Waters of Life

Biblical Studies in Multiple Languages

Search in "Bengali":
Home -- Bengali -- John - 126 (Miraculous catch of fishes)
This page in: -- Arabic -- Armenian -- BENGALI -- Burmese -- Cebuano -- Chinese -- English -- Farsi? -- French -- Georgian -- Hausa -- Hindi -- Igbo -- Indonesian -- Javanese -- Kiswahili -- Kyrgyz -- Malayalam -- Peul -- Portuguese -- Russian -- Serbian -- Somali -- Spanish? -- Tamil -- Telugu -- Thai -- Turkish -- Urdu -- Uyghur? -- Uzbek -- Vietnamese -- Yiddish -- Yoruba

Previous Lesson -- Next Lesson

যোহন - নূর অন্ধকারের মধ্যে জ্বলছে
যোহন বর্ণীত মসিহের নাজাতের বারতার সুসমাচার ওপর অধ্যয়ন
চতুর্থ খন্ড - নূর অন্ধকারকে জয় করে (যোহন ১৮:১ - ২১:২৫)
বি - ঈসা মসিহের পুনরম্নত্থান ও উপস্থিতি (যোহন ২০:১ - ২১:২৫)
৫. টিবেরিয়া সাগরের পারে মসিহ সাহাবিদের সাথে দেখা দেন৷ (যোহন ২১:১-২৫)

ক) কুদরতীভাবে মাছ ধরা (যোহন ২১:১-১৪)


যোহন ২১:১-৩
এর পরে টিবেরিয়াস সাগরের পারে সাহাবিদের কাছে আবার ঈসা মসিহ দেখা দিলেন৷ ঘটনাটা এভাবে ঘটেছিল: শিমোন-পিতর, থোমা (যাঁকে যমজ বলে) গালীল প্রদেশের কান্না গ্রামের নথনেল, সিবদিয়ের ছেলেরা এবং ঈসা মসিহের অন্য দু'জন সাহাবি একসঙ্গে ছিলেন৷ শিমোন-পিতর তাঁদের বললেন, 'আমি মাছ ধরতে যাচ্ছি৷' তাঁরা বললেন, 'আমরাও তোমার সঙ্গে যাব৷' তখন তাঁরা বের হয়ে নৌকায় উঠলেন, কিন্তু সেই রাতে কিছুই ধরতে পারলেন না৷

পুনরম্নত্থানের পরে মসিহ সাহাবিদের সাথে যোগ দিয়ে তাদের নিজ জেলা গালীলে টিবেরিয়া সাগরের কাছে উপস্থিত হলেন৷ ভাল রাখালের মতো তিনি তাদের পশ্চাতে পশ্চাতে তথায় হাজির হলেন৷ সাহাবিদের প্রতি তাঁর মহব্বতের অর্থ হলো তাদের ভয় ও সন্দেহ দূর করে দেয়া, যেমন জেরম্নজালেমে ভীত সন্ত্রস্থ সাহাবিদের প্রবল শক্তি ও সাহস যুগিয়েছিলেন৷ রোব বার বিকেলে নিসত্মার পর্বের পরে তিনি সাহাবিদের সালাম জানিয়ে খোদার শানত্মি বর্ষন করলেন৷ তাদের পাঠালেন গোটা বিশ্বে নাজাতের বার্তা পৌছে দেবার জন্য (মার্ক ১৬ : ৭; মথি ২৮ : ১০)

তাই, তার আজ্ঞা মোতাবেক, সাহাবিগণ কি মানুষ ধরতে বেরিয়েছিলেন? পুনরম্নত্থানের ঘটনা কি তাদের চিনত্মাজগতে আমূল পরিবর্তন বয়ে আনতে পেরেছিল? তারা কালবিলম্ব না করে দ্রম্নত গোটা বিশ্বে ছড়িয়ে দিলেন সুসমাচার বার্তা যা হলো মসিহের মধ্যেই রয়েছে অননত্ম জীবন৷

দুঃখের বিষয় হলো, তারা তাদের পুরনো পেশায় ফিরে গেলেন৷ অধিকন্তু দলে দলে বিভক্ত হয়ে পড়লেন৷ কেউ একা পড়ে রইলেন, আবার অন্যেরা অন্যান্য জেলেদের সাথে যুক্ত হলেন৷

কোনো এক বিকেলে মাছ ধরার জন্য পিতর যাত্রা করলেন, বন্ধুদের বললেন, 'আমি মাছ ধরতে যাচ্ছি৷ তিনি ভাবছিলেন তাদের সাথে নিবেন কিনা! সাগরের সৈকত পর্যনত্ম তারা তাঁর সংগ দিলেন৷ একটি নৌকায় চরে দাঁড় টেনে হ্রদের মাঝে আসলেন৷ বহুবার তারা তাদের জাল ফেললো, 'সারা রাত বাইল জাল তবু একটিও না পাইল রে' তারা ক্লানত্ম হয়ে পড়লো৷ মসিহ যা কিছু তাদের বলেছিলেন তা তারা ভুলে গিয়েছিল, 'আমাকে ছাড়া তোমরা কিছুই করতে পারবে না'৷

যোহন ২১:৪-৬
সকাল হয়ে আসছে এমন সময় ঈসা মসিহ সাগরের পারে এসে দাঁড়ালেন৷ সাহাবিরা কিন্তু চিনতে পালেন না যে, তিনি মসিহ৷ তিনি সাহাবিদের বললেন, 'সনত্মানেরা, কিছুই কি পাও নি?' তারা বললেন, 'জ্বী না, পাই নি৷' ঈসা মসিহ তাঁদের বললেন, 'নৌকার ডানদিকে জাল ফেল, পাবে৷' তখন তারা জাল ফেললেন, আর এত বেশি মাছ উঠল যে, তাঁরা তা টেনে তুলতে পারলেন না৷

অবাধ্যতা ও ভুল পথে চলা সত্ত্বেও মসিহ তাঁর সাহাবিদের পরিত্যাগ করেন নি৷ মাছ ধরে ফিরে আসা অবধি তিনি সৈকতে অপেৰা করলেন৷ চাইলে তিনি তাদের জালে কিছু মাছ পাঠাতে পারতেন, কিন্তু তিনি তাদের শিৰা দিতে চেয়েছেন, কেবল আবেগের বসবর্তী হয়ে কাজ করলে বিজয় আসে না, তাঁর পুনরম্নত্থানের পরবতর্ী কাজ কর্ম হতে হবে তার হাতে পরিচালিত হয়ে৷ তাঁর চুক্তিতে যুক্ত থেকেই তাদের কাজকর্ম করতে হবে, তিনি তাদের অংশীদার, আসলে নিত্যদিনের প্রয়োজন পুরণ করতে গিয়ে তাঁর কথা তারা ভুলেই গিয়েছিল, সমস্যা সমাধান করার জন্য ভাবখানা ছিল মসিহের থেকে রয়েছে তারা বহুদূরে৷

তিনি তাঁর সাহাবিদের সাহাবি হিসেবে সম্বোধন করেন নি বরং সনত্মানের সম্বোধনে ডেকেছেন৷ তিনি তাদের যা কিছু বলেছেন বা শিৰা দিয়েছেন তার অধিকাংশই তারা ভুলে গেছেন, এবং জীবনে প্রয়োগ করতে ব্যর্থ হয়েছেন৷ এ ধরনের দুঃখজনক আচরণ সত্ত্বেও মসিহ নিজেকে সামলে নিয়েছেন কটুক্তি করা থেকে বরং তাদের কাছে কিছু খাবার চেয়েছেন৷ তারা স্বীকার করলেন তাদের ব্যর্থতা কিছুই পায় নি কেননা তাদের সাথে খোদা ছিলেন না৷ সংৰেপে তারা দোষ স্বীকার করলেন৷

অতি প্রতু্যষে মসিহ তাদের কাছে হাজির হলেন, যেন তাদের জীবনে নতুন আশারদীপ উদয় হলো৷ তিনি তাদের এমন কথা বলেন নি, 'ব্যর্থ হয়েছো বলে দুঃখ করো না' অথবা 'পুনরায় চেষ্টা করো, সফল হবে' কিন্তু তিনি আজ্ঞা দান করলেন, 'নৌকার ডান পাশ্বর্ে গভীর জলে জাল ফেলো, তোমরা পাইবে৷' যদিও তারা হ্রদের গভীরে ছিলেন না, কিনারেই ছিলেন, যেখানে বড় মাছ খুব একটা পাওয়া যায় না, তাতে কি এসে যায়, তারা প্রভুর আজ্ঞা পালন করলেন, নৌকার ডান দিকে জাল ফেললেন৷

জলের মধ্যে তিনি মাছ দেখতে পেলেন, বর্তমানে তিনি দেখতে পান, কারা তাকে খুঁজে ফিরছেন, তাঁকে পাবার জন্য ব্যকুল হয়ে আছেন৷ সাহাবিদের মতো আপনাকেও তিনি চান বরণ করতে৷ তিনি বলেন না, তোমার জালে সবাইকে তুলে আনো কিন্তু সহজ সরল ভাবে বলেন, 'আমি যে স্থানে তোমার সুসমাচারের জাল ফেলতে বলি সেখানে ফেলো, তখন তুমি দেখতে পাবে আমার কালামের কার্যকারীতা৷

সাহাবিগণ এমন অদ্ভুত আজ্ঞা মান্য করলেন, তবুও পুরোপুরিভাবে তারা মসিহকে চিনতে পারলেন না, কেননা তাকে এক সাধারণ ব্যক্তি বলে মনে হচ্ছিল৷ হয়তো তারা তাকে সাধারণ লোকদের মতো সম্বোধন করলেন, কিন্তু স্বর শুনে তার ওপর আস্থা প্রতিষ্ঠিত হলো৷ তাই তারা সাহস পেলেন পুনরায় জাল ফেলার জন্য৷ তারা তখন ক্লানত্ম অবসন্ন৷ কিন্তু প্রচুর পরিমানে মাছ ধরা পড়লো৷ এৰেত্রে রম্নহানি শিৰা হলো প্রভু যেস্থানে সুসমাচার নিয়ে যেতে বলেন সেখানে গেলে প্রচুর মাছ ধরা পড়ে, আর তাতে তাদের জাল নৌকা ভরে যায়৷ এতটাই অধিক পাওয়া যায় যা একার বা একটা নৌকায় সামলানো সম্ভবপর থাকে না৷ তখন তাদের প্রয়োজন হয়ে পড়ে সরল মনের সহকর্মীবৃন্দের যারা একই কাজে সাহায্য সহযোগীতা করে৷

প্রার্থনা: প্রভু আমার, তোমার জন্য অন্যকে জয় করার চেয়ে নিজেদের রম্নটি রম্নজির চিনত্মায় অধিক ব্যসত্মতার জন্য আমাদের ৰমা করো৷ তোমাকে ধন্যবাদ দেই, তুমি আমাদের কাছে এসেছো বলে৷ আমরা বিগড়ে যাওয়া সত্ত্বেও তুমি আমাদের ভালোবেসেছো৷ আমাদের ব্যর্থতা স্বীকার করার তৌফিক দান করো৷ তোমার কালাম অনুযায়ী চলার জন্য শিৰা দাও এবং যারা তোমার অন্বেষণ করে ফিরছে তাদের কাছে আমাদের নিয়ে চলো৷ তাদের পরিচালনা করো তোমার সুসমাচারের জালে জড়িয়ে রাখতে৷ ফলে তারা চিরদিনের জন্য তোমার পৰেই থাকবে৷

প্রশ্ন:

১৩০. জালে প্রচুর মাছ ধরার কারণে তারা কেন লজ্জা পেল?

www.Waters-of-Life.net

Page last modified on July 30, 2013, at 11:16 AM | powered by PmWiki (pmwiki-2.2.140)