Waters of Life

Biblical Studies in Multiple Languages

Search in "Bengali":
Home -- Bengali -- John - 123 (Jesus appears to the disciples with Thomas)
This page in: -- Arabic -- Armenian -- BENGALI -- Burmese -- Cebuano -- Chinese -- English -- Farsi? -- French -- Hausa? -- Hindi -- Indonesian -- Kiswahili -- Kyrgyz -- Malayalam -- Peul -- Portuguese -- Russian -- Serbian -- Spanish? -- Tamil -- Telugu -- Turkish -- Urdu -- Uyghur? -- Uzbek -- Vietnamese -- Yiddish

Previous Lesson -- Next Lesson

যোহন - নূর অন্ধকারের মধ্যে জ্বলছে
যোহন বর্ণীত মসিহের নাজাতের বারতার সুসমাচার ওপর অধ্যয়ন
চতুর্থ খন্ড - নূর অন্ধকারকে জয় করে (যোহন ১৮:১ - ২১:২৫)
বি - ঈসা মসিহের পুনরম্নত্থান ও উপস্থিতি (যোহন ২০:১ - ২১:২৫)

৩. সাহাবিদের মধ্যে যখন থোমা ছিলেন তখন মসিহ তাদের সাথে দেখা করেন৷ (যোহন ২০:২৪-২৯)


যোহন ২০:২৪-২৫
অন্য সাহাবিরা পরে থোমাকে বললেন, 'আমরা হুজুরকে দেখেছি৷' থোমা তাঁদের বললেন, 'আমি তাঁর দুই হাতে যদি পেরেকের চিহ্ন না দেখি, সেই চিহ্নের মধ্যে আংগুল না দিই এবং তাঁর পাঁজরে হাত না দিই, তবে কোনমতেই আমি বিশ্বাস করব না৷'

এটা মনে করার কোনো কারণ নেই যে প্রত্যেকটি সমালোচক পাকরূহের বিরম্নদ্ধে কথা বলে৷ তাছাড়া যারা আপনার সাৰ্য প্রত্যাখ্যান করে তারা সকলেই যে বিভ্রানত্ম ও ধ্বংসপ্রাপ্ত তাও ঠিক নয়৷ এখানে দেখানো হয়েছে একটি আশ্চর্য ঘটনা মসিহের বেহেশত যাবার পূর্বে ৪০ দিন ঘটে যাওয়া নানা ঘটনার মধ্য দিয়ে৷ দেখা গেছে রহমত প্রকাশের ফলে মানুষের হৃদয় তাঁর প্রতি অগণিত লোকের বিশ্বাস হয়েছে যা ধমর্ীয় কাজ ধর্মীয় প্রজ্ঞা পা-িত্য, তথা যুক্তি জালের ফলে হৃদয় ছুতে পারে নি কেবল রহমতের ফলেই মানুষের হৃদয় হয় পরিবর্তিত৷

থোমা ছিলে হতাশাবাদী৷ প্রত্যেকটি ঘটনার কুফলটি দেখতে পেতেন৷ বিষয়ের গভীরে তন্ন তন্ন করে দেখার অভ্যাস ছিল তাঁর অনত্মনির্হীত সত্যবিষয়টুকুও জানার জন্য৷ (ইউহোন্না ১১ : ১৬; ১৪ : ৫)৷ তিনি চিনত্মাশীল ব্যক্তি ছিলেন, মানসিকভাবে চিনত্মা পূর্বক যে কোনো বিষয়ের সমাধান খুঁজতেন৷ মসিহের মৃতু্যর মাধ্যমে তিনি বুঝতে পেরেছিলেন জীবনের কোনো অর্থ নেই৷ সাহাবিদের দল থেকে তিনি নিজেকে আলাদা করে রেখেছিলেন৷ তাই প্রথম রোববার মসিহকে পুনরম্নত্থিত অবস্থায় দেখতে পান নি যখন মসিহ অন্যান্য সাহাবিদের সাথে দেখা দিয়েছিলেন৷ সম্ভবতঃ থোমা তর্ক জুড়ে দিয়েছিলেন, মসিহের উপস্থিতি শয়তানের কোনো চালবাজি ছিল কি না, শয়তানের আত্মা মসিহের রূপ ধারণ করে সাহাবিদের ভুল পথে পরিচালনা করার জন্য কোনো ষড়যন্ত্র করেছে কি না৷ আশ্চর্যের ঘটনা ঘটে গেল তার জীবনে, যার ফলে তিনি মসিহের পুনরম্নত্থানের বিষয়টুকু জোরালোভাবে সাৰ্য দিতে শুরম্ন করলেন, যখন মসিহ নিজেই তার সাথে দেখা দিলেন৷ হাতের তালুতে পেরেকের ৰত না দেখা পর্যনত্ম তিনি বিশ্বাস করতে আদৌ রাজি ছিলেন না৷ এভাবে মসিহের ওপর ইমান স্থাপনের পূর্বে চাৰুস দর্শনের দাবি তুলে ছিলেন৷ এ যেন বিশ্বাস করার পূর্বে দর্শন লাভ৷

তারপর তিনি বিশ্বাসীদের সহভাগিতায় পুনরায় যোগ দিলেন৷ দেখলেন মসিহের দর্শন লাভে তাদের আনন্দের বাধ ভেঙ্গে গেছে৷ তিনি দুঃখ প্রকাশ করলেন, যুক্তি দাঁড়ম করলেন, মসিহ যে পুনরম্নত্থিত হয়েছে, তার প্রমান খুঁজছিলেন৷

যোহন ২০:২৬-২৮
এর এক সপ্তা পরে সাহাবিরা আবার ঘরের মধ্যে মিলিত হলেন, আর থোমাও তাঁদের সঙ্গে ছিলেন৷ যদিও সমসত্ম দরজা বন্ধ ছিল তবুও ঈসা মসিহ এসে তাঁদের মাঝখানে দাঁড়িয়ে বললেন, 'আসসালামু আলাইকুম৷' পরে তিনি থোমাকে বললেন, 'তোমার আঙ্গুল এখানে দিয়ে আমার হাত দু'খানা দেখ এবং তোমার হাত বাড়িয়ে আমার পাঁজরে রাখ৷ অবিশ্বাস কোরো না বরং বিশ্বাস কর৷' তখন থোমা বললেন, 'প্রভু আমার, আলস্নাহ আমার৷'৷

এক সপ্তাহ পরে মসিহ সাহাবিদের সাথে আবার দেখা দিলেন৷ তখনও সাহাবিগণ ভীত ছিলেন এবং দরজা জানালা বন্ধ করে থাকতেন৷ মসিহ পুনরম্নত্থিত দেহে স্বশব্দে উপস্থিত হলেন৷ তিনি তাদের আশির্বাদ করলেন, তারা বড়ই দুর্বল বিধায় শানত্মি ও ৰমা প্রদান করলেন৷

থোমা বড়ই আশ্চর্যভাবে খোলা চোখে তাকে দেখলেন, শুনলেন তাঁর বক্তব্য৷ তিনি সকলকে দেখলেন আর থোমাকে বিশেষভাবে ঐশি নজরে তার সন্দেহের বর্তমান অবস্থাটি দেখলেন৷ ভয়ে কুচকে যাওয়া থোমাকে মসিহ আহ্বান জনালেন তাকে স্পর্শ করার জন্য, মগদলীনী মরিয়মকে নিষেধ করেছিলেন স্পর্শ করার বিষয়ে৷ তিনি থোমাকে বললেন, 'ছুয়ে অনুভব কর, আমি খাঁটি মানুষ, তোমাদের মধ্যে উপস্থিত রয়েছি৷' মসিহ তাকে শুধু দেখতেই বলেন নি উপরন্তু ছুয়ে দেখতে ও হাতের তালুতে পেরেকের ৰতস্থানে আঙ্গুল দিয়ে পরীৰা করতে বলেছেন৷ 'কাছে এস এবং ৰতস্থানে আঙ্গুল দিয়ে পরখ করো আর বিশ্বাস করো৷

তিনি তাঁর সন্দিহান সাহাবিকে সকল সন্দেহ দূর করার জন্য তাগিদ দিয়েছেন৷ মসিহ আমাদের কাছ থেকে তাঁর ওপর পরিপূর্ণ আস্থা কামনা করেন, কারণ তার ঘোষণানুযায়ী তাঁর সলিব, পুনরম্নত্থান, খোদার সাথে পুনর্মিলন এবং তাঁর দ্বিতীয় আগমন এর সবকটি আমাদের কল্যাণের জন্যই হয়েছে সাধিত৷ যে কেউ এ সত্য ঘটনাগুলো অস্বীকার করে সে তো পরিষ্কার মিথ্যাবাদী৷

মসিহের মহব্বতপূর্ণ আচরণ থোমাকে নিঃশ্ব করে দিয়েছে, তার জীভ জড়িয়ে গেল, প্রার্থনা ও স্বীকারোক্তির সাথে তিনি উচ্চারণ করলেন, 'প্রভু আমার, খোদা আমার' তার এ স্বীকারোক্তিটি স্রেষ্ট স্বীকৃতি বলে গণ্য করা হলো৷ শোক-বিহ্বল অবস্থায় সত্য খুঁজতে গিয়ে তিনি বুঝতে পেরেছেন, মসিহ স্বাধীন বিচ্ছিন্ন নন, বরং পরিপূর্ণ ঐশি সত্তা নিয়ে মানব দেহে খোদার পুত্রের প্রকাশ৷ খোদা তো একক মাত্র৷ তিনি দুই নন৷ থোমা মসিহকে খোদা বলে সম্বোধন করলেন, তিনি জানতেন এ মহান পবিত্র ব্যক্তি তার গুনাহের বিচার করতে আগত নন, বরং তার উপর আশির্বাদ দান করবেন যাতে তিনি প্রভুকে দেখতে পান৷ থোমা মসিহকে প্রভু বলে সম্বোধন করলেন৷ তিনি তার অতীত ও ভবিষ্যত নাজাতদাতা প্রভুর হাতে তুলে দিলেন৷ তিনি জানতেন প্রভুর বিদায়কালীন ভাষণের বিষয়াদি৷ ভ্রাতঃ আপনি কি বলেন? থোমার স্বীকারোক্তি কি আপনার স্বীকারোক্তি বলে মনে করেন? পুনরম্নত্থিত ব্যক্তিটি আপনার কাছে উপস্থিত হয়েছেন? আপনি কি তাঁর মহিমার বিষয়ে শ্রদ্ধাভক্তিতে অবনত এবং আপনার সন্দেহ ও একগুয়েমিভাব থেকে মুক্ত হতে পেরেছেন? নিজেকে তাঁর করম্ননার হাতে ছেড়ে দিন, স্বীকার করম্নন, বলে উঠুন, 'প্রভু আমার, খোদা আমার৷'

প্রার্থনা: প্রভু মসিহ, আমরা আপনার শুকরিয়া আদায় করি, কেননা সন্দেহপ্রবন থোমাকে তুমি প্রত্যাখ্যান করোনি, কিন্তু নিজেকে তার কাছে প্রকাশ করেছো৷ আমাদের জীবন তোমার আপন করে নাও আর সন্দেহের জিহ্বা ও চেতনাগুলো দূর করে দাও৷

প্রশ্ন:

১২৭. থোমার সন্দেহে কী ইঙ্গিত করে?

www.Waters-of-Life.net

Page last modified on July 30, 2013, at 11:12 AM | powered by PmWiki (pmwiki-2.2.109)