিতা তাদের ক্ষমা কর, কারণ তারা জানে না তারা কি করছে"৷ তিনি তাদেরকে কেবল ভাই অথবা খোদার সন্তান হিসেবে আখ্যায়িত করেননি কিন্তু প্রিয়জন বলে ডেকেছেন৷ যারা তার ভালোবাসার যোগ্য নয় তাদের মুক্তির জন্য তিনি মৃতু্যবরণ করেছেন৷

যোহন ১৫:১৪-১৫
১৪. যে সমস্ত হুকুম আমি তোমাদের দিই, তাহা যদি তোমরা পালন কর, তবেই তোমরা আমার বন্ধু৷ ১৫. আমি তোমাদের আর গোলাম বলি না, কারণ মানব কি করেন গোলাম তাহা জানে না, বরং আমি তোমাদের বন্ধু বলিয়াছি, কারণ আমি পিতার নিকট হইতে যাহা কিছু শুনিয়াছি তাহা তোমাদের জানাইয়াছি৷

খোদা আপনাকে অতিশয় প্রিয়পাত্র বলে ডেকেছেন৷ তিনি ব্যক্তিগতভাবে সবাইকে এই বলে ডাকেন৷ আপনি নিঃসঙ্গ হতে পারেন, আপনার দিকে ফিরে তাকানোর কেউ নেই৷ ঈসা মসিহের দিকে দৃষ্টি দিন, যিনি আপনাার জন্য মৃতু্যবরণ করেছেন এবং আপনার জন্য বেঁচে আছেন৷ তিনি আপনার সব চাইতে ভাল বন্ধু৷ সর্বদাই সাহায্য করার জন্য প্রস্তুত৷ তিনি আপনার চিন্তা ভাবনা সম্পর্কে জানেন এবং সৌহার্দের মধ্যে আপনার কাছ থেকে একটি জবাবের জন্য অপেক্ষা করেন৷ তার বন্ধুত্বের মধ্যে থাকার শর্ত হলো আমরা সবাই যেন তাকে ভালোবাসি যেমন তিনি আমাদের ভালোবাসেন৷ দুইজন ব্যক্তি থেকে অপরের সাথে বৈষম্য নিয়ে থাকতে পারে না যখন তারা বলে তারা নিজেরা ঈসা মসিহের মত ভালোবাসায় পূর্ণ৷ তার বন্ধুত্ব এই দাবী করে যে আমরা যেন একে অপরকে ভালোবাসি৷ তিনি আমাদেরকে অতি প্রিয়তম বলে ডেকেছেন৷ আমরা তারই, কারণ তিনি আমাদের সৃষ্টি করেছেন এবং তার অধিকার আছে আমাদেরকে দাস হিসেবে পরিচালনা করার৷ তিনি আমাদেরকে দাসত্বের জোয়াল থেকে মুক্ত করেছেন এবং আমাদেরকে উত্থিত করেছেন৷ তিনি আমাদেরকে তার বেহেস্তী কার্যাবলীর বিষযে বলেছেন৷ তিনি আমাদেরকে অজ্ঞ হিসেবে রাখেননি কিন্তু আমাদেরকে পিতার নাম সলিবের শক্তি এবং পাক-রূহের ভালোবাসা শিখিয়েছেন৷ পবিত্র ত্রিত্বের রহস্যকে আমাদের কাছে তুলে ধরেছেন৷ লুকায়িত শাশ্বত সত্যকে আমাদের কাছে তুলে ধরেছেন৷ পিতা এই বিষয়গুলি পুত্রের হাতে হস্তান্তর করে আমাদের কাছে প্রকাশ করেছেন৷ তার বন্ধুত্ব এতই মহত্‍ যে তিনি তার কাজে, অনুগ্রহে, সম্মানে, ক্ষমতায় এবং জীবনে অংশ গ্রহণ করতে আমাদেরকে অনুমতি দিয়েছেন৷ তিনি এমনকি পুত্রত্বের অধিকারকে ধরে রাখেননি কিন্তু খোদার সন্তান হওয়ার জন্য আমাদেরকে তার কাছে টেনেছেন৷

যোহন ১৫:১৬-১৭
১৬. তোমরা আমাকে বাছিয়া লও নাই, কিন্তু আমিই তোমাদের বাছিয়া লইয়া কাজে লাগাইয়াছি, যাহাতে তোমাদের জীবনে ফল ধরে আর তোমাদের সেই ফল যেন টিকিয়া থাকে৷ তাহা হইলে আমার নামে পিতার নিকট যাহা কিছু চাহিবে তাহা তিনি তোমাদের দিবেন৷ ১৭. এই হুকুম আমি তোমাদের দিতেছি যে, তোমরা একজন অন্যজনকে মহব্বত কর৷

ঈসা মসিহের সাথে আপনার সম্পর্ক কেবল আপনার ইচ্ছা, আকাঙ্খা অথবা অভিজ্ঞতার উপর নির্ভর কর না, কিন্তু তা নির্ভর করে তার ভালোবাসা, মনোয়ন এবং আপনাকে ডাকবার উপর৷ আপনি আপনার পাপের দাস ছিলেন, শয়তান এবং মৃতু্যর কবলে ছিলেন৷ আপনি বন্দী নিবাস থেকে বের হয়ে আসতে অসমর্থ ছিলেন, কিন্তু অনন্তকাল থেকে তিনি আপনাকে মনোনীত করেছেন, তার বহুমূল্য রক্তের মধ্য দিয়ে আপনাকে মুক্ত করেছেন৷ তিনি আপনাকে তার বন্ধু বানিয়েছেন এবং আপনাকে খোদার পুত্রের উত্তরাধীকার দিয়ে বহাল করেছেন৷ তার এই মনোয়ন সম্পূর্ণভাবে রহমতের মধ্য দিয়ে হয়েছে৷ ঈসা মসিহ সকল মানুষকে মনোনীত করেছেন যখন সলিবের উপর তিনি আপনার পাপের জন্য প্রায়শ্চিত্ত করেছেন৷ সকলে তার ডাক শোনে না তারা পাপের পঙ্কিলতার মধ্যে থাকতে পছন্দ করে৷ তারা খোদার সন্তানদের স্বাধীনতার বিষয় জানে না৷ ঈসা মসিহ আপনাকে পাপ থেকে মুক্ত হতে এবং বেহেস্তি সহভাগীতার জন্য ডেকেছেন৷ ভালোবাসার মধ্যে নিজেকে তৈরি করুন৷ আপনার স্বাধীনতার একটি উদ্দেশ্য আছে, তা হলো আপনার প্রভূকে এবং মানবজাতিকে স্বেচ্ছাকৃতভাবে সেবা করা৷ কৃতদাসদের মত তা বাধ্যতামূলক নয়৷ ভালোবাসার নিমিত্তে ঈসা মসিহ একজন স্বেচ্ছাকৃত সেবাদানকারী হয়েছেন৷ তিনি আমাদের আদর্শ, নিজের ব্যাপারে যত্নবান ছিলেন না কিন্তু প্রিয়জনদের ব্যাপারে উদ্বিগ্ন ছিলেন৷

তাই তিনি প্রত্যাশা করেন, আপনি আপনার বন্ধুদের ব্যাপারে উদ্বিগ্ন হন, তার মেষদের জন্য রাখালের মত৷ যেহেতু আমাদের সামর্থের সীমাবদ্ধতা আছে, মানুষ তাই অন্যকে পাপের দাসত্ব থেকে মুক্ত করতে পারে না৷ ঈসা মসিহ তার নামে প্রার্থনা করতে আমাদেরকে উত্‍সাহিত করেন৷ কারণ আমরা যদি ঈসা মসিহের কাছে প্রার্থনা করি তবে তিনি মুক্তিপ্রাপ্তদের পথ নিদের্শনা এবং তাদেরকে নৈতিক ও আধ্যাত্মিকভাবে প্রস্তুত করবেন এবং তিনি তাদের দেহ, আত্মা ও রূহের প্রয়োজন মিটাবেন৷ ফলপ্রসু প্রার্থনার রহস্য হলো ভালোবাসা৷ পাক-রূহের মধ্য দিয়ে যদি আপনি আপনার বন্ধুদের জন্য প্রার্থনা করেন, ঈসা মসিহ আপনাকে আপনার অজানা পাপগুলি দেখিয়ে দেবেন এবং আপনাকে জ্ঞান-গর্ব এবং কার্যকরী জীবনে পরিচালিত করবেন এবং খাঁটি প্রার্থনা ও নম্রতার দিকে পরিচালিত করবেন৷ আপনি যদি আপনার বন্ধুদের মুক্তি ও পবিত্রতার জন্য প্রার্থনা করেন তাহলে প্রভূ তার জবাব দেবেন৷ আমরা আপনাকে প্রার্থনা চালিয়ে যাবার জন্য আহ্বান জানাই৷

ঈসা মসিহ আপনাকে নিস্ফলতার প্রতিশ্রুতি দেন না কিন্তু ফল বয়ে আনবার প্রতিশ্রুতি দেন যা রয়ে যাবে৷ যে কেউ আপনার প্রার্থনা এবং সাধ্যের মধ্য দিয়ে বিশ্বাস করে সে চিরকাল বেঁচে থাকবে এবং মৃতু্য পার হয়ে জীবনে আসবে৷ বিশ্বাস প্রার্থনা এবং সাধ্য বাদেও ঈসা মসিহ আপনার বন্ধুদেরকে হৃদয় এবং খাঁটি প্রেম দিয়ে ভালোবাসতে আদেশ করেন৷ তাদের দূরহ চরিত্র সত্ত্বেও ধৈর্য্যসহকারে তাদের সহ্য করেন৷ তাদের কাছে নম্র হন যেমন খোদার আপনার কাছে অমায়িক৷ এই দুনিয়া যা দুষ্ট এবং কুত্‍সিত তাকে খোদার ভালোবাসা দিয়ে আলোকিত করেন৷ সেবা, উত্‍সর্গ, শোনা এবং উত্তর দিতে নিজেকে প্রশিক্ষিত করুন৷ ঈসা মসিহের ভালোবাসা যেন আপনাদের মধ্য দিয়ে বিকীর্ণ হয়৷

প্রার্থনা: প্রভূ ঈসা মসিহ, আমরা আপনাকে ধন্যবাদ দেই কারণ আপনি আমাদেরকে পাপের দাসত্ব থেকে মুক্ত করেছেন এবং আমাদেরকে আপনার প্রিয়জন বানিয়েছেন৷ আমরা যেন সবাইকে ভালোবাসতে শিখি যেমন আপনি আমাদের ভালোবেসেছেন৷ আমরা আপনার এবাদত করি এবং আমাদেরকে আপনার হাতে সমর্পণ করি, আমাদের আজ্ঞানুবতর্ীতা শিখান, যাতে করে প্রচুর পরিমানে ভালোবাসার ফসল বয়ে আনতে পারি৷

প্রশ্ন:

৯৬. যারা পাপের দাস ছিল ঈসা মসিহ কি করে তাদেরকে তার প্রিয়জন হিসেবে তৈরী করলেন?

www.Waters-of-Life.net

Page last modified on June 29, 2012, at 11:32 AM | powered by PmWiki (pmwiki-2.2.109)