Waters of Life

Biblical Studies in Multiple Languages

Search in "Bengali":
Home -- Bengali -- John - 020 (Jesus' first miracle)
This page in: -- Arabic -- Armenian -- BENGALI -- Burmese -- Cebuano -- Chinese -- English -- Farsi? -- French -- Hausa? -- Hindi -- Indonesian -- Kiswahili -- Kyrgyz -- Malayalam -- Peul -- Portuguese -- Russian -- Serbian -- Spanish? -- Tamil -- Telugu -- Turkish -- Urdu -- Uyghur? -- Uzbek -- Vietnamese -- Yiddish

Previous Lesson -- Next Lesson

যোহন - নূর অন্ধকারের মধ্যে জ্বলছে
যোহন বর্ণীত মসিহের নাজাতের বারতার সুসমাচার ওপর অধ্যয়ন
প্রথম অংশ - বেহেশতি নূর ঝলমল করছে (যোহন ১:১ - ৪:৫৪)
বি - ঈসা মসিহ তার সাহাবিদেরকে অনুতাপের গোলক থেকে মিলনের আনন্দের দিকে পরিচালনা করেন (যোহন ১:১৯ - ২:১২)

৪. কান্নানগরে বিবাহভোজে ঈসা মসিহের প্রথম মাজেজা (যোহন ২:১-১২)


যোহন ২:১-১০
১. ইহার দুইদিন পরে গালিলের কান্না গ্রামে একটা বিবাহ হইয়াছিল৷ ঈসা মসিহের মা সেখানে উপস্থিত ছিলেন৷ ২. সেই বিবাহে ঈসা মসিহ এবং তাহার সাহাবিরাও দাওয়াত পাইয়াছিলেন৷ ৩. পরে যখন সমস্ত আঙুর রস ফুরাইয়া গেল, তখন ঈসা মসিহের মা ঈসা মসিহকে বলিলেন, 'ইহাদের আংগুর রস ফুরাইয়া গিয়াছে৷, ৪. ঈসা মসিহ তাহার মাকে বলিলেন, 'এই ব্যাপারে তোমার সঙ্গে আমার কি সম্বন্ধ? আমার সময় এখনো হয় নাই৷' ৫. তাহার মা তখন চাকরদের বলিলেন, 'ইনি তোমাদের যাহা করিতে বলেন তাহাই করিও৷' ৬. ইহুদি ধর্মের নিয়ম মত পাক-সাফ হইবার জন্য সেই জায়গায় পাথরের ছয়টা জালা বসান ছিল৷ সেই গুলির প্রত্যেকটিতে দুই-তিন মন করিয়া পানি ধরিত৷ ৭. ঈসা মসিহ সেই চাকরদের বলিলেন, 'এই জালাগুলিতে পানি ভরিয়া দাও'৷ চাকরেরা তখন জালাগুলির কানায় কানায় পানি ভরিয়া দিল৷ ৮. তারপর ঈসা মসিহ তাহাদের বলিলেন, 'এইবার ইহা হইতে অল্প তুলিয়া ভোজের কর্তার নিকটে লইয়া যাও৷' চাকরেরা তাহাই করিল৷ ৯. সেই অঙুররস, যাহা পানি হইতে হইয়াছিল, ভোজের কর্তা তাহা খাইয়া দেখিলেন৷ কিন্তু সেই রস কোথা হইতে আসিল তাহা তিনি জানিতেন না; তবে যে চাকরেরা পানি তুলিয়াছিল তাহারা জানিত৷ তাই ভোজের কর্তা বরকে ডাকিয়া বলিলেন, 'প্রথমে সকলে ভাল আংগুর রস খাইতে দেয়৷ তারপর যখন লোকেরা ইচ্ছামতো খাওয়া শেষ হয়, তখন যে রস তাহা আগের চেয়ে কিছু খারাপ৷ কিন্তু তুমি ভাল আঙুররস এখন পর্যন্ত রাখিয়াছ৷

জর্দান উপত্যকায় বাপ্তিস্মদাতাকে ঘিরে তাদেরকে গালিলীয় পাহাড়ে একটি বিবাহ ভোজের আনন্দে যোগদান করতে নিয়ে গেলেন৷ এই ১০০ কিলোমিটার ভ্রমণ আমাদেরকে দুটি কেতাবের মৌলিক পরিবর্তনকে দেখায়৷ বিশ্বাসীরা আর বিধিবিধানের ভিতর বসবাস করলো না, কিন্তু ঈসা মসিহের সাথে ন্যায়পরায়ণতার আনন্দের মধ্যে বাস করলো যিনি ছিলেন উদীয়মান সূর্য এবং শান্তিদাতা৷

ঈসা মসিহ বাপ্তিস্মদাতার মতো একজন যোগী ছিলেন না৷ এই কারণে ঈসা মসিহের তার সাহাবিদের নিয়ে একটি সাধারণ অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার মধ্যে একটি মোজেজা ছিল, তিনি দ্রাক্ষারস খেতে নিষেধ করেন নি যেহেতু তিনি শিখিয়েছিলেন যে, যাহা আমাদের দেহের মধ্যে ঢোকে তা আমাদেরকে অপবিত্র করে না বরং খারাপ চিন্তাধারা, যাহা অন্তর থেকে রেরিয়ে আসে সেটাই মানুষকে অপবিত্র করে৷ ঈসা মসিহ কঠোর তপস্যা বা আত্মসংযমকে প্রত্যাখান করেননি, কিন্তু তিনি শিখিয়েছিলেন যে, এইরকম জীবনধারা সামান্যই কাজে আসে৷ আমাদের কলুষিত হৃদয়ের প্রয়োজন হলো একটি নুতন স্বভাব ও একটি নতুন জন্মের৷ কিতাবুল মোকাদ্দাস যা নিষেধ করে মদ্যপ হওয়া এবং মদের ওপর আসক্তি৷ সাহাবিরা ভোজে ঈসা মসিহের সংগ দিয়েছিল, যখন নথনেল নিজেই কান্না নগর থেকে এসেছিল (২১ : ২) মনে হয় ঈসা মসিহের মা বরের পরিবারের সাথে পরিচিত ছিলেন৷ ধারণাটি এই যে ইউসুফ ইতিমধ্যেই মৃতু্যবরণ করেছিলেন৷ মরিয়ম বিধবা হলেন এবং ঈসা মসিহ পরিবারের জন্য প্রথম সন্তানের ভূমিকা গ্রহণ করেছিলেন৷

তাই তাঁর মা তাদের কোনো আত্মীয়কে সাহায্য করবার জন্য তার শরনাপন্ন হতো৷ জর্দান তার প্রত্যাবর্তনের পর তিনি আর সাধারণ মানুষ ছিলেন না, কিন্তু পাক-রুহের দ্বারা রূপান্তরিত হয়ে দুনিয়ার দায়-দায়িত্ব ফেলে খোদার সেবায় নিয়োজিত হলেন, এমন একটি ভূমিকা যা তার সাহাবিরা অনুসরণ করতো৷

মরিয়ম তাঁর পুত্রের উপর নির্ভর করতেন কারণ তিনি তার যত্ন এবং ভালোবাসার কথা জানতেন৷ তার (মরিয়মের) ভালোবাসা ঈসা মসিহের হাতে প্রথম মাজেজা দেখাতে পরিচালিত করে৷ ঈসা মসিহের ভালোবাসার উপর বিশ্বাস খোদার বাহুকে চালনা করে৷ ঈসা মসিহ যা কিছুই করতে চাইতো সেগুলো করতে তার মা চাকরদের হুকুম দিত৷ তিনি নিশ্চিত ছিলেন যে ঈসা মসিহ যে কোনো ভাবেই সাহায্য করবে৷ চাকরদের কাছে তাঁর কথা ছিল ওই রকম আদর্শ বাণী হিসেবে সকলকে সেবা করতে ব্রতী হও, 'সে যা কিছু বলে তাই করে'! কার্যত ঈসা মসিহের কাছে সমর্পিত হওয়া এবং ঈসা মসিহের কথা পালন করার মধ্য দিয়ে অনেক মাজেজা দেখতে পাওয়া যায়৷

শোধন করা পাত্রগুলি, যে গুলো বালি এবং প্রসস্ত এবং যার ধারণক্ষমতা ৬০০ লিটার সেটা পূর্ণ করা, এটা প্রমাণ হয় যে, অতিথিরা বিশাল পরিমাণ পানি ধৌত করার কাজে ব্যবহার করেছিলেন৷ একটি ভিন্ন ধরনের শোধন প্রয়োজন হয়ে পড়েছিল যখন ঈসা মসিহ উপস্থিত ছিলেন৷ কোন মানুষই মেষশাবকের বিবাহভোজে অংশগ্রহণ করতে পারে না যতক্ষণ না সে পরিপূর্ণভাবে ধৌত হয় বা পরিষ্কৃত হয়৷

যাই হোক শোধন করা মসিহের তাত্‍ক্ষণিক উদ্বেগ ছিল না৷ বিবাহ উত্‍সব অবশ্যই চলবে৷ ঈসা মসিহ শান্তভাবে বিশুদ্ধ পানিকে মিষ্ট দ্রাক্ষারসে পরিবর্তিত করলেন৷ আমরা জানি না কীভাবে এটা সম্পাদন হয়েছিল৷ কিন্তু আমরা এই ঘটনা থেকে জানি যে তাঁর এই ক্ষরিত রক্ত মেষশাবকের বিবাহভোজে অংশগ্রহণকারী সকলের জন্যই যথেষ্ট৷ মদ্যপের উপর এটা সহনীয় নয়৷ পাক-রুহ কোন কোনো মাতালের আচরণকে অনুমোদন করেন না৷ কিন্তু মিষ্ট দ্রাক্ষারসের প্রচুর সরবরাহ মানুষের পাপের ক্ষমার জন্য ঈসা মসিহের অসীম ক্ষমার প্রতীকস্বরূপ৷ আসুন সবাই যাতে বেহেস্তের আনন্দে অংশগ্রহণ করতে পারি৷ প্রভুর ভোজে সবাই ধন্যাদের সাথে রুটি এবং দ্রাক্ষারস গ্রহণ করে, এটি ঈসা মসিহের উপস্থিতির প্রতিক ক্ষমা প্রদান করা হয় যেমনই আমরা তার আনন্দের মধ্যে থাকি৷

যোহন ২:১১-১২
১১. ঈসা মসিহ গালিল প্রদেশের কান্না গ্রামে চিহ্ন হিসেবে এই প্রথম আশ্চর্য কাজ করিয়া নিজের মহিমা প্রকাশ করিলেন৷ হইাতে তাহার সাহাবিরা তাহার ওপর বিশ্বাস করিলেন৷ ১২. তারপর ঈসা মসিহ তাহার মা, তাহার ভাইয়েরা ও তাহার সাহাবিরা কফরনাহ্ম শহরে গেলেন, কিন্তু বেশিদিন তাহারা সেখানে থাকিলেন না৷

ঈসা মসিহের সৃষ্টিশীল ক্ষমতা দেখিয়া সাহাবিরা অভিভূত হয়ে পড়লো এবং তারা প্রাকৃতিক ঘটনার উপর তার কতর্ৃত্বকে অনুভব করলো৷ তারা তার মহিমা দেখলো এবং বিশ্বাস করলো যে খোদা তাকে পাঠিয়েছেন৷ এটা তার উপর বিশ্বাস আনতে তাদেরকে চালিত করলো৷ বিশ্বাসের বৃদ্ধি ঘটতে সময়ের প্রয়োজন হয় এবং কর্তব্যপরায়ণতা বুঝতেও সময় লাগে৷ আপনি যদি ঈসা মসিহের কার্যসমুহকে অধ্যয়ন করেন এবং তার বক্তব্যগুলোকে গভীরভাবে গবেষণা করেন তাহলে আপনি তার ব্যক্তিত্বের মহত্বকে উপলব্ধি করবেন৷

ঈসা মসিহ তাঁর পরিবার থেকে আলাদা হয়ে গেলেন এবং খোদার সেবায় ব্রতী হতে জাগতিক দায়-দায়িত্ব থেকে মুক্ত হলেন৷ কিন্তু তার মা এবং ভাইদের সাথে যোগাযোগ অব্যাহত থাকলো৷ কিছু সময়ের জন্য তারা তার সাহাবিদের সাথে ভ্রমণে গিয়েছিল, তার ভাইয়েরা তার সাথে কফরনাহুমে গিয়েছিল, যা ছিল টিবেরিয়াস হ্রদের নিকটে প্রধান শহর৷ যাই হোক, সাহাবিরা তাকে ব্যক্তিগতভাবে খুব বিশ্বাস করতো শুধুমাত্র কান্নার নিদর্শনের জন্য নয়৷ ভালো কিছুর জন্য তারা তাঁকে ধরে রাখলো৷

প্রার্থনা: প্রভু ঈসা মসিহ, আমরা আপনাকে ধন্যবাদ দেই, কারণ আপনি আমাদের বিবাহভোজে ডেকেছেন, আমাদেরকে আপনার সহভাগীর আনন্দের মধ্যে রাখার জন্যে৷ আমাদের পাপ সকল ক্ষমা করুন৷ আপনার পাকরুহ দ্বারা আমাদেরকে পূর্ণ করুন৷ আমরা আপনাকে অনুসরণ করবো এবং ন্যায়পরায়ণতা এবং পবিত্রতাকে মেনে চলবো, ঠিক যেমন আপনি নিজেকে সকলের জন্য নিবেদিত করেছেন৷

প্রশ্ন:

২৪. ঈসা মসিহ তাঁর সাহাবিদের বিবাহ বাড়িতে কেন নিয়ে গিয়েছিলেন

কুইজ - ১

প্রিয় পাঠক,
২৪টি প্রশ্নের মধ্যে অন্তত ২০ টি সঠিক জবাব আমাদের কাছে পাঠিয়ে দিন৷ আমরা এই বইয়ের সিরিজ থেকে আপনার অধ্যায়নের জন্য ১কপি পাঠিয়ে দিবো৷

১. চতুর্থ সুসমাচারের লেখক কে?
২. চতুর্থ সুসমাচার এবং প্রথম তিনটি সুসমাচারের মধ্যে সম্পর্ক কী?
৩. যোহন- লিখিত সুসমাচারের উদ্দেশ্য কী?
৪. এই অদ্বিতীয় সুসমাচারটি কার কাছে লেখা হয়েছিল?
৫. বক্তব্যকে ঠিক রেখে এইগুলিকে কীভাবে আলাদা করা সম্ভব?
৬. যোহন সুসমাচারের প্রথম অধ্যায়ের প্রথম পদে কোন কথাটি বার বার উল্লেখ করা হয়েছে এবং তার অর্থ কী?
৭. যোহন তার সুসমাচারের প্রথমে মসিহের চরিত্রের ছয়টি বৈশিষ্ট্যকে প্রকাশ করেছিল?
৮. আধ্যাত্মিক দৃষ্টিতে আলো এবং অন্ধকার এই দুটি শব্দের মধ্যে পার্থক্য কি?
৯. বাপ্তিস্মদাতা যোহনের কার্যাদির মূল উদ্দেশ্যগুলো কী ছিল?
১০. ঈসা মসিহ যে নূর এবং অন্ধকার জগত্‍ এই দুইয়ের ভিতর সম্পর্ক কী?
১১. যারা ঈসা মসিহকে গ্রহণ করে তাদের জীবনে কী ঘটে?
১২. মসিহের মনুষ্য দেহ ধারণ কি অর্থ বহন করে?
১৩. ঈসা মসিহের পরিপূর্ণতা বলতে কী বোঝায়?
১৪. কোনো নুতন চিন্তাধারা নিয়ে কী ঈসা মসিহ পৃথিবীতে এসেছিলেন?
১৫. ইহুদিদের সর্বোচ্চ আদালতের প্রতিনিধিদের প্রশ্নের উদ্দেশ্য কী ছিল?
১৬. বাপ্তিস্মদাতা জনগণকে কীভাবে প্রভুর পথ তৈরি করতে ডেকেছিল?
১৭. ঈসা মসিহের সাক্ষ্য হবার ব্যাপারে স্যানহেড্রিনের প্রতিনিধিদের কাছে বাপ্তিস্মদাতার সব থেকে সেরা বিষয়টি কী ছিল?
১৮. খোদার মেষশাবক বলতে কী বোঝায়?
১৯. কেন ঈসা মসিহ পাক-রুহের দাতা হলেন?
২০. কেন দুজন সাহাবি ঈসা মসিহকে অনুসরণ করেছিল?
২১. প্রথম সাহাবি কীভাবে ঈসা মসিহের নামকে প্রচার করেছিল?
২২. কীভাবে প্রথম সাহাবিরা অন্যদের কাছে ঈসা মসিহের নাম প্রচার করেছিল?
২৩. 'মনুষ্যপুত্র' এবং 'খোদার পুত্র' এই দুটো উপধির মধ্যে কী সম্পর্ক রয়েছে?
২৪. ঈসা মসিহ তাঁর সাহাবিদের বিবাহ বাড়িতে কেন নিয়ে গিয়েছিলেন

আপনারা নাম এবং পূর্ণঠিকানা স্পষ্ট করে শুধুমাত্র খামের উপর নয় কিন্তু প্রশ্নপত্রের উপর লিখতে ভুলবেন না৷ নিচের ঠিকায় এটাকে পাঠিয়ে দিন৷

Waters of life
P.O. Box 600 513
70305 Strttgart,
Germany

MJWT
G.P.O Box No. 3507
Dhaka-1000
BANGLADESH

www.Waters-of-Life.net

Page last modified on July 25, 2012, at 09:28 AM | powered by PmWiki (pmwiki-2.2.109)