Waters of Life

Biblical Studies in Multiple Languages

Search in "Bengali":
Home -- Bengali -- John - 081 (Jesus washes his disciples' feet)
This page in: -- Arabic -- Armenian -- BENGALI -- Cebuano -- Chinese -- English -- Farsi? -- French -- Hausa? -- Hindi -- Indonesian -- Kiswahili -- Kyrgyz -- Malayalam -- Peul -- Portuguese -- Russian -- Serbian -- Spanish? -- Tamil -- Telugu -- Turkish -- Urdu -- Uyghur? -- Uzbek -- Vietnamese -- Yiddish

Previous Lesson -- Next Lesson

যোহন - নূর অন্ধকারের মধ্যে জ্বলছে
যোহন বর্ণীত মসিহের নাজাতের বারতার সুসমাচার ওপর অধ্যয়ন
দ্খন্ড ৩ - সাহাবিদের প্রত্যেকের মধ্যে নূর জ্বলিতেছে (যোহন ১১:৫৫ - ১৭:২৬)
বি - প্রভুর ভোজের আগের ঘটনা (যোহন ১৩:১-৩৮)

১. ঈসা মসিহ তার সাহাবিদের পা ধুয়ে দিলেন (যোহন ১৩:১-১৭)


যোহন ১৩:১-৫
১. ঈদুল ফেসাখের কিছু আগের ঘটনা৷ ঈসা মসিহ বুঝিতে পরিয়াছিলেন, তাঁহার এই দুনিয়া ছাড়িয়া পিতার নিকটে যাইবার সময় উপস্থিত হইয়াছে৷ এই দুনিয়াতে যাহারা তাহার নিজের লোক ছিলেন তাহাদের তিনি মহব্বত করিতেন এবং শেষ পর্যন্তই মহব্বত করিয়াছিলেন৷ ২. তখন খাইবার সময়৷ ইহার আগেই শয়তান শিমোনের ছেলে এহুদা ইস্কারিয়োতের মনে ঈসা মসিহকে শক্রদের হাতে ধরাইয়া দিবার ইচ্ছা জাগাইয়া দিয়াছিল৷ ৩. ঈসা মসিহ জানিতেন, পিতা-খোদা তাহার হাতে সমস্ত কিছুই দিয়েছেন৷ তিনি আরও জানিতেন যে, তিনি তাহারই নিকট হইতে আসিয়াছেন এবং তাহারই নিকটে ফিরিয়া যাইতেছেন৷ ৪. এইজন্য তিনি খাওয়া ছাড়িয়া উঠিলেন, আর উপরের কাপড় খুলিয়া ফেলিয়া একটা গামছা লইয়া কোমরে জড়াইলেন৷ ৫. তারপর তিনি গামলায় পানি ঢালিয়া সাহাবিদের পা ধোয়াইতে লাগিলেন এবং কোমরে জড়ানো গামছা দিয়া তাহা মুছাইয়া দিতে লাগিলেন৷

এই অধ্যায় থেকে শুরু করে ইউহোন্না একটি নুতন সোপানে গেলেন যা তার সুসমাচারের বিসয়বস্তু ছিল৷ এর আগে ঈসা মসিহ সার্বিকভাবে লোকদেরকে ডাকছিলেন, দুঃখজনকভাবে বিষয়বস্তুটি হলো, 'নূর অন্ধকারের মধ্যে জ্বলছে এবং অন্ধকার তাকে উপলব্ধি করতে পারে নাই' এটা তাদেরকে নিশ্চিত করা হয়েছিল৷ তাহলে কি ঈসা মসিহ ব্যর্থ হচ্ছিলেন? না! সব মানুষই তাকে গ্রহণ করেনি, কিন্তু প্রভু যাদেরকে মনোনিত করেছিলেন যারা প্রস্তুত ছিল এবং অনুতপ্ত হয়েছিল, তিনি তাদেরকে তার দলে অনর্্তভূক্ত করেছিলেন৷ এই অধ্যায়গুলোতে আমরা দেখবো কেমন করে ঈসা মসিহ মনোনীতদের উদ্দেশ্যে বলেছিলেন, যেমনই বিবাহের বর কনের সাথে কথা বলে৷ তিনি তাদেরই যেমন তারাও তারই৷ খোদার ভালোবাসাই ছিল এই আলোচনার আদর্শ বাণী৷ এই ভালোবাসা কেবল স্বার্থপর অনুভূতি ছিল না, এটা সেবার আহ্বানকে বুঝায়৷ কিতাবুল মোকাদ্দসে ভালোবাসার অর্থ হলো তাদের জন্য বিনীত আত্মদান যারা তার যোগ্য নয়৷ এই আলোচনার মধ্যে ঈসা মসিহ তাঁর সাহাবিদের কাছে সর্বাপেক্ষা ভালো গুণাগুণের কথা প্রকাশ করেন এবং তার ভালোবাসাকে একজন সেবকের কাজ হিসেবে ব্যাখ্যা করেন, যা তার জীবন, মৃতু্য এবং পুনরুত্থানের প্রতিক স্বরূপ৷

ঈসা মসিহ বলেছিলেন পরবতর্ী ঈদুল ফেসাখের আগে তিনি মৃতু্যবরণ করবেন৷ তিনি তার পিতার কাছে যাচ্ছেন৷ এটা কি আপনার বেলায়ও প্রয়োজ্য? তিনি দুনিয়াতেই ছিলেন কিন্তু সব সময় পিতার দিকেই তার দৃষ্টি ছিল৷ তার কাছ থেকেই ক্ষমতা, পথনির্দেশনা এবং আনন্দ প্রবাহিত হয়, যা অতি মন্দ লোকদের সহ্য করতে ক্ষমতা দেয়৷ পিতার সাথে একত্রিত হয়ে তিনি দেখেছিলেন যে শয়তান তার এক সাহাবির হৃদয়ে মন্দ চিন্তার কথা ফিস ফিস করে বলেছিল৷ এই লোকটি ক্রমশ : নিজেকে প্রকাশ করেছিল যার লোভ, দম্ভ এবং ঘৃণা ছিল৷ যাইহোক, ঈসা মসিহ বিশ্বাস ঘাতকটিকে ঘৃণা করেননি কিন্তু শেষ পর্যন্ত বেহেশতি ভালোবাসা দিয়েই তাকে ভালোবেসেছিলেন৷

ঈসা মসিহ শুধুমাত্র বিশ্বাসঘাতকটিকে মেনে নেননি কারণ এটা ছিল নিয়তি৷ যা হতে যাচ্ছে তার সিদ্ধান্ত এহুদা, কাইয়াফা, হেরোদ, পিলাত অথা ইহুদি নেতা এবং তাদের লোকেরা নেয়নি৷ কিন্তু তা হয়েছিল পিতার কাছে তার বশ্যতার কারণে যিনি তাকে সকল রূহ এবং মানুষের ভার হস্তান্তর করেছিলেন৷ খোদার মেষশাবক হিসেবে তিনি মৃতু্যবরণ করতে সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন এবং ঘটনা সমুহের সময়সুচি নিদৃষ্ট করেছিলেন৷ ঝড়ঝঞ্ঝাপূর্ণ ঘটনা সমুহের মধ্যেও তিনি নিজের উদ্দেশ্য হারিয়ে ফেলেননি৷ ঈসা মসিহ হলেন প্রভুু যিনি ইতিহাসের গতিপথকে বদলিয়ে দিয়েছিলেন৷

ঈসা মসিহ উধের্্ব তার পিতার কাছে ফিরে যেতে ইচ্ছা করেননি কিন্তু তার সাহাবিদেরকে তাদের অবনমিত হবার একটি নির্দশন শিখিয়েছিলেন, তিনি সেবক হয়েছিলেন; তিনি নিজে গিয়ে পানি এনেছিলেন এবং তার সাহাবিদের সামনে জানু পেতে তাদের পা ধুইয়ে মুছিয়ে দিয়েছিলেন৷ তিনি নিজেকে সবার থেকে নিচু করেছিলেন যাতে করে এটা শিখতে পারে যে খোদা মানব জাতিকে সেবা করেন৷ প্রভু শীতল বা উদাসীনভাবে কর্তৃত্ব করেন না কিন্তু তাদেরকে পরিষ্কৃত করতে জানু পাতেন এবং তাদেরকে তার নম্রতার প্রতিমূর্তিতে রূপান্তরিত করেন৷

ঈসা মসিহ হলেন আমাদের মহত্তম আদর্শ৷ কখন আমরা তার সামনে নতজানু হব এবং তার এবাদত করবো? কখন আমাদের নিজেদের মনকে পরিবর্তন করবো?

ভাই যতক্ষন পর্যন্ত না আপনি ভগ্ন হৃদয়গ্রস্থ হচ্ছেন আপনার ভাইদের এবং শত্রুদের ভালোবাসছেন অথবা আহতের ক্ষত বেঁধে দিচ্ছেন ততক্ষন আপনি একজন খাঁটি ঈসা মসিহের লোক নন৷ আপনি কি একজন দাস না প্রভুু? মনে রাখবেন ঈসা মসিহ হলেন সকল মানব জাতির সেবক, তিনি আপনাকে নত হয়ে সেবা করেন৷ আপনি কি এই সেবাকে স্বীকার করেন নাকি নিজেকে অসাড় দাম্ভিক বলে মনে করেন এবং নিজেকে ভাল মনে করেন এবং খোদার সেবা করার প্রয়োজন মনে করেন না?

যোহন ১৩:৬-১১
৬. এইভাবে ঈসা মসিহ যখন শিমোন পিতরের নিকটে আসিলেন তখন পিতর তাহাকে বলিলেন, 'প্রভু, আপনি কি আমার পা ধোয়াইয়া দিবেন?' ৭. ঈসা মসিহ উত্তর দিলেন, 'আমি যাহা করিতেছি তাহা এখন তুমি বুঝিতে পারিতেছ না, কিন্তু পরে বুঝিতে পারিবে৷' ৮. পিতর তাহাকে বলিলেন, 'আপনি কখনো আমার পা ধোয়াইয়া দিবেন না৷' ঈসা মসিহ পিতরকে বলিলেন, 'যদি আমি তোমাকে ধোয়াইয়া না দিই, তবে আমার সঙ্গে তোমার কোনো সম্বন্ধ নাই৷' ৯. তখন শিমোন পিতর বলিলেন, 'প্রভু, তাহা হইলে কেবল আমার পা নয়, আমার হাত আর মাথাও ধোয়াইয়া দিবেন৷' ১০. ঈসা মসিহ তাহাকে বলিলেন, 'যে গোসল করিয়াছে তাহার পা ছাড়া আর কিছুই ধুইবার দরকার নাই, কারণ তাহার আর সমস্ত কিছু পরিস্কার আছে৷ তোমরা অবশ্য পরিস্কার আছ, কিন্তু এই চুক্তির সারমর্ম এবং অর্থ তাদের দেখিয়েছিলেন৷ এটা ভালোবাসা থেকে কম কিছু নয় যা ছিল বাস্তব সেবা৷

ঈসা মসিহ সাহাবিদের যেভাবে পা ধুয়ে দিতে দেখলেন তাতে তারা হতভম্ব হয়ে পড়লেন৷ প্রভুর ভোজের শেষে তিনি কি করবেন তা কি তারা জানতেন৷ স্বতঃপুর্তভাবে তারা তাদের নিজেদের পা ধুয়ে নিতেন৷ খোদা এবং সাহাবিদের মধ্যে তিনি যে একটি নতুন ব্যবস্থা স্থাপন করলেন তাই নয়, তিনি তাদেরকে এই নতুন ব্যবস্থার উদ্দেশ্য ও সারমর্ম বুঝিয়ে দিলেন; আর তা হলো মহব্বত ও বাস্তব সেবাদান করা ছাড়া আর কিছুই নয়৷

সাহাবিদের মধ্যে পিতর ছিল সব থেকে বেশি দাম্ভিক এবং ঈর্ষাপরায়ন৷ সে প্রভুর দ্বারা সেবা পেতে চায়নি; এবং প্রভুর বাক্যকে গুরুত্ব না দিয়েই সে পা ধোয়ানো বিরত করতে চাইছিল৷ তখন ঈসা মসিহ সকল সাহাবিদেরকে পা ধোয়ানোর রহস্য ব্যাখ্যা করলেন যেমন মনে হচ্ছিল তিনি আমাদের বলছেন, 'ধৌতকরণ ছাড়া তোমরা খোদার রাজ্যে অংশ গ্রহণ করতে পারবে না এবং পাপের ক্ষমা ব্যতিত তোমরা আমার সঙ্গে থাকতে পারবে না৷' তার রক্তের মধ্য দিয়ে সুচি করণ হলো অবিরত৷ তিনি রহমতের মধ্য দিয়ে আপনাকে রক্ষা করেন এবং খোদার পুত্রের সহভাগীতায় আপনাকে রেখে দেন৷

পিতর তার হাতের দিকে তাকিয়ে আলো দেখতে পেল, যা মন্দ কাজ করেছিল এবং খোদার পরিকল্পনাকে ধীরে ধীরে বুঝবার চিন্তা করছিল, সে লজ্জিত হয়েছিল এবং তার পুরো শরীরকে ধুতে চেয়েছিল৷ ঈসা মসিহ তাকে পুনুরায় আশ্বাস দিয়ে বললেন, 'বিশ্বাসের ভিত্তিতে যে কেউ আমার কাছে আসে সে সম্পূর্ণভাবে খাঁটি হয়ে যায়৷' এইভাবে আমরা জানি যে আমাদের বিশেষ ধৌত করনের অথবা অতিরিক্ত পবিত্রতার প্রয়োজন নাই কারণ ঈসা মসিহের রক্ত আমাদেরকে সকল পাপ থেকে পরিষ্কৃত করে৷ তার রক্তের মধ্য দিয়ে ক্ষমার থেকে বেশি পবিত্রতা আর কিছুতে নেই৷ আমরা যেমন প্রতিদিন হেঁটে ধুলা জড় করি এবং প্রর্থনা করি, আমাদের অপরাধ সকল ক্ষমা কর, খোদার সন্তানদের প্রতিদিন কেবল তাদের পা ধোবার প্রয়োজন আছে৷

ঈসা মসিহ তার সাহাবিদের দিকে তাকিয়ে বললেন, 'তোমরা পবিত্র৷' তিনি তাদেরকে খোদার সাথে নুতন চুক্তিতে আবদ্ধ হতে আমন্ত্রণ জানালেন৷ মেষশাবক তার সাহাবিদের জন্য মৃতু্য বরণ করেছিলেন তাদেরকে বেহেশতী সহভাগীতার সঙ্গী হতে৷ কোনো ব্যক্তি নিজ থেকে পবিত্র নয়, কিন্তু ঈসা মসিহের রক্ত আমাদের সকল পাপ থেকে পবিত্র করে৷

দুঃখজনকভাবে সত্য, তার সকল অনুসারীরাই পবিত্র ছিল না যেমন আজও তা দেখা যায়৷ তাদের কেউ কেউ আন্তরিকতাহীন সেবা করে যেন মনে হয় তারা ঈসা মসিহের রক্তে বিশ্বাস করে, কিন্তু তারা পাক-রূহতে পূর্ণ হয় না৷ শয়তানের আত্মা তাদেরকে ঘৃণা, ঈর্ষা, দম্ভ এবং ব্যাভিচারে উদ্বিপ্ত করে৷ তাই প্রায়ই আপনি ধার্মিকদের মধ্যে মন্দ আত্মা এবং অর্থের ওপর অনুরাগ দেখতে পাবেন৷ ঈসা মসিহ আপনার পা দুটিকে প্রতিদিন ধুয়ে দিতে চান এবং আপনাকে সকল প্রকার পাপ থেকে মুক্ত রাখতে চান এবং খোদার সাথে সহভাগীতার জন্য আপনাকে সম্পূর্ণভাবে পবিত্র রাখেন৷ নিজেকে পরীক্ষা করে দেখুন আপনি কি একজন দাস না প্রভু?

প্রার্থনা: প্রভু ঈসা মসিহ, আপনাকে ধন্যবাদ দেই নিজের মহিমা ত্যাগ করে আমাদের মতো অপবিত্রদের কাছে আসার জন্যে৷ আপনি নত হয়ে আপনার সাহাবিদের পা ধুয়েছেন এবং আমাদের হৃদয়কে পাপ থেকে ধৌত করেছেন৷ আমরা আপনার এবাদত করি এবং মিনতি করি যে আপনি আমাদেরকে সকল দাম্ভিক চিন্তাধারা থেকে মুক্ত করেন যাতে করে আমরা নতজানু হতে পারি এবং আপনার দাস হতে পারি৷ সকলের থেকে নিচু হতে আমাদেরকে সাহায্য করুন এবং আমাদের মণ্ডলী এবং পরিবারের মধ্যে আপনার সেবা করতে আমাদেরকে প্রস্তুত করুন৷

প্রশ্ন:

৮৫. ঈসা মসিহের দ্বারা তার সাহাবিদের পা ধোয়ানো কি অর্থ বহন করে?

যোহন ১৩:১২-১৭
১২. সাহাবিদের সকলের পা ধোয়াইবার পরে ঈসা মসিহ তাহার উপরের কাপড়খানা পরিয়া আবার বসিলেন এবং তাহাদের বলিলেন, আমি কি করিলাম তাহা কি তোমরা বুঝিতে পারিলে? ১৩. তোমরা আমাকে ওস্তাদ ও প্রভু বলিয়া ডাক, আর তাহা ঠিকই কর, কারণ আমি তাহাই৷ ১৪. কিন্তু আমি প্রভু ও ওস্তাদ হইয়াও যখন তোমাদের পা ধোয়াইয়া দিলাম তখন তোমাদেরও একজন অন্যজনের পা ধোওয়ান উচিত্‍৷ ১৫. আমি তোমাদের নিকট ইহা করিয়া দেখাইয়াছি যেন তোমাদের প্রতি আমি যাহা করিলাম তোমরাও তাহা কর৷ ১৬. আমি তোমাদের সত্যই বলিতেছি, গোলাম তাহার মনিবের চেয়ে বড় নয়৷ যাহাকে পাঠান হইয়াছে, সে তাহার চেয়ে বড় নয় যিনি তাহাকে পাঠাইয়াছেন৷ ১৭. এই সমস্ত জানিয়া যদি তাহা পালন কর, তবে তোমরা ধন্য'৷

ঈসা মসিহ তার বিদায়কালীন ভাষণ সাধারণ বাক্য দিয়ে শুরু করেন নাই৷ প্রায়ই এই ধরনের বাক্য অল্প কাজে আসে, যদি না তা বাস্তবায়িত হয়৷ তিনি তার অনুসারীদের জিজ্ঞাসা করলেন তারা তার প্রতিকী কাজের বিষয় উপলব্ধি করতে পেরেছে কিনা, 'তোমাদের চোখ খোল এবং দেখ আমি তোমাদের সাথে আছি৷ আমি তোমাদের উপরে সিংহাসনে উপবি' নই, দাসের মতো তোমাদেরকে আমার সামনে লুটিয়ে পরার জন্য নয়৷ না আমি আমার মহিমাকে দূরে সরিয়ে তোমাদের মতো হয়েছি৷ এ ছাড়াও শিক্ষক এবং গুরুর আসন ত্যাগ করে সেবক হয়েছি৷ তোমরা কি এখন বুঝেছ যে তোমাদের কাছে বেহেশতি ভালোবাসা এসেছে? দাম্ভিক লোকেরা নিজেকে নিয়ে বড়াই করে এবং যে ভালোবাসে সে নিজেকে বিনীত করে এবং সব কিছুই সহ্য করে, নিজেকে সে অস্বীকার করে এবং বাস্তবিকভাবে সেবা করে৷'

'তোমরা আমার সাহাবি হতে চাও কারণ আমি তোমাদের আদর্শ, আমি কেবল কথা বলি না কিন্তু আমার শিক্ষার মধ্যে কাজও করি৷ আমার দিকে তাকাও; আমি একজন সেবক৷ তোমরা যদি আমাকে অনুসরণ করতে চাও তাহলে নতজানু হও এবং একে অপরের সেবা কর৷ তোমাদের মধ্যে যে প্রথম হতে চায় সেই সব থেকে দূর্বল৷ কিন্তু যে কেউ অন্যকে শান্তভাবে সেবা করে এবং নিজেকে নীচু করে, সে সত্যই মহত্‍৷'

'একথা চিন্তা করবেন না যে মণ্ডলী প্রকৃত সাধু ব্যক্তিদের দ্বারা পূর্ণ৷ তারা সকলেই পবিত্রতার প্রস্তুতির পথে৷ আমি তাদের সবাইকে পরিষ্কৃত করেছি এবং তারা নীতিগতভাবে সাধু৷ কিন্তু আধ্যাত্মিক বৃদ্ধির জন্য প্রতিটি সদস্যের ধৈর্য্য এবং সময়ের প্রয়োজন৷ প্রত্যেকেই ভূল করে এবং হোঁচট খায়৷ আমার আদেশ হলো : একে অপরের ভূল এবং অপরাধ ক্ষমা কর৷ কেউ কারো বিচার কর না, কিন্তু অন্যদের সাহায্য কর৷ কারো মাথা ধুইয়ো না, কিন্তু তাদের পা গুলি ধোও৷ অপরের ওপর কারো কতর্ৃত্ব করা উচিত্‍ নয় কারণ তারা তোমরা ভ্রাতা৷ যদি তোমরা এভাবে কাজ কর তাহলে আমি যা ইতিমধ্যেই স্পষ্ট করে বলেছি তা তোমরা উপলব্দি করবে : আমি সেবা নিতে আসি নাই কিন্তু দিতে এসেছি৷ আমার জীবন হলো সবার জন্যে সেবা, উত্‍সর্গ এবং সমর্পণ করা৷'

'আমি দুনিয়াতে তোমাদেরকে ভালোবাসার প্রেরিতদের মধ্যে পাঠিয়েছি৷ যাকে পাঠানো হয়েছে যে তাকে পাঠিয়েছে সে তারই মতো মহত্‍৷ তোমাদের প্রথম কর্তব্য হলো আমার মতো সেবক হওয়ার৷ তোমরা যদি এটা বোঝ তাহলে তোমরা ঈসা মসিহের মূল নীতি উপলব্ধি করতে পারবে৷'

'আমার দ্বিতীয় তত্ত্ব হলো : তোমরা যদি এটা জান এবং যদি তা কর তোমরা ধন্য৷ কেবল বাক্যের মধ্য দিয়ে তোমাদের কাছে ভালোবাসার কথা বলি নি আমি এটা অনুশীলনও করেছি৷' সেবা হলো শ্রম এবং উত্‍সর্গ, শুধুমাত্র কথা, প্রার্থনা এবং অনুভূতি নয়৷ একজন বিশ্বাসীর স্বভাবের মধ্যেই সেবার প্রেরণা থাকে৷ ভালোবাসার বিভিন্ন কাজ এই মূল কেন্দ্রের থেকে আসে৷ যে সেবা করে না সে বড় একজন বিশ্বাসী নয়৷ তোমাদের ভাল কাজ তোমাদের রক্ষা করে না কিন্তু আমার রক্তই তোমাদের রক্ষা করে৷ কিন্তু তুমি যদি দুর্দশাগ্রস্তদের, বিপথগামীদের সব সময় সেবা করতে এগিয়ে আস তাহলে তুমি খোদার আনন্দে পূর্ণ হবে৷ ঈসা মসিহের সেবকদের খোদার সন্তুষ্টি ভরে তোলে৷

ভাই আপনি কি গুরু অথবা শিক্ষক হতে চান? ঈসা মসিহের দিকে তাকান তিনি সর্বোত্তম শিক্ষক, তিনি সেবকের মতো আপনার সামনে এসে দাড়ান৷ আপনি কি তার শিক্ষা অনুশীলন করতে চান? তাহলে আজ থেকেই তা শুরু করুন৷ প্রার্থনার মধ্যে অনুরোধ করুন কোথায় কিভাবে এবং কাকে তিনি আপনাকে দিয়ে সেবা করাতে চান৷ আপনি ধন্য যদি তা জানেন এবং তা করেন৷

www.Waters-of-Life.net

Page last modified on June 15, 2012, at 09:31 AM | powered by PmWiki (pmwiki-2.2.109)