Waters of Life

Biblical Studies in Multiple Languages

Search in "Bengali":
Home -- Bengali -- Romans - 038 (The Law Prompts the Sinner to Sin)
This page in: -- Afrikaans -- Arabic -- Armenian -- Azeri -- BENGALI -- Bulgarian -- Cebuano -- Chinese -- English -- French -- Hebrew -- Hindi -- Indonesian -- Malayalam -- Polish -- Portuguese -- Russian -- Serbian -- Spanish? -- Turkish -- Urdu? -- Yiddish

Previous Lesson -- Next Lesson

রোমীয়দের - প্রভুই আমাদের ধার্মিকতা
রোমীয়দের কাছে হযরত পৌলের লেখা পত্রের ওপর পর্যালোচনা
প্রথম খন্ড - খোদার ধার্মিকতা সকল পাপীকে দোষী সাব্যস্থ করে, আর মসিহের ওপর বিশ্বাসিদের ন্যায়বান ও আলাদা করে (রোমীয় ১:১৮ - ৮:৩৯)
ডি - পাপের ক্ষমতা থেকে খোদার শক্তি আমাদের উদ্ধার করেন (রোমীয় ৬:১ - ৮:২৭)

৪. শরীয়ত চুপিসারে গুণাহগারদের গুণাহের কথাই বলে (রোমীয় ৭:৭-১৩)


রোমীয় ৭:৭-৮
৭. তবে কি আমরা বলব যে, শরীয়ত খারাপ? নিশ্চয়ই না; বরং এই কথা ঠিক যে, শরীয়ত না থাকলে গুনাহ কি তা আমি জানতে পারতাম না৷ 'লোভ কোরো না,' শরীয়ত যদি এই কথা না বলত তবে লোভ কি তা আমি জানতাম না৷ ৮. কিন্তু গুানহ সেই হুকুমের সুযোগ নিয়ে আমার মধ্যে সব রকম লোভ জাগিয়েছে, কারণ শরীয়ত না থাকলে গুনাহ যেন মরার মত পড়ে থাকে৷

পৌল তাঁর আত্মায় উপলব্ধি করতে পেরেছিলেন তার শত্রুদের আপত্তিজনক প্রশ্নের বিষয়, 'তুমি আজ আমাদের পবিত্র মহান প্রত্যাদেশ থেকে বাহির করতে চাচ্ছো, তুমি কি মনে করো শরীয়ত ক্রুটি বিশিষ্ট, দুর্বল ও ভুল?' প্রেরিত তাদের যুক্তি ও প্রশ্নগুলোর সারসংক্ষেপ করলেন, তারপর অতিরিক্তভাবে তাদের কাছে প্রশ্ন করলেন, 'শরীয়ত কি পাপ? সাথে সাথে তিনি জবাব দিলেন, কোনো মতেই তা গ্রহণ করা চলবে না, কেননা, খোদার আজ্ঞা কোনোভাবেই খারাপ হতে পারে না, যেহেতু তা আমাদের জীবনের পথ দেখায়৷

বাক্যের ধারা অনুবাদ করা হলে দেখা যায়, 'বিপরীত পক্ষে' শব্দের অধিক নিশ্চয়তা 'কিন্তু' এবং এটি আরো অধিক পরিমান বিশ্লেষণ করে, 'শরীয়ত যে পাপ তা আমি অস্বীকার করি৷ আমার মতবাদ তেমন চিন্তা প্রত্যাখ্যান করে; এটা খারাপ বলেও আমি ভাবতে পারি না৷ আমি জোরালোভাবে অভিযোগ অস্বীকার করি; কিন্তু, তথাপি এটা পাপের উপর একটা প্রভাব ফেলে থাকে৷ শরীয়ত ব্যতিত অন্যমনস্কভাবে পাপের রাজ্যে আমি বাস করতাম, যেমন একটি শিশু অজ্ঞানতঃ তার প্রতিবেশির বাগান থেকে ফল পেড়ে খায়৷ শুরুতে পাপ আর্কষনীয় হৃদয় মনের জন্য সুখদায়ক মনে হয়, আর তাই আমাদের পাপের হলো ভ্রান্ত শর্ত, আমরা মনে করি তা ভ্রান্ত, মন্দ বিষয় সাধারণত ভাল, অথচ তা আমাদের কাছে অজানা ও ক্ষতিকর৷

রোমীয় ৭:৯-১১
৯. আমার জীবনে শরীয়ত আসবার আগে আমি বেঁচেই ছিলাম, কিন্তু সেই হুকুম আসবার সঙ্গে সঙ্গে গুনাহও বেঁচে উঠল, আর আমারও মৃতু্য ঘটল৷ ১০. যে হুকুমের ফলে জীবন পাবার কথা, তা আমার জন্য মৃতু্য নিয়ে আসল, ১১. কারণ সেই হুকুমের সুযোগ নিয়ে গুনাহ আমাকে ঠকাল, আর সেই হুকুমের দ্বারা গুনাহ আমাকে হত্যা করল৷

যেক্ষেত্রে আমরা একটি আজ্ঞা দাড় করাই, মানুষের হৃদয়ে একটা অবাধ্যতা জাগিয়ে দেই; আর তা ভাঙ্গার মনোভাব ক্রমশঃ বৃদ্ধি পেতে থাকে৷ ৭ম আয়াতে পৌল নিজের ক্ষেত্রে এভাবে তা তুলে ধরেছে, 'আমি' শব্দের দ্বারা, তিনি নিজের জীবনে বুঝতে পেরেছেন, শরীয়তের প্রয়োগ ব্যতিত মানুষ নিজেকে খুবই উত্তম অবস্থানে রয়েছে বলে বিবেচনা করে৷ খুবই সুরক্ষিত ও নিশ্চিন্ত তার অবস্থান, যেন তার কোনোই পাপ নেই, সম্পূর্ণ মাসুম, তার শরীর থেকে সকল মন্দ প্রভাবের মৃতু্য ঘটেছে৷ কিন্তু যখনই খোদার আজ্ঞা তার জীবনে হলো প্রযুক্ত, তখন সে তার পাপের বিষয় জ্ঞাত ও সচেতন হয়ে ওঠলো, তার মনে শুনতে পেল পাপের কাছে তাকে মরতে হবে এবং ঘৃণা করতে হবে৷ শরীয়ত হলো মানুষের একগুয়েমির বিরুদ্ধে খোদার বাধা; আমাদের স্বকীয়তা হলো, কেবলমাত্র আকাঙ্খা ও জানার প্রবল আগ্রহ৷ খোদার প্রতিটি হুকুমের সাথে মুখোমুখি হওয়ার অর্থ দাঁড়ায় নিজের মৃতু্য বরণ করা৷

পুনরায় প্রেরিত ব্যাখ্যা দিলেন, আমাদের কলুষতার সমাধান দোষির মৃতু্য ছাড়া কোনো বিকল্প নেই৷ রুহানিভাবে এ মৃতু্যর দ্বারা অজানা সত্যের প্রকাশ ঘটায়, শরীয়ত আমাদের জীবনের পথ দেখায়, কিন্তু চালিত করে মৃতু্যর দিকে৷ অধিকন্তু, তা আত্ম অস্বীকৃতির অনুমোদন দেয় ও খোদার কাছে আমরা দোষী, মৃতু্য ও ধ্বংসের যোগ্য৷

পৌল বিশ্লেষণ করেছেন, প্রারম্ভে পাপ চিনির মতো মিষ্টি মনে হয়, কিন্তু তা চালিত করে খোদার পবিত্রতা ও নিয়ম নীতির বিরুদ্ধে৷ সাধুর বেসে তা সোজাসুজি দোযখে ঠেলে দেয়৷ এটাই হলো শয়তানের মিথ্যাচার, আর ভন্ডামি, যে কিনা প্রথম থেকেই খুনি৷ মিছরির ছুরি ও প্রতারণার সুবাদে মৃতু্যর পথে পাপ আমাদের টেনে নিয়ে যায়৷

রোমীয় ৭:১২-১৩
১২. তবে এই কথা ঠিক যে, মূসার শরীয়ত পবিত্র এবং তার হুকুমও পবিত্র, ন্যায্য ও উপকারী৷ ১৩. তাহলে যা উপকারী তার দ্বারাই কি আমার মৃতু্য হল? কখনও না, বরং যা উপকারী তার দ্বারাই গুনাহ আমার মৃতু্য ঘটাল, যেন গুনাহ যে সত্যিই গুনাহ তা বুঝা যায়৷ গুনাহ যে কত জঘন্য তা হুকুমের দ্বারা ধরা পড়ে৷

পৌল যিনি একজন ফরিসি আলেম ও শরীয়তের বিধি-বিধানের ওপর দক্ষ ব্যক্তি, শক্তভাবে সত্যের মুখোমুখি দাঁড়িয়েছিলেন নবীদের জামানায়, খোদার সত্যের প্রকাশের ফলে মানবজাতির জন্য ভালো কিছু বয়ে আনতে পারে নি, বরং তা তার হৃদয়কে কঠোর করে দিয়েছে আর অধিকতর মন্দ কাজে হয়েছে উত্‍সাহিত৷ নিশেধাজ্ঞা আপত্তির জম্ম দেয়, আর তা যা কিছু ভালো বা উত্তম বলে মনে হয় তা শেষতক মৃতু্যর পথে ঠেলে দেয়৷ পৌল চিত্‍কার করে ওঠলেন, 'না' এ বিশ্লেষণ সম্পূর্ণ ভ্রান্ত৷ ভালো বিষয় মন্দের প্রকাশ ঘটায়, আর পাপিকে প্রবৃত্ত করে নাজাতের পথ খুঁজে নিতে ও তা পেতে তাকে আন্তরিক শ্রমে উত্‍সাহ যোগায়৷ কখনো কখনো খোদা মানুষকে পাপের হাতে ছেড়ে দেন, তাদের চরিত্র অনুযায়ী কাজ করা জন্য যার ফলে তারা নিজের অবস্থান বুঝতে পারে এবং নিজেদের কৃতকর্মের কুফল দেখতে পেয়ে সাবধান হতে পারে৷

প্রার্থনা: হে প্রভু, তোমার পবিত্রতা ও নির্দোষীতার আলোকে আমার দোষ ও অপবিত্রতা প্রকাশ হয়ে পড়ে৷ বাহ্যিক ধার্মিকতার হাত থেকে আমাকে ক্ষমা ও রক্ষা করো, আর নির্লজ্জতা থেকে মুক্ত করো তোমার শরীয়তের প্রয়োগের দ্বারা, আমাদের ভন্ডামির দ্বারা সৃষ্ট প্রত্যেকটি মুখোশ যা কিছু আমরা জানি, তার হাত থেকে বাঁচার আর কোনো উপায় নেই, সলিবে তোমার মৃতু্য আমাদের পাপের কাফফারা হিসেবে হয়েছে দত্ত, তা স্বীকার না করে, আর আমরা যে নিয়ত বিশ্বাস করে জীবন যাপন করে চলতে পারি, কেননা তোমার আজ্ঞা আমাদের দোষী সাব্যস্ত করে, আর আমাদের হৃদয়ে একগুয়েমি ও অবাধ্যতার জন্ম দেয়৷ হে প্রভু, আমাকে তোমার হাতে সমর্পণ করি, আমাকে সুস্থ করো, রক্ষা করো, আর একগুয়েমির হাত থেকে বাঁচাও, তোমার জীবনের সাথে আমাকে যুক্ত করে নাও৷

প্রশ্ন:

৪২. শরীয়ত যা ভালো তা কি করে আমাদের মন্দ ও মৃতু্যর কারণ হয়ে দাঁড়ায়?

সেই সময় সেই খাজনা আদায়কারী কিছু দূরে দাঁড়িয়ে ছিল৷
আসমানের দিকে তাকাবারও তার সাহস হলো না
সে বুক চাপড়ে বলল, 'হে আল্লাহ! আমি গুনাহগার;
আমার প্রতি মমতা কর৷'

(লুক ১৮:১৩)

www.Waters-of-Life.net

Page last modified on February 25, 2014, at 01:16 PM | powered by PmWiki (pmwiki-2.2.109)