Waters of Life

Biblical Studies in Multiple Languages

Search in "Bengali":
Home -- Bengali -- John - 104 (Jesus intercedes for the church's unity)
This page in: -- Arabic -- Armenian -- BENGALI -- Burmese -- Cebuano -- Chinese -- English -- Farsi? -- French -- Hausa? -- Hindi -- Indonesian -- Kiswahili -- Kyrgyz -- Malayalam -- Peul -- Portuguese -- Russian -- Serbian -- Spanish? -- Tamil -- Telugu -- Turkish -- Urdu -- Uyghur? -- Uzbek -- Vietnamese -- Yiddish

Previous Lesson -- Next Lesson

যোহন - নূর অন্ধকারের মধ্যে জ্বলছে
যোহন বর্ণীত মসিহের নাজাতের বারতার সুসমাচার ওপর অধ্যয়ন
দ্খন্ড ৩ - সাহাবিদের প্রত্যেকের মধ্যে নূর জ্বলিতেছে (যোহন ১১:৫৫ - ১৭:২৬)
ই. ঈসার মধ্যস্থতা মূলক প্রার্থনা (যোহন ১৭:১-২৬)

৪. সাহাবিদের ঐক্যের জন্য ঈসা মসিহের মধ্যস্থতা (যোহন ১৭:২০-২৬)


যোহন ১৭:২০-২১
২০. আমি যে কেবল ইহাদের জন্য অনুরোধ করিতেছি তাহা নয়, কিন্তু যাহারা ইহাদের কথার মধ্য দিয়ে আমার উপর ঈমান আনিবে, তাহাদের জন্যও অনুরোধ করিতেছি, যেন তাহারা সকলেই এক হয়৷ ২১. পিতা, তুমি যেমন আমার সঙ্গে যুক্ত আছ আর আমি তোমার সঙ্গে যুক্ত আছি, তেমনই তাহারাও যেন আমাদের সঙ্গে যুক্ত থাকিতে পারে৷ তাহাতে দুনিয়া বিশ্বাস করিতে পারিবে যে, তুমিই আমাকে পাঠাইয়াছ৷

ঈসা মসিহ তার সাহাবিদেরকে খোদার ভালোবাসা এবং রূহের শক্তিতে প্রতিষ্ঠিত করেছিলেন এবং পিতার কাছে মন্দের হাত থেকে তাদেরকে রক্ষা করতে অনুরোধ করেছিলেন এবং সলিবে যাবার আগে সুসমাচারের মধ্য দিয়ে তাদেরকে পবিত্র করতে তার কাছে মিনতি করেছিলেন৷ তার প্রেরিতদের এবং সাহাবির পক্ষে তার প্রার্থনার উত্তর পাবার বিষয়ে নিশ্চিত হবার পর তিনি ভবিষ্যতের দিকে তাকালেন এবং দেখলেন অসংখ্য বিশ্বাসী তার প্রেরিতদের বাণীর মধ্য দিয়ে আর্বিভূত হয়েছে৷ জীবন্ত ঈসা মসিহের উপর বিশ্বাসের মধ্য দিয়ে পাকরূহ তাদের হৃদয়ে নেমে এসেছিল যাতে করে তারা বেহেস্তি জীবনের রহমতে অংশ নিতে পারে৷ বিশ্বাসের মধ্য দিয়ে তারা পিতা ও পুত্রের সাথে একাত্ত্ব হয়েছিল চিরকালের জন্য৷

ঈসা মসিহ সেইসব বিশ্বাসীদের জন্য প্রার্থনা করেছিলেন যারা প্রেরিতদের মাধ্যমে ঈমান এনেছিল৷ আশ্চর্য্যজনক ভাবে যখন তিনি প্রার্থনা করে ছিলেন তাদেরকে তখনো খুঁজে পাওয়া যায়নি৷ তার বাক্য প্রমাণ করে প্রেরিতদের বাণীর মৌলিক বিশ্বাসযোগ্যতাকে৷ সুতরাং আমাদের জন্য তার দাবীর সারমর্ম কি? তিনি কি আমাদের স্বাস্থ্য, সমৃদ্ধি এবং ভবিষ্যত সাফল্যের জন্য প্রার্থনা করেছিলেন? না! তিনি পিতার কাছে আমাদেরকে নম্রতা ও ভালোবাসা প্রদান করতে অনুরোধ করেছিলেন যাতে করে আমরা সকল বিশ্বস্থ মসিহি অনুসারীদের সাথে এক হতে পারি৷ আমাদের চিন্তা করা উচিত্‍ নয় যে আমরা অন্যদের থেকে ভাল অথবা তাদের অসহনীয় আচরনকে খুঁজে বের করা আমাদের উচিত্‍ নয়৷

ঈসা মসিহের লক্ষ্য হলো বিশ্বাসীদের ঐক্য, সাহাবিদের মধ্যে যে বিভক্তি রয়েছে তা তার পরিকল্পনাকে বাঁধা দেয়৷ যাই হোক এই ঐক্য যার জন্য ঈসা মসিহ অনুরোধ করেছিলেন তা যাজক দ্বারা সাজানো যায় না কিন্তু সেটা প্রার্থনার মধ্যে আধ্যাত্মিক বন্ধন ও রাহুর মাধ্যমে স্থাপন করা যায়৷ যেমন মৌলিকভাবে একজন, তাই ঈসা মসিহ তার পিতাকে পাকরূহের সহভাগীতার মধ্যে সকল বিশ্বাসীকে আনতে অনুরোধ করেছিলেন, যাতে করে সবাই তার মধ্যে নিরাপদ থাকে৷ যদিও ঈসা মসিহ এই প্রার্থনা করেননি, "তারা যাতে আমার বা তোমার মধ্যে এক হতে পারে", কিন্তু বলেছিলেন আমাদের মধ্যে তাই তিনি রূহের মধ্যে পিতা ও পুত্রের নিখুঁত ঐক্যকে বুঝিয়েছিলেন৷ তিনি আপনাকে তার জায়গায় উঠাতে চান কারণ ত্রিত্বের সহভাগীতার বাইরে দোজখ ছাড়া আর কিছু নেই৷

খোদার ঐক্যের মধ্যে প্রতিষ্ঠিত হবার উদ্দেশ্য নিজেদেরকে আধ্যাত্মিকভাবে তুষ্ট করা নয় কিন্তু আমরা যাতে অন্যদের কাছে সাক্ষ্য দিতে পারি যারা খোদা থেকে অনেক দূরে অবস্থান করে৷ এটা আশাপ্রদ যে তারা উপলব্ধি করতে পারবে যে তা পাপের মধ্যে মৃত অবস্থায় পড়ে আছে এবং তারা তারা তাদের কামনা বাসনার দাস এবং তাই তারা অনুতপ্ত হবে এবং নাজাত দাতার দিকে ফিরবে৷ আপনারা যারা পিতা, পুত্র ও পাকরূহের সাথে দৃঢ়ভাবে আছেন তারা নম্র, ভালোবাসা এবং আধ্যাত্মিক স্বাধীনতার শক্তি পাবেন সকল বিশ্বাসীদেরকে ভালোবাসতে এবং তাদের উপস্থিতিতে আনন্দিত হবেন এবং তাদের সাথে ঈসা মসিহের প্রেমের মূল্যবান সাক্ষ্য হবেন৷ মানুষ ঈসা মসিহের খোদাই সত্তার প্রমান আমাদের আছে৷ যদি কেবলমাত্র ঈসা মসিহের সকল অনুসারীরা বিশ্বস্থ হতো তাহরে অন্য কোনো মতাবলম্বি দুনিয়াতে থাকতো না৷ তাদের ভালোবাসা এবং শান্তি সবাইকে কাছে টানতো এবং তাদেরকে রূপান্তরিত করতো৷ আসুন আমরা ঈসা মসিহের আদের্শের দিকে মনোযোগ দেই এবং একত্রিত হই!

যোহন ১৭:২২-২৩
২২. যে মহিমা তুমি আমাকে দিয়াছ তাহা আমি তাহাদের দিয়াছি, যেন আমরা যেমন এক তাহারাও তেমনি এক হইতে পারে, ২৩. অর্থাত্‍ আমি তাহাদের সঙ্গে যুক্ত ও তুমি আমার সঙ্গে যুক্ত, আর এইভাবে যেন তাহারাপূর্ণ হইয়া এক হইতে পারে৷ তাহাতে দুনিয়া জানিতে পারিবে যে, তুমিই আমাকে পাঠাইয়াছ, আর আমাকে যেমন তুমি মহব্বত কর তেমনই তাহাদেরও মহব্বত কর৷

ঈসা মসিহের মহিমা কি? এটা কি তার মহত্বের দ্বীপ্তি বা আলো? না! তার মহিমা তার অবমানিত অবস্থা, ধৈযর্্য এবং নম্রতার পিছনে লুকায়িত আছে৷ পাকরূহের দানের প্রতিটি সত্‍গুন আর মহিমার ঝলক৷ তাই ইউহোন্না দেখেছিল এবং সাক্ষ্য দিয়েছিল, 'আমরা তার মহিমা দেখেছি'৷ তিনি কেবলমাত্র তার রূপান্তর অথবা তার পুনুরত্থানের কথা উল্লেখ করেননি কিন্তু তার যাবপাত্র ও নির্মম সলিবের কথা উল্লেখ করেছেন৷ এর মধ্যেই বেহেস্তি প্রেমের মহিমা স্পষ্ট ভাবে প্রকাশিত হয়েছে যেখানে পুত্র নিজেকে নিঃস্ব করেছে এবং তার মহত্ত্বের বৈশিষ্টকে মানুষের আকৃতিতে তুলে ধরেছেন৷ ঈসা মসিহ এই মহিমা আমাদেরকে প্রদান করেছেন৷ পিতা এবং পুত্রের রূহ আমাদের উপর নেমে এসেছে৷

এই বৈশিষ্টের উদ্দেশ্য আমাদেরকে প্রদর্শিত করতে দেওয়া হয়নি কিন্তু আমরা যাতে করে সেবার জন্য একাত্ত্ব হতে পারি এবং একে অপরকে সেবা এবং সম্মান করতে পারি৷ এই আধ্যাত্মিক তত্ত্ব সমূহের মধ্য দিয়ে ঈসা মসিহ তার পিতাকে একই ঐক্য এবং সহভাগীতা যা পবিত্র ত্রিত্বের বৈশিষ্ট প্রদান করে তাই চেয়েছিলেন, যা আমাদেরকে ঐসব বৈশিষ্টে ভরিয়ে তোলে৷ খোদার ভালোবাসা হলো সাহাবিকে পরীক্ষার মাত্রা৷ এটা তিনি যে আমাদেরকে তার চিরন্তন প্রতিকৃতিতে গঠন করেন৷

সত্য সত্যই খোদা সাহাবিদের মধ্যে পূর্ণভাবে বিরাজ করেন (ইফিষীয় ১:২৩, কলষীয় ২:৯)৷ আপনার কি এই কথা উচ্চারণ করতে সাহসের অভাব আছে যা এই রচনার মধ্যে রয়েছে 'ঈসা মসিহের মধ্যে খোদার মহিমার পূর্ণতা দৈহিকভাবে বিরাজমান এবং আমরা তার মধ্যে পরিপূর্ণ'৷ প্রেরিতদের সাক্ষ্য প্রমান করে যে, মৃতু্যর আগে ঈসা মসিহের প্রার্থনার জবাব দেওয়া হয়েছিল৷ আমরা প্রভূর এবাদত এবং প্রশংসা করি কারণ তিনি আমাদেরকে অপরাধী হিসেবে ঘৃণা করেননি কিন্তু আমাদেরকে পরিস্কৃত এবং পবিত্র করেছেন এবং নিজেকে আমাদের সাথে যুক্ত করেছেন যাতে আমরা তার বেহেস্তী জীবনের মধ্যে থাকতে পারি৷ ঈসা মসিহ আগে থেকেই পূর্ণ আস্থাবান ছিলেন যে আমরা ভালোবাসা ও নম্রতার মধ্যে নিখুঁত হতে পারি৷ আসুন আমরা একে অপরকে ভালোবাসি এবং সম্মান করি৷ সম্পদ, সমর্থতা বা জ্ঞানের নিখুঁত অবস্থা নয় কিন্তু তিনি আমাদের কাছে দয়া এবং প্রেম ও করুনা আশা করেন৷ সমবেদনা এবং সহ্য করার ক্ষমতা তার প্রাথমিক লক্ষ্য ছিল যখন তিনি বলেছিলেন, 'তোমাদের বেহেস্তী পিতার মত তোমরা নিখুঁত হও'৷ এই আজ্ঞা শত্রুকে ভালোবাসার আচরনকে চিহ্নিত করে৷ পাকরূহ অন্তবৃত্তি অথাব বিচ্ছিন্নতার দিকে চালিত করেন না কিন্তু পবিত্র ব্যক্তিদের সহভাগীতার দিকে চালিত করেন৷ ত্রিত্বের ঐক্য হলো আমাদের আদর্শ৷ আমরা যদি এক না হই তাহলে দুনিয়াতে খোদার প্রতিনিধিত্ব করতে পারি না৷ তৌরাতে যেমন খোদার ভাবমুর্ত্তির কথা বলা হয়েছে সাহাবিদের সদস্যদের তার থেকে বেশী পবিত্র ত্রিত্বের ভাবমূর্ত্তি দেখানো উচিত৷

সাহাবিদের মধ্যে ঐক্য দুনিয়াকে প্রভাবিত করে এটা দেখাতে যে আমরা খোদার কাছ থেকে এসেছি৷ তারা দেখতে শুরু করে যে খোদার হলেন প্রেম৷ কেবলমাত্র বাক্য বা বিস্তৃত ব্যাখ্যা তাদের মধ্যে বিশ্বাস সৃষ্টি করে না৷ খোদার সন্তানদের সমাবেশের মধ্যে যে আনন্দ থাকে তা ধর্মপোদেশ থেকে প্রবল এবং অধিকতর ভাল৷ সেইভাবে পাকরূহ জেরুজালেমে প্রাথমিক সাহাবিকে একত্রিত করেছিল খাঁটি আধ্যাত্মিকতায়৷

প্রার্থনা: প্রভূ ঈসা মসিহ, আমরা যারা অযোগ্য তাদেরকে বিশ্বাসে চালিত করার জন্য তোমাকে ধন্যবাদ দেই৷ তোমার ভালোবাসা দিয়ে তুমি আমাদেরকে সেবক বানিয়েছ৷ পবিত্র ত্রিত্বের ভালোবাসার মধ্যে আমাদেরকে গড়ে তোল৷ আমরা তোমাকে ধন্যবাদ দেই এবং তোমার কাছে মিনতি করি যেন তুমি আমাদেরকে বাস্তবিকভাবে সাহাবিদের মধ্যে থাকতে শক্তি যোগাও৷

প্রশ্ন:

১০৮. ঈসা মসিহ তার পিতার কাছে আমাদের সাহায্যের জন্য কি অনুরোধ করেছিলেন?

www.Waters-of-Life.net

Page last modified on July 25, 2012, at 09:29 AM | powered by PmWiki (pmwiki-2.2.109)