Waters of Life

Biblical Studies in Multiple Languages

Search in "Bengali":
Home -- Bengali -- Romans - 033 (The Believer Considers Himself Dead to Sin)
This page in: -- Afrikaans -- Arabic -- Armenian -- Azeri -- BENGALI -- Bulgarian -- Cebuano -- Chinese -- English -- French -- Hebrew -- Hindi -- Indonesian -- Malayalam -- Polish -- Portuguese -- Russian -- Serbian -- Spanish -- Turkish -- Urdu? -- Yiddish

Previous Lesson -- Next Lesson

রোমীয়দের - প্রভুই আমাদের ধার্মিকতা
রোমীয়দের কাছে হযরত পৌলের লেখা পত্রের ওপর পর্যালোচনা
প্রথম খন্ড - খোদার ধার্মিকতা সকল পাপীকে দোষী সাব্যস্থ করে, আর মসিহের ওপর বিশ্বাসিদের ন্যায়বান ও আলাদা করে (রোমীয় ১:১৮ - ৮:৩৯)
ডি - পাপের ক্ষমতা থেকে খোদার শক্তি আমাদের উদ্ধার করেন (রোমীয় ৬:১ - ৮:২৭)

১. বিশ্বাসিগণ নিজেদেও পাপে মৃত ভাবলো (রোমীয় ৬:১-১৪)


রোমীয় ৬:১-৪
১. তাহলে কি আমরা এই বলব যে, আল্লাহর রহমত যেন বাড়ে সেজন্য আমরা গুনাহ করতে থাকব? ২. নিশ্চয় না৷ গুনাহের দাবি-দাওয়ার কাছে তো আমরা মরে গেছি; তবে কেমন করে আমরা আর গুনাহের পথে চলব? ৩. এই কথা কি জান না যে, আমরা যারা মসিহ ঈসার মধ্যে তরীকাবন্দি নিয়েছি, আমরা তাঁর মৃুত্যর মধ্যে অংশ গ্রহণ করেই তা নিয়েছি? ৪. আর সেজন্য সেই তরীকাবন্দির দ্বারা মসিরেহ সঙ্গে মরে আমাদের দাফন করাও হয়েছে, যেন পিতা তাঁর মহাশক্তি দ্বারা মসিহকে যেমন মৃতু্য থেকে জীবিত করেছিলেন তেমনি আমরাও যেন নতুন জীবনের পথে চলতে পারি৷

এক থেকে ৫ পর্যন্ত অধ্যায় সমূহে পৌল দেখিয়েছেন, যে কেউ মসিহের উপর বিশ্বাস স্থাপন করেন সেই শরীয়ত মোতাবেক ধার্মিক বলে বিবেচ্য হয় এবং খোদার গজব থেকে পায় মুক্তি৷ রোমীয়দের কাছে তিনি বিশ্লেষণ করেছেন, এ ন্যায়বান বলে ঘোষণার ফলে খোদার স্থানে স্থাপিত হয়েছে আমাদের শান্তি আর জগতের প্রতি জন্মেছে প্রেম৷

প্রাথমিক বিশ্লেষণ করার পরে সাহাবি গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্নের জবাব দিয়েছেন যা হলো, বিনামূল্যে অর্জিত ধার্মিকতার বিপক্ষে খোদাকে দোষারোপ করে শত্রুরা প্রশ্ন করেছিল, 'আমরা কি তবে গুনাহের কাজ চলাতে থাকবো যার ফলে রহমত আরো বেশি পরিমানে প্রকাশ পায়, আর খোদার বিশ্বস্ততা উপচে পড়ে?

এ বিদ্বেষপরায়ন প্রশ্নের জবাবে পৌল তাদের সেই পথে চালনা করলেন যেখানে আমাদের জীবনে পাপের ওপর সম্পূর্ণ বিজয় লাভ হয়, কোনো বিশ্বাসীই মুক্তি পেতে পারে না যদি নিম্নের অংশটি পাঠ ও নিজের জীবনে তা প্রয়োগ না করে৷ আমাদের এ আলোচনা কোনো তাত্তি্বক আলোচনা নয়, কিন্তু পবিত্রতার পথে পৌছে দেবার নিয়মনীতি৷

সাহাবি এ কথা বলেন নি, 'আপনার জ্ঞাত পাপ গুলো নিয়ে সংগ্রাম করে চলুন, আর তার ওপর লাভ করুন বিজয়' তিনি জানতেন কেউই তার নিজের শক্তিতে নিজের পাপের উপর বিজয় অর্জন করতে সক্ষম নয়৷ তিনি আপনাকে আপনার বিরুদ্ধে সংগ্রাম করতে ডাকেন নি, কিন্তু তিনি আপনাকে প্রত্যক্ষ করার জন্য ডেকেছেন যে মৃতু্য ছাড়া আপনার পুরাতন অসত্‍চরিত্র ও পাপের কাফফারা পরিশোধ দেয়ার আর কোনো উপায় অবশিষ্ট নেই৷

পাপের যে শক্তি আমাদের মধ্যে কার্যকর তার কাছে আমরা কি করে মৃতু্য বরণ করব? পৌল সহজ উত্তর দিয়েছেন, 'আমরা মৃত' যেন মন্দ শক্তিকে ধ্বংস করা সহজ৷ মৃতু্যর বিষয়ে তিনি অতীত কালের ভাষায় এর জবাব দিয়েছেন, যেন মৃতু্যর কাজটি ইতোমধ্যে সুসম্পন্ন হয়ে গেছে৷ এর জন্য আমাদের নিজস্ব অধ্যাবসায়ের ওপর নির্ভর করতে বলেন নি, অথবা তা বধ করতে আমাদের সংগ্রাম চালিয়ে যেতে হবে৷ যেমন তিনি দেখিয়েছেন, আমাদের অবগাহন প্রমাণ দেয় আমাদের মন্দ ব্যক্তিটিকে কবর দেয়া হয়েছে, আর স্বার্থপরাতার মৃতু্য হয়েছে৷ মসিহিদের তরীকাবন্দি কেবল আনুষ্ঠানিক প্রথাই নয়, কেবল বাহিরের পবিত্রকরণ নয়, না এটা শরীরে জল ঢেলে দেয়া৷ এ ব্যবস্থাটি হলো বিচার, মৃতু্য ও কবর দেয়া৷ আপনার তরীকাবন্দির দ্বারা আপনি সাখ্য দিচ্ছেন যে আপনার প্রভু আপনার মৃতু্যর হুকুম দিয়েছেন, যা আপনি পালন করছেন জলে ডুব দিয়ে৷ মরণ হলো পুরাতন মানুষটিকে বাদ দেয়া, আসলে মাংসিক মৃতু্য নয় কিন্তু রুহানি বা আত্মিক মৃতু্য যা মসিহের বিজয়ি মৃতু্যতে অংশ গ্রহণ করা বুঝানো হয়৷ আমাদের তরীকাবন্দি মসিহের সাথে চূড়ান্তভাবে মিলন বুঝানো হয়ে থাকে, প্রেমের চুক্তিতে আমাদের উম্মুক্ততা প্রেমে হলো সম্পন্ন৷ আর তার সাথে আজীবন সংযুক্ত থাকাই হলো বিশ্বস্ত প্রেমের দৃষ্টান্ত৷

মসিহ যখন আমাদের পাপভার তুলে নিলেন, আমাদের গর্বসহ আমরা তাঁর সাথে মৃতবত্‍ হলাম৷ সলিবের তাত্‍পর্য হলো দুষ্ট লোকটিকে ধ্বংস করে দেয়া৷ যে কেউ মসিহে বিশ্বাস করে সে অবশ্যই নিজেকে অস্বীকার করত: সলিব তুলে নেয়, স্বীকার করে সকল মানুসের নিত্যদিন মৃতু্য হওয়া আবশ্যক৷ মনঃস্তাতি্বক যুদ্ধে আমাদের মৃতু্য ঘটে না৷ ইতোপূর্বে তা হয়ে গেছে, মসিহ যখন সলিবে মরণদায়ী যন্ত্রণায় চিত্‍কার করে বলেছিলেন, 'সমাপ্ত হলো'৷ আপনি যদি বিশ্বাস করেন তবে আপনি পাপের ক্ষমতা থেকে নাজাত পাবেন৷

মসিহ মৃতু্য বরণ ও কবরপ্রাপ্ত হয়েছেন আমাদের কেবল তাঁর মৃতু্য ও কবরে শেষ করে দেবার জন্যই নয় বরং তিনি মৃতু্য থেকে পুনরুত্থিত হয়েছেন বিধায় আমাদের টেনে তুলেছেন তাঁর পুনরুত্থানে ও দান করেছেন অনন্ত জীবন৷ তাছাড়া আমাদের আত্ম অস্বীকৃতি করায় তাঁর ক্ষমতা ও অনন্ত জীবন যুক্ত হবার সুযোগ পেয়েছি৷ তাই আমাদের বিশ্বাস কেবল প্রজ্ঞা ও মতবাদই নয়, কিন্তু আমাদের মধ্যে ক্রমবৃদ্ধি লাভ করা তার শক্তি, যেন মসিহ আমাদর মধ্যে জন্ম লাভ করেছেন৷ তিনি কলায় কলায় বেড়ে উঠছেন, বিজয় লাভ করছেন আর আমাদের মধ্যে যতপ্রকার মন্দ কাজ রয়েছে ওগুলোর ওপর করছেন বিজয় লাভ৷ আমরা বিজয় লাভ করিনি, কিন্তু তিনিই আমাদের মধ্যে বিজয় লাভ করেছেন৷

মৃতু্য থেকে পুনরুত্থান হলো আমাদের প্রভু মসিহের পিতার এক মহান বিজয় অর্জন৷ তাঁর পুরুত্থানের মধ্য দিয়ে তিনি তাঁর অনন্তকালীন বিজয় আর অবিচল ধার্মিকতার ঘোষণা দিয়েছেন, তার পুত্রকে বরণ করে নিয়েছেন, তার নিজয় মৃতু্যর ওপর আর পূতপবিত্র জীবনের প্রকাশের মাধ্যমে৷ মসিহের পুনরুত্থানের মধ্য দিয়ে খোদার ক্ষমতার দৃশ্যমান প্রকাশ ঘটেছে৷ তার পুনরুত্থিত জীবন তাদের মধ্যে কর্মরত যারা তাঁর ওপর বিশ্বাস স্থাপন করেছেন, নিজেদের মসিহের সাথে যুক্ত করে নিয়েছেন৷ মসিহিয়াত মৃতু্য বা ভয়ের ধর্ম নয়৷ এটি প্রত্যাশা, জীবন ও পরাক্রমের ধর্ম৷

মসিহের প্রতি আমাদের আরাধনার মধ্য দিয়ে আমরা স্বীকার করি, তিনি আমাদের থেকে দূরে অবস্থান করছেন না, তারকার রাজ্যে তাঁর নিবাস নয়, অথবা কদাচিত তিনি আমাদের নিয়ে ভাবেন তেমন নয়৷ পরিবর্তে আমরা দেই, ঘোষণা তিনি আমাদের সাথে যুক্ত রয়েছেন অবিচ্ছেদ্যভাবে, আর তিনি তার পরিপূর্ণ পরাক্রম নিয়ে আমাদের মধ্যে বসবাস করে চলছেন, সর্বক্ষণ আমাদের সাথে থাকেন, আর পবিত্র আচরণের জন্য করেন পরিচালনাদান৷ এটাই হলো আপনার তরীকাবন্দি মসিহের সাথে তাঁর মৃতু্য ও জীবন আর আপনার বিশ্বাস হলো তার সাথে সম্পাদিত একটি নতুন চুক্তি৷ যিনি নিজেকে মসিহের সাথে যুক্ত করেন, স্বীকার করেন তিনিও মসিহের সাথে সলিবে মৃতু্যবরণ করেছেন, হয়েছেন তাঁর মধ্যে পুনরুত্থিত ফলে তিনি পেলেন এক নতুন জীবন৷

প্রার্থনা: প্রভু মসিহ, আপনি সলিবে আমার মৃতু্য সম্পন্ন করেছেন, আর ঘোষণা দিয়েছেন, আপনার পুনরুত্থানের সাথে আমার জীবন হয়েছে যুক্ত, পুনরুত্থিত৷ আমি সকলকে নিয়ে অর্থাত্‍ যারা বিশ্বাস করে আপনার আরাধনা করি, যারা বিশ্বাসে মৃতু্যবরণ করেছেন, আর আপনার সাথে রুহানিভাবে হয়ে উঠেছেন পুনর্জাত৷ আমি আপনার আরাধনা করি, মহিমাময় পিতা, আপনার পুত্রের পুনরুত্থানের মধ্য দিয়ে আপনার মহিমা আমাদের কাছে প্রকাশ করার জন্য ধন্যবাদ দেই, আর আপনার জীবন আমাদের মধ্যে প্রবাহিত করার জন্যও প্রশংসা করি৷ আমাদের সাহায্য করো যেন রহমতে এগিয়ে চলতে পারি আর পবিত্রতায় তাঁর আজ্ঞানুরুপ সংযম, বিশ্বস্ততা, প্রেম ও ধৈর্য নিয়ে জীবন যাপন, করতে পারি, যার ফলে সকল ইমানদারদের জীবন দিয়ে তোমার জীবনাদর্শ প্রকাশ পায়৷

প্রশ্ন:

৩৭. তরীকাবন্দির তাত্‍পর্য বলতে কি বুঝায়?

জবাবে পিতর বললেন,
'আপনারা প্রত্যেকে গুনাহের মাফ পাবার জন্য
তাওবা করুন এবং ঈসা মসিহের নামে তরীকাবন্দি
গ্রহণ করুন৷ আপনারা দান হিসেবে পাকরূহকে পাবেন৷

(প্রেরিত ২:৩৮)

www.Waters-of-Life.net

Page last modified on February 25, 2014, at 01:11 PM | powered by PmWiki (pmwiki-2.2.109)