Waters of Life

Biblical Studies in Multiple Languages

Search in "Bengali":
Home -- Bengali -- John - 050 (Disparate views on Jesus)
This page in: -- Arabic -- Armenian -- BENGALI -- Burmese -- Cebuano -- Chinese -- English -- Farsi? -- French -- Hausa? -- Hindi -- Indonesian -- Kiswahili -- Kyrgyz -- Malayalam -- Peul -- Portuguese -- Russian -- Serbian -- Spanish? -- Tamil -- Telugu -- Turkish -- Urdu -- Uyghur? -- Uzbek -- Vietnamese -- Yiddish

Previous Lesson -- Next Lesson

যোহন - নূর অন্ধকারের মধ্যে জ্বলছে
যোহন বর্ণীত মসিহের নাজাতের বারতার সুসমাচার ওপর অধ্যয়ন
দ্বিতীয় খণ্ড - নূর অন্ধকারের মধ্যে জ্বলিতেছে (যোহন ৫:১ - ১১:৫৪)
সি - জেরুজালেমে ঈসা মসিহের শেষ যাত্রা (যোহন ৭:১ - ১১:৫৪) -- অন্ধকার ও নূরের পৃথককরণ
১. তাঁবুর মধ্যে উপাসনালয়ের ভোজে ঈসা মসিহের কথা (যোহন ৭:১ - ৮:৫৯)

খ) লোকদের ভিতর এবং উচ্চ পরিষদের মধ্যে ঈসা মসিহের ব্যাপারে ভিন্ন ভিন্ন অভিমতো (যোহন ৭:১৪-৬৩)


যোহন ৭:২১-২৪
২১. ঈসা মসিহ তাহাদের বলিলেন, 'আমি একটা কাজ করিয়াছি বলিয়া আপনারা সকলে আশ্চর্য হইতেছেন৷ ২২. মুসা আপনাদের খত্‍না করাইবার নিয়ম দিয়াছেন, আর সেই খত্‍সা আপনারা বিশ্রামবারেও করাইয়া থাকেন৷ অবশ্য এই নিয়ম মুসার নিকট হইতে আসে নাই, পুর্বপুরুষদের নিকট হইতেই আসিয়াছে৷ ২৩. বেশ ভাল মুসার শরিয়ত না ভাঙিবার জন্য যদি বিশ্রামবারেও ছেলেদের খত্‍না করান যায়, তবে আমি বিশ্রামবারে একটি মানুষকে সম্পূর্ণভাবে সুস্থ করিয়াছি বলিয়া আপনারা আমার ওপর রাগ করিতেছেন কেন? ২৪. বাহিরের চেহারা দেখিয়া বিচার না করিয়া বরং ন্যায়বিচার করুন৷'

ঈসা মসিহ ইহুদিদের এই অভিযোগের বিষয় সরাসরি কোনো উত্তর দেননি যে তার কাছে একটি মন্দ আত্মা আছে; কিন্তু সমবেত লোকেদেরকে দেখিয়েছিলেন যে তার ওপর মৃতু্যদণ্ডাদেশ দেওয়া ছিল একটি গতানুগতিক এবং অন্যায্য বিষয়৷ তিনি তাদেরকে স্মরণ করিয়ে দিয়েছিলেন যে তার বিরুদ্ধে নেতাদের বিচারের কারণ ছিল যে তিনি বৈথেসদাতে বিশ্রামবারে একটি পঙ্গু লোককে সুস্থ করেছিলেন৷ সেইদিন ঈসা মসিহ তাকে আদেশ করেছিলেন তার বিছানাপত্র নিয়ে বাড়ি চলে যেতে৷ এটা একটি বিশাল বিস্ময়কর ঘটনা ছিল এবং ওই মোজেজা তার বিরুদ্ধে অভিযোগকে খারিজ করার জন্য উপযুক্ত ছিল৷

তখন ঈসা মসিহ দৃঢ়তার সাথে বললেন আইন বিশেষজ্ঞরা নিজেরাই আইনকে যথাযথভাবে মেনে চলেনি৷ এই আইন পরস্পরবিরোধী ছিল: খত্‍সাকরণ খোদার সাথে চুক্তির একটি নিদর্শন, অথচ বিশ্রামবারে পবিত্রজনের সাথে সহভাগিতার বিষয়ে নিবৃত্ত থাকার কথা বলে৷ লোকদেরকে তাদের সন্তান জন্ম নেবার আট দিন পর খত্‍সা করতে হতো, কিন্তু ওই দিন বিশ্রামবারও হতে পারতো খত্‍নাকরণ কি একটি কাজ নয়?

যেহেতু অসুস্থতাকে পাপের ফলস্বরূপ বিবেচনা করা হয়, সেহেতু আরোগ্য দানকে দেহ, আত্মা এবং রুহের মুক্তিকে বুঝায়৷ তাই ঈসা মসিহ লোকদের কাছে তাদের বিবেককে ব্যবহার করতে আবেদন করলো দুটির মধ্যে পার্থক্য বের করতে৷ বিশ্রামবারে খত্‍নাকরণ এবং একটি করুণাপূর্ণ সেবার মধ্যে, কোনোটা বেশি অত্যাবশ্যক? তিনি এইভাবে যুক্তিকে ব্যবহার করলেন একটি উপায় হিসেবে যা তার ভালোবাসা, ক্ষমতোা এবং মুক্তির মাত্রাকে বোঝাতে পারে৷ এই প্রচেষ্টা ব্যর্থ হলো তাদের কান ছিল বধির এবং রুহ ছিল কটিন একটি সঠিক সিদ্ধান্ত এবং ভাল বিচার করবার জন্য তাদের পক্ষে অসম্ভব ছিল৷

যোহন ৭:২৫-২৭
২৫. তখন জেরুজালেমের কয়েকজন লোক বলিল, 'যাহাকে নেতারা ২৬. মারিয়া ফেলিতে চান, একি সেই লোক নয়? কিন্তু সে ত খোলাখুলিভাবে কথা বলিতেছে অথচ নেতারা কেহ তাহাকে কিছুই বলিতেছেন না৷ তাহা হইলে সত্যই কি তাঁহারা জানিতে পারিয়াছেন যে, এই লোকটিই ঈসা মসিহ? তবে আমরা তো জানি, এ কোথা হইতে আসিয়াছে৷ ২৭. কিন্তু ঈসা মসিহ যখন আসিবেন, তখন কেহ জানিবে না, তিনি কোথা হইতে আসিয়াছেন৷'

জেরুজালেমের লোকেরা এবাদতখানায় পেঁৗছাল এবং বিশাল ভিড় দেখতে পেল৷ যখন তারা লক্ষ্য করলো ঈসা মসিহ তাদের মধ্যে মনোযোগের কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হয়েছে তারা ক্রোধোন্মত্ত হয়েছিল, যেহেতু তখনো সে অবাধে চলাফেরা করছিল, তার গ্রেফতারের আদেশ সত্ত্বেও এই খবরটি সবাই জানতো৷

রাজধানীর নাগরিকেরা পরিষদকে উপহাস করছিল কারণ এই ব্যাপারটিকে তারা দুর্বলভাবে চালনা করছিল৷ রোমীয়রা ইহুদি শাসকদের কাছ থেকে কাউকে মৃতু্যদণ্ড দেওয়ার অধিকারকে তুলে নিয়েছিল৷ লোকেরা অবজ্ঞাভরে বলছিল যে 'এই অনুসন্ধিত্‍সু ব্যক্তিটি শহরের মধ্যে অবাধে ঘোরাফেরা করছে এবং এবাদতখানা প্রাঙ্গনে অভয়ে ধর্মপ্রচার করছে৷ তার ওপর নিষেধাজ্ঞা দিতে শীর্ষকদের কোনো ক্ষমতোা নেই৷ যুক্তি বা তর্ক দিয়ে তাকে সরিয়ে দিতে ঈমামেরা অসমর্থ ছিল৷'

অন্যেরা বলতে শুরু করলো 'আপনারা বুঝতে পারছেন না শীর্ষনেতাদের কেউ কেউ তাকে নাজাতদাতা হিসেবে বিশ্বাস করে'৷ ঈসা মসিহকে গ্রেফতার করতে তাদের অনিচ্ছার এটাই তাদের ব্যাখ্যার বিষয়বস্তু ছিল৷ জনগণের অভিমতো সকল দলের মধ্যে বিভক্ত ছিল৷

তৃতীয় অভিমতো হলো : যদি নাজাতদাতার আগমনকে মেনে নেওয়া হয় তাহলে তিনি গৌরবের সাথে রহস্যময়ভাবে রশ্মি বিকীর্ণ করবেন এবং সাধারণ মানুষের মতো আসবেন না৷ এই ব্যক্তিটি একজন কাঠমিস্ত্রি, যিনি পার্বত্য অঞ্চলের গ্রাম থেকে এসেছেন৷ সত্যিকার নাজাতদাতা সরাসরি বেহেশত থেকে নেমে আসবেন এবং সাধারণ মানুষের মাঝে ঘোরাফেরা করবেন না৷

যোহন ৭:২৮-৩০
২৮. তারপর ঈসা মসিহ এবাদতখানায় শিক্ষা দিবার সময়ে জোরে জোরেই বলিলেন, 'আপনারা আমাকেও জানেন, আর আমি কোথা হইতে আসিয়াছি তাহাও জানেন৷ আমি নিজ হইতে আসি নাই, কিন্তু যিনি আমাকে পাঠাইয়াছেন তিনি সত্য৷ ২৯. তাঁহাকে আপনারা জানেন না কিন্তু আমি জানি, কারণ আমি তাঁহারই নিকট হইতে আসিয়াছি, আর তিনিই আমাকে পাঠাইয়াছেন৷' ৩০. ইহাতে সেই লোকেরা ঈসা মসিহকে ধরিতে চাহিল, কিন্তু তখনও তাহার সময় হয় নাই বলিয়া কেহ তাঁহার গায়ে হাত দিলো না৷

ঈসা মসিহ এই যুক্তিগুলো পার্থিবভাবে শুনলেন৷ তিনি ডেকে বললেন, 'তোমরা কি বাস্তবিকই আমাকে চেন? অথবা আমি কোথা থেকে এসেছি? তোমরা তোমাদের বিচারে অগভীর বা ভাসাভাসা এবং আমাকে সক্রীয়ভাবে জানতে চেষ্টা করোনা৷ আমার কথা কোনো, আমার আত্মার গভীরে ঢোকো৷ তখন তোমরা জানবে আমি কে এবং কোথা থেকে এসেছি'৷

ঈসা মসিহ নিজের থেকে আসেননি, কিন্তু খোদার পিছনে ছিলেন, যার মধ্যে থেকে তিনি বেরিয়ে এসেছেন; তার পিতাই সেইজন, যিনি তাকে পাঠিয়েছেন৷ ঈসা মসিহ তার পিতার স্বভাবগত ছিলেন এবং চিরকাল তার সাথে একাত্ব ছিলেন৷ তিনি আরও বললেন, 'তোমাদের কেউ খোদাকে চেনো না, যদিও তোমরা চিন্তা কর, তিনি এখানে এই এবাদতখানার মধ্যে আছেন৷ তোমাদের ঈমামেরা অন্ধ; তারা খোদাকে দেখে না, অথবা তারা সত্য সত্যই তার কন্ঠস্বর শোনে না৷ তাই তোমরা নিজেদেরকেই ঠকাচ্ছ'৷

তারপর তিনি বললেন, 'আমি তাকে চিনি'৷ সুসমাচারের অপরিহার্য বৈশিষ্ট হলো, ঈসা মসিহ খোদাকে জানে এবং আমাদের কাছে পিতার নাম এবং তার ভালোবাসাকে প্রকাশ করেন৷ নাসরতীয় ছিলেন নিস্পাপ যিনি অবিরত তার পিতার সহভাগীতার মধ্যে বাস করেন৷ অথচ আর সবাই নিজেদেরকে নিজ নিজ পাপের কারণে সেই পবিত্রজনের কাছ থেকে পৃথক হয়ে আছে৷

যখন তার কথার গুরুত্ব উপলব্ধি করলো যে, ঈসা মসিহ তাদেরকে চূড়ান্তভাবে বিচার করেছে, তারা চিত্‍কার করে বললো, 'এবাদতখানার বিরুদ্ধে তিনি খোদার নিন্দা করেছেন এবং আমাদেরকে তিনি নাস্তিবানিয়েছেন৷' তারা ক্রোধোন্মত্ত হলো এবং চিত্‍কারের সাথে তাকে আটকাবার চেষ্টা করলো৷ কিন্তু তাদের একজনও খোদার পুত্রের কাছে আসতে সমর্থ হলো না, যেন ফেরেস্তারা তাকে চারিদিক থেকে ঘেরে রেখেছিল৷ পৃথিবীতে তার চুড়ান্ত সাক্ষ্যের নির্ধারিত সময় তখনো আসেনি৷ তার পিতা চূড়ান্ত মুহূর্তকে ধার্য করে রেখেছিলেন যার মধ্য দিয়ে ঈসা মসিহ মানব জাতিকে উদ্ধার করবেন৷ পৃথিবীতে কোনো মানুষই সেই মুহূর্তটিকে পিছিয়ে নিতে বা সামনে আনতে পারে না৷

প্রার্থনা: প্রভু ঈসা মসিহ, আমরা তোমার এবাদত করি, কারন তুমি খোদাকে জান এবং আমাদের কাছে পিতাকে প্রকাশ করেছ৷ আমরা আনন্দের সাথে তোমাকে সেবা করি এবং ভালোবাসি৷ তোমার প্রকাশিত কালাম আমাদেরকে খোদার সন্তান বানিয়েছে৷ আমরা তোমার মধ্যে উল্লাসিত হই এবং তোমার নামকে তাদের সাথে বির্বধিত করি যারা পুনুরজন্ম প্রাপ্ত৷ আমরা তোমার কাছে মিনতি করি যেন আমাদের চারিপাশে ধার্মিকদের কাছে তুমি পিতাকে প্রকাশ কর, যাতে করে তারা তাদের গোড়ামী এবং অবহেলা থেকে ফিরে আসে৷

প্রশ্ন:

৫৪. কেন ঈসা মসিহ একমাত্র ব্যক্তি যিনি খোদাকে সত্য সত্যই জানেন?

www.Waters-of-Life.net

Page last modified on June 13, 2012, at 11:28 AM | powered by PmWiki (pmwiki-2.2.109)