Waters of Life

Biblical Studies in Multiple Languages

Search in "Bengali":
Home -- Bengali -- John - 064 (The Jews interrogate the healed man)
This page in: -- Arabic -- Armenian -- BENGALI -- Cebuano -- Chinese -- English -- Farsi? -- French -- Hausa? -- Hindi -- Indonesian -- Kiswahili -- Kyrgyz -- Malayalam -- Peul -- Portuguese -- Russian -- Serbian -- Spanish? -- Tamil -- Telugu -- Turkish -- Urdu -- Uyghur? -- Uzbek -- Vietnamese -- Yiddish

Previous Lesson -- Next Lesson

যোহন - নূর অন্ধকারের মধ্যে জ্বলছে
যোহন বর্ণীত মসিহের নাজাতের বারতার সুসমাচার ওপর অধ্যয়ন
দ্বিতীয় খণ্ড - নূর অন্ধকারের মধ্যে জ্বলিতেছে (যোহন ৫:১ - ১১:৫৪)
সি - জেরুজালেমে ঈসা মসিহের শেষ যাত্রা (যোহন ৭:১ - ১১:৫৪) -- অন্ধকার ও নূরের পৃথককরণ
২. অন্ধ লোকটির চোখ ভালো করা (যোহন ৯:১-৪১)

খ) আরোগ্যপ্রাপ্ত লোকটিকে ইহুদিদের জেরা (যোহন ৯:১৩-৩৪)


যোহন ৯:২৪-২৫
২৪. যে লোকটি আগে অন্ধ ছিল নেতারা তাহাকে দ্বিতীয় বার ডাকিয়া বলিলেন, 'তুমি সত্য কথা বলিয়া খোদার গৌরব কর৷ আমরা ত জানি, ওই লোকটা পাপী৷' ২৫. সে উত্তর দিল, 'তিনি পাপী কিনা, তাহা আমি জানি না; তবে একটা বিষয় জানি যে, আগে আমি অন্ধ ছিলাম আর এখন দেখিতে পাইতেছি৷'

ফরিশিরা কঠোরভাবে চেষ্টা করছিল ঈসা মসিহের মধ্যে একটি দুর্বল বিষয় খুঁজে বের করতে তাকে দণ্ডাদেশ দেওয়ার জন্য৷ তারা আবার আরোগ্যপ্রাপ্ত লোকটিকে তাদের সামনে নিয়ে আসলো এবং তাকে দিয়ে হলফ করালো ঈসা মসিহের বিরুদ্ধে কিছু বলতে এবং কোন অপরাধের জন্য অভিযোগ আনতে৷ আইন বিশারদ হিসেবে তারা দাবি করলো যে তারা ঈসা মসিহকে একজন পাপী হিসেবে জানতো; তাদের যা প্রয়োজন ছিল তা হলো অকাট্য প্রমাণ৷ তারা তার ওপর চাপ দিতে লাগলো এ ব্যাপারে সম্মতদ হতে এবং ঈসা মসিহের ব্যাপারে অভিযোগ আনতে এবং তাকে দিয়ে স্বীকার করাতে চাইছল যে এই আরোগ্যদান নাসরীয়র মহিমার কারণে হয়নি৷ কিন্তু সে বুদ্ধিমানের মতো উত্তর দিল, 'আমি জানি না সে পাপী কিনা, একমাত্র খোদাই জানে৷ আমি একটা জিনিষ জানি এক সময় আমি অন্ধ ছিলা কিন্তু এখন আমি দেখি'৷ এই সত্যটিকে অস্বীকার করা যায় না৷ এটাকে একটি মোজেজা বোঝায়, একটি বেহেশতি শক্তি এবং ক্ষমার রহমতো৷ এই যুবক ব্যক্তির এই সাক্ষ্যটি যা হাজারো বিশ্বাসীরা নিশ্চিত করবে৷ তারা হয়তো বেহেশত এবং দোজখের রহস্য জানে না, কিন্তু তারা নব জন্ম লাভ করেছে৷ তাদের প্রত্যেকেই দাবি করতে পারে, 'আমি অন্ধ ছিলাম কিন্তু এখন আমি দেখি৷'

যোহন ৯:২৬-২৭
২৬. নেতারা বলিলেন, 'সে তোমাকে কি করিয়াছে? কেমন করিয়া সে তোমার চোখ খুলিয়া দিয়াছে?' ২৭. উত্তরে লোকটি তাঁহাদের বলিল, 'আমি ত আগেই আপনাদের বলিয়াছি, কিন্তু আপনারা শুনেন নাই৷ কেন তবে আপনারা আবার শুনতে চান? আপনারাও কি তাহার উম্মত হইতে চান?'

এই যুবক ব্যক্তিটির উত্তরে সন্তুষ্ট না হয়ে ফরিশিরা তার বিবরণের মধ্যে পরস্পরবিরোধী উক্ত খুঁজতে লাগলো এবং তাকে এই ঘটনাটির পুনরাবৃত্তি করতে বললো৷ সে রাগান্বিত হলো এবং বললো, 'আপনারা কি প্রথম বার কিছু বোঝেননি? ঘটনাটি আরও একবার শুনে আপনারা কি তার সাহাবি হবে চান?'

যোহন ৯:২৮-৩৪
২৮. ইহাতে নেতারা লোকটিকে খুব গালাগালি দিয়া বলিরেন, 'তুই সেই লোকের উম্মত, কিন্তু আমরা মুসার উম্মত৷ ২৯. আমরা জানি, খোদা মুসার সংগে কথা বলিয়াছিলেন, কিন্তু ওই লোকটি কোথা হইতে আসিয়াছে তাহা আমরা জানি না৷' ৩০. তখন সেই লোকটি তাহাদের উত্তর দিল, 'কি আশ্চর্য আপনারা জানেন না, তিনি কোথা হইতে আসিয়াছে অথচ তিনিই আমার চোখ খুলিয়া দিয়াছেন৷ ৩১. আমরা জানি, খোদা পাপীদের কথা শুনেন না৷ কিন্তু যদি কোন লোক খোদা ভক্ত হয় ও তাহার ইচ্ছামতো কাজ করে, তবে খোদা তাহার কথা শুনেন৷ ৩২. দুনিয়া সৃষ্টির পর হইতে কখনো শুনা যায় নাই, জন্ম হইতে অন্ধ এমন কোন লোকের চোখ কেহ খুলিয়া দিয়াছে৷ ৩৩. যদি উনি খোদার নিকট হইতে না আসিতেন, বে কিছুই করিতে পারিতেন না৷' ৩৪. উত্তরে নেতারা বলিলেন, 'তোর জন্ম হইয়াছে একেবারে পাপের মধ্যে, আর তুই আমাদের শিক্ষা দিতেছিস?' ইহা বলিয়া তাহারা তাকে মজলিসখানা হইতে বাহির করিয়া দিলেন৷

যুবক লোকটি ইহুদিদের ধর্মগুরু এবং পণ্ডিতদেরকে বিদ্রুপ করার পর, তারা চিত্‍কার করে তাকে গালাগালি দিল এবং বললো, 'আমরা না, কিন্তু তুমি হচ্ছ এই প্রচঞ্চকের সাহাবি৷ আমরা মুসাকে অনুস্বরণ করি যিনি খোদার সাথে কথা বলেছিলেন৷' ঈসা মসিহ তাদেরকে আগেই বলেছিলেন যে যদি তারা মুসাকে সঠিকভাবে বুঝতো তাহলে তারা তার বাক্যগুলো শুনতো এবং সে গুলোকে বিকৃত করেছে এবং সেগুলো নিজেদের ন্যায্যতা প্রতিপাদন করার জন্য ব্যবহার করেছে, তাই তারা তাকে বুঝতে পারেনি এবং তারা সেই রুহকে চিনতে পারেনি যার মাধ্যমে তিনি কথা বলেছিলেন৷

এতে করে আরোগ্যপ্রাপ্ত ব্যক্তিটি উত্তরে বললো, 'যে কেউ একজন জন্মান্ধের চোখ খুলে দিতে পারে তার সৃজনী শক্তি আছে৷ তিনি ক্ষমতাশালী এবং সমর্থ তার নম্রতার মধ্যে তিনি আমাকে দোষারোপ করেননি; তিনি আমার কাছে কোন টাকা পয়সা চাননি কিন্তু আমাকে বিনামূল্যে প্রেমময় সেবা প্রদান করেছেন৷ এমনকি তিনি আমার কাছ থেকে ধন্যবাদ পাবার জন্য অপেক্ষা করেননি৷ আমি তার মধ্যে কোন অভাব অথবা ত্রুটি দেখি নাই৷'

যুবক ব্যক্তিটি তখন স্বীকার করলো, 'তৌরাতের প্রত্যেক লোকেরাই জানে যে খোদা কোন দাম্ভিক ব্যক্তির প্রার্থনার উত্তর দেন না৷ মানুষের মধ্যে পাপ খোদার কারছ থেকে আশির্বাদের ধারাকে বাঁধা দেয়৷ কিন্তু যে কেউ পবিত্রজনের সামনে ভগ্ন হৃদয়ে দাড়ায় এবং পাপ স্বীকার করে ও ধন্যবাদ জ্ঞাপনের মধ্য দিয়ে বিশ্বাস এবং ভালোবাসা খোঁজে খোদা তার সাথে ব্যক্তিগতভাবে কথা বলেন৷'

'আপনাদের কেউ আমার চোখ খুলে দিতে পারে নি, কোন মানুষ এটা পারে না কারণ ঈসা মসিহ ব্যতিত সবাই পাপ করেছে৷ তিনি আমাকে সুস্থ করতে সমর্থ ছিলেন, এটা প্রমাণ করে তিনি পাপমুক্ত৷ খোদা তার মধ্যে বাস করেন৷ 'জিজ্ঞাসাবাদের সময় ঈসা মসিহ সম্পর্কে চিন্তা করতে সে বাধ্য হয়েছিল এবং ঈসা মসিহকে তার দোষ শুন্যতা ও বেহেশতি বৈশিষ্টের মধ্য দিয়ে চিনেছিল৷

এতে করে আত্মন্যায়পরায়ন ধার্মিক লোকেরা তাকে অভিশাপ দিয়ে বলেছিল, 'তোমার থেকে এতেঠবেশী কলুষিত কেউ নেই, তোমার পিতা-মাতারও সেইরকম৷ তোমার নৈতিক বিচু্যতি তোমার অন্ধত্বের মধ্য থেকেই বেরিয়ে এসেছে৷' এই ধার্মিক লোকেরা উপলব্ধি করতে পারেনি যে এই দূর্ভাগা লোকটি থেকে তারা বেশি অন্ধ ছিল৷ ঈসা মসিহ তাকে তার নিজের পক্ষ থেকে প্রেরিত হিসেবে তাদের জন্য ব্যবহার করছিল, তাদেরকে এটা দেখাবার জন্য যে সে তাদের সাথে কি করতে পারে৷ কিন্তু তারা এই আরোগ্যপ্রাপ্ত বার্তাবাহকের মাধ্যমে ঈসা মসিহের শিক্ষাকে গ্রহণ করতে প্রত্যাখ্যান করলো৷ তাই তারা জোর করে তাকে ইহুদিদের এবাদত খানা থেকে বের করে দিল৷ প্রথমে এই বহিষ্কার পরিষদখানার মধ্যে ঘটেছিল তারপর প্রকাশ্যে, যখন তারা তাকে ঈসা মসিহের দাস হিসেবে আখ্যায়িত করলো৷ সেই দিন সে একজন আরোগ্যপ্রাপ্ত ব্যক্তি ছিল অথচ তার জাতির দ্বারা বহিস্কৃত হলো, যা প্রমাণ করে যে তাদের রূহ ঈসা মসিহের রুহকে সহ্য করতে পারতো না৷

প্রশ্ন:

৬৮. যুবক ব্যক্তিটি ক্রমশ তাকে জিজ্ঞাসাবাদের মধ্যে কি উপলব্ধি করলো?

www.Waters-of-Life.net

Page last modified on June 14, 2012, at 10:22 AM | powered by PmWiki (pmwiki-2.2.109)