Waters of Life

Biblical Studies in Multiple Languages

Search in "Bengali":
Home -- Bengali -- Romans - 016 (He who Judges Others Condemns Himself)
This page in: -- Afrikaans -- Arabic -- Armenian -- Azeri -- BENGALI -- Bulgarian -- Cebuano -- Chinese -- English -- French -- Hebrew -- Hindi -- Indonesian -- Malayalam -- Polish -- Portuguese -- Russian -- Serbian -- Spanish -- Turkish -- Urdu? -- Yiddish

Previous Lesson -- Next Lesson

রোমীয়দের - প্রভুই আমাদের ধার্মিকতা
রোমীয়দের কাছে হযরত পৌলের লেখা পত্রের ওপর পর্যালোচনা
প্রথম খন্ড - খোদার ধার্মিকতা সকল পাপীকে দোষী সাব্যস্থ করে, আর মসিহের ওপর বিশ্বাসিদের ন্যায়বান ও আলাদা করে (রোমীয় ১:১৮ - ৮:৩৯)
ক - গোটা বিশ্ব দুষ্টচক্রের প্রভাবে পড়ে আছে, হচ্ছে পরিচালিত, খোদা তাঁর ধার্মিকতার আলোকে তাদের বিচার করবেন (রোমীয় ১:১৮ - ৩:২০)
২. ইহুদিদেও বিরম্নদ্ধে খোদার গজব প্রকাশ পেল (রোমীয় ২:১ - ৩:২০)

ক) যে কেউ অন্যের বিচার করে সে তো পরিষ্কার নিজেকে দোষী সাব্যস্থ করছে (রোমীয় ২:১-১১)


রোমীয় ২:৩-৫
৩ যে কাজের জন্য তুমি অন্যদের দোষ দিচ্ছ সেই একই কাজ যখন তুমি নিজেও কর তখন কি আল্লাহর শাস্তির হাত থেকে রেহাই পাবে বলে মনে কর? ৪ তুমি তো আল্লাহর অশেষ দয়া, সহ্যগুণ ও ধৈর্যকে তুচ্ছ করছ৷ তুমি ভুলে গেছ আল্লাহর এই দয়ার উদ্দেশ্য হল তোমাকে তওবা করবার পথে নিয়ে আসা৷ ৫ কিন্তু তোমার মন কঠিন; তুমি তো তওবা করতে চাও না৷ সেজন্য যেদিন আল্লাহর গজব প্রকাশ পাবে সেই দিনের জন্য তুমি তোমার পাওনা শাস্তি জমা করে রাখছ৷ সেই সময়েই আল্লাহর ন্যায়বিচার প্রকাশ পাবে৷

আপনি কি জানেন সবচেয়ে ঘৃণিত নোংরামি কি? সবচেয়ে ঘৃণাস্পদ নোংরামি হলো ভন্ডামি, ব্যভিচার, অংহকার খোদার প্রতি অবজ্ঞার চেয়েও মারাত্মক হলো একটি৷ একজন ভন্ড ধার্মিকতা, সরলতা, দয়াশীলের ভান করে চলে, অথচ ভিতরে ও অন্তরে সম্পূর্ণ মিথ্যাচারে থাকে ভরা, থাকে অপবিত্র ও প্রবঞ্চনায় ভরা৷ সে খোদার কাছে ঘৃণার পাত্র৷ পূতপবিত্র খোদা আপনার মুখের ওপর থেকে ঘোমটা খুলে ফেলবেন, আর সকল মানুষের সামনে নগ্ন করে দেখাবেন, তথা সকল ফেরেশতা, সাধুসন্ত, আপনার পাপের বিষয় সকলে দেখতে পাবে, কেননা, তাদের সম্মুখে আপনি ধার্মিক বলে পরিচয় দিতেন, যা সম্পূর্ণ মিথ্যাচার৷ আপনার অপবিত্রতা এতটাই অধিক যা আপনি আদৌ জানেন না৷ মিথ্যা প্রত্যাশার ওপর নির্ভর করবেন না৷ উড়ো জাহাজে যাত্রীদের ভালোভাবে পরীক্ষা নিরীক্ষা না করে প্রবেশ করতে দেয়া হয় না, তদ্রুপ পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে পরীক্ষা নিরীক্ষা না করে কাউকে বিচারের দরবার থেকে অতিক্রম করতে দেয়া হবে না৷ মৃতু্য-ঘন্টাকে কেন সকলে এতটা ভয় পায়, আর ভয়ানক কেয়ামতের দিনের বিষয়ে প্রকম্পিত হয় কেন? কারণ হলো, উক্ত সময় লোকজন দ্রুত বুঝতে পারবে তারা যা কিছু অবহেলা করেছে, তাদের জীবনের গুরুত্বপূর্ণ সুযোগ, আর তারা ভয়াবহ বিচারের দন্ডের সামনে দন্ডায়মান৷

সেই বিচারের দিনে, বিশ্বের সকল ব্যক্তি, উচু ও নিচু, জ্ঞানী ও বোকা, বৃদ্ধ ও যুবা, পুরুষ ও নারী, ক্রীতদাস অথবা স্বাধীন সকলে খোদার সামনে একসংগে দাঁড়াবে৷ তারপর আমল নামার পুস্তকখানি খোলা হবে, যাতে লেখা থাকবে তাদের ক্রিয়াকর্ম, চিন্তা ও বাক্য, সকল লোকের৷ বিষয়টি অনুধাবন উপলব্ধি করা আমাদের জন্য আদৌ কষ্টকর হওয়ার কারণ নেই, কেননা আমরা বাস করি অত্যাধুনিক রেকর্ড করার যুগে, নিরীক্ষণ ক্যামেরা এবং ক্ষুদে ফিল্ম রয়েছে আমাদের হাতে, তাই মাবুদের পক্ষে সমস্ত কর্মকান্ড ধরে রাখা কতইনা সহজ, তাঁর প্রত্যেক সৃষ্টির বিসয় তাঁর কাছে রয়েছে সুরক্ষিত৷ অনন্তকালের না সময়ের তাড়া বা তাড়াহুড়ো করার প্রয়োজন রয়েছে, খোদার হাতে যথেষ্ঠ সময় আছে, আপনার আমার সবকিছু তন্নতন্ন করে পরীক্ষা করার যথেষ্ঠ সময় আছে৷ নিজেকে সমর্থন করার জন্য আপনাকে কোনো কিছু বলার প্রয়োজন হবে না৷ তিনি হৃদয়-মন পরীক্ষা করে দেখেন, অন্যের ওপর দোষ চাপানোর কোনো ফল ফলবে না, অথবা আপনার শিক্ষক ও অন্য লোকজন সহচরকে দোষারোপ করার ফলও ফলবে না৷ আপনি অভিযুক্ত দোষী৷ খোদা আপনাকে দোষী বলে সাব্যস্থ করেছেন৷ তাই নিজেকে প্রস্তুত করুণ মহান বিচারকের সম্মুকে দাড়াবার জন্য৷ আপনি কখনোই রেহাই পাবেন না বা বিচার দন্ড বা বিচারের কাঠগড়া থেকে এড়িয়ে যেতে পারবেন না৷

খোদার মহিমা প্রকাশের মাধ্যমে অদ্যই চিনে নিন, আপনি সম্পূর্ণ কলুষিত৷ গজগজ করতে শুরু করবেন না, শোকে মুহ্যমান হয়ে লাভ নেই, ব্যাথাকাতর হলেও সুফল ফলবে না, খোদার সামনে আপনার পাপ স্বীকার করুন, নিজেকে অস্বীকার করুন, নিজের দোষ স্বীকার করুন, আর প্রকাশ্যে বলুন আপনি যা কিছু করেছেন৷ অপরাধের কাজের ফিরিশতি লুকাবেন না, পবিত্র জনের সম্মুখে প্রকাশ করুন যে আপনি চিন্তা, চেতনা ও কাজে কর্মে একটা দুষ্ট ব্যক্তি৷ আপনার এ ভগ্নচূর্ণ আত্মাই হলো নাজাতের পথে চালনা করা৷ একটি উটের পক্ষে সুঁচের ছিদ্র দিয়ে প্রবেশ করা যতটা কঠিন তার চেয়ে অধিক কঠিন হবে একজন অহংকারি ব্যক্তির পক্ষে বেহেশতে প্রবেশ লাভ করা৷

যাহোক, খোদা হলেন রহমতের পারাবার৷ তিনি হিংস্রভাবে তাঁর সৃষ্টি ধ্বংস করেন না৷ অনুতপ্ত পাপীকে তিনি মহব্বত করেন, যে কিনা পাপের পথ সম্পূর্ণ পরিত্যাগ করার দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করে৷ খোদা জানেন, সকলে বিনষ্ট, তাঁর পবিত্রতার কাছে কেউই ধার্মিক বলে বিবেচিত নয়৷ তিনি ধৈর্যশীল৷ সম্পূর্ণ প্রেম ও দয়ায় পরিপুষ্ট৷ তাঁর মহব্বত ও করুণার কারণে তিনি চান না গুনাহগার তাত্‍ক্ষণিকভাবে ধ্বংস হয়ে যাক৷ তাঁর ন্যায়পরায়নতা বিচারের দাবি রাখে আর প্রত্যেকের জেরা করা বা বিচার করা অপরিহার্য, কিন্তু তার দয়া আমাদের আর একটি সুযোগ দেয় তওবা করে মন পরিবর্তনের৷ আমরা সকলে বেঁচে আছি সুপারিশক্রমে৷ নিঃসন্দেহে, তিনি এক আঘাতেই গোটা বিশ্ব শেষ করে দিতে পারেন, আর সে অধিকারও তাঁর রয়েছে, কিন্তু খোদা আমাদের রক্ষা করেন এবং করুনা করেন, কোনো কিছুই দ্রুত করেন না, সকলের মনের পরিবর্তনের জন্য ও তাঁর দিকে ফিরে আসার জন্য প্রত্যাশায় আছেন৷ দুখে ভেঙ্গে পড়ে আপনি কি অনুতাপ করেছেন খোদার কাছে, তাঁর কাছে কি ফরিয়াদ করেছেন আপনার মধ্যে এক নতুন হৃদয় সৃষ্টি করে দেবার জন্য আর সঠিক আত্মা অর্থাত্‍ পাকরূহ সৃষ্টি করার জন্য? আপনি কি খোদার দয়া আপনার মধ্যে কাজ করার জন্য সুযোগ করে দিয়েছেন, যেন তা আপনার পাপরাজি ধার্মিকতার পোশাকে ঢেকে রাখার জন্য? আপনি কি খোদার মহব্বত ও রহমতকে অবজ্ঞা করেছেন, নিজেকে মিথ্যা যুক্তি ও মতবাদের ওপর নির্ভর করার জন্য, যেন বিচারের মুহুর্তটি পাস কাটিয়ে চলা যায়? মহাবিচারের দিনটি অবধারিত, যে নিজেকে অস্বীকার না করেছে, আর মাংসিক কামনা বাসনার কাছে মারা না গেছে, যে হৃদয় মন দিয়ে মাংসিক সুখ ভোগ প্রত্যাখ্যান না করে, খোদা ক্লান্তিতে তন্দ্রাচ্ছন্ন হন না অথবা ঘুমিয়ে পড়েন না, ভালভাবেই জানেন প্রত্যেকটি ব্যক্তির প্রকৃত কর্মকান্ড চিন্ত চেতনা ধ্যান ধারণা৷

খোদার দয়ার ওপর দৃঢ়ভাবে স্থীর থাকুন, আপনি নাজাত পাবেন৷ তাঁর করুণার মধ্যে সাগ্রহে প্রবেশ লাভ করতে থাকুন, আপনিও প্রত্যাশা লাভ করবেন৷ আপনার মনের পরিবর্তন করুন, খোদার মহব্বত চিনতে চেষ্টা করুন আর তাঁর মহব্বতের মাধ্যমেই তার প্রকৃত পরিচয় পাবেন৷ তিনি মহব্বতের পিতা, সেচ্ছাচারি একনায়ক নন, ডিক্টেটর নিজের খেয়াল খুশিমতো কাাজ করে, কার কি ক্ষতি হলো তাতে তার কিছুই এসে যায় না৷ খোদা দেখতে পান, শুনতে পান, আপনার বিষয় সবই জানেন৷ তিনি আপনার দাদা পর দাদা সকলকেই জানেন, আপনার পুর্বাবর সব ইতিহাস রয়েছে তাঁর জানা, আপনার চারপাশ রয়েছে তাঁর জানা, যা কিছু আপনার চরিত্র গঠনে ভূমিকা রেখেছে তার সবকিছুই আছে তার জানা৷ তিনি আপনার প্রলোভনগুলো জানেন, জানেন আপনার বিশ্বাসঘাতকতাপূর্ণ আকাঙ্খা৷ খোদা ন্যায়বান৷ তিনি উত্তম, ন্যায় কাজ করার জন্য পদক্ষেপ নিয়ে থাকেন, আর আমাদের ওপর বর্শন করেন করুনার ওপর করুনা৷ তিনি আপনাকে ক্ষমা করার জন্য প্রস্তুত, পাক সাফ করার জন্য উদগ্রীব, যদি আপনি সম্পূর্ণভাবে তাঁর হাতে সমর্পিত হন, আপনার ঘৃণিত আত্মা সম্পূর্ণ প্রত্যাখ্যান করুন, দোষ স্বীকার করুন, তাঁর নামে মনস্থির করে পাপাচার ত্যাগ করুন৷

দুঃখ তো আপনার জন্য অপেক্ষা করছে, কারণ খোদার পবিত্রতা ও দয়ার খবর জানার পরেও আপনি অনুতপ্ত হচ্ছেন না৷ উপরন্তু আপনার হৃদয় আরো কঠিন হয়ে চলছে, আর মন হচ্ছে অন্ধ৷ একরোখা, ভন্ড, সত্য থেকে যখন স্খলিত, হয় তখন সে নিজে আর ফিরতে পারে না৷ সে না পারে শুনতে, না পারে বুঝতে খোদার আহ্বান যা থাকে তার জন্য অপেক্ষামান৷ সে খোদার কালাম না বুঝেই পাঠ করে, যার প্রতিক্রিয়া তার ওপর বর্তায় না৷ তাই সময় থাকতে অনুতপ্ত হোন, অর্থাত্‍ অদ্যই, এবং নাজাত রক্ষা করার দিকে হুশিয়ার হোন, ব্যতিক্রমি কিছু ঘটার পূর্বেই৷

সেই ভয়ানক মুহুর্তে খোদার গজব জ্বলে ওঠবে বিশেষ করে তাদের ওপরে যারা তাঁর দয়ার কথা শুনার পরেও তা তুচ্চ করেছে৷ আর অনুতপ্ত হৃদয় নিয়ে তাঁর কাছে ফিরে আসতে অস্বীকার করেছে৷ শেষ বিচারের দিনে তারা হতাশার মধ্যে থাকবে যারা তাদের রুহানি অধিকারকে অপব্যবহার করেছে আর খোদার কাছে পাপ, ঘৃণা, লজ্জা, দোষত্রুটি ও অবিচার ছাড়া কিছুই নিয়ে আসে নি৷ তাদের এবংবিধ আচরণ অবশ্যই প্রকাশিত হয়ে পড়বে, দোষারোপ করা হবে, এবং ঘৃণিত হবে শেষ বিচারের সময়, কারণ তারা না অনুতপ্ত হয়েছে না তাদের পাপের কথা স্বীকার করেছে৷

প্রার্থনা: হে পবিত্র প্রভু, তোমার পাকরূহের পরিচালনায় আন্তরিক অনুসোচনা আমার হৃদয়ে সৃষ্টি করো৷ তোমার পবিত্রতার কাছে আমাকে ফিরিয়ে নাও, কেননা আমার ফিরে আসা পরিপূর্ণতা পায় নি৷ আমাকে সাহায্য করো যেন তোমার প্রেম ও পবিত্রতা আমি অবজ্ঞা না করি, আমার অধৈর্য সত্ত্বেও তোমার ধৈর্য স্বীকার করতে পারি৷ হে প্রভু, তোমার ধার্মিকতার ক্রোধে আমি ধ্বংস হয়ে যাবো৷ তোমার ক্রোধে আমাকে দোষারোপ করো না, তোমার অনুকম্পায় আমাকে সুশিক্ষা দাও৷ আমার মধ্যে সকল অহমিকা ধ্বংস করে ফেলো, যেন আমি নিজের কাছে মৃতবত্‍ হতে পারি এবং তোমার করুণায় বাঁচতে পারি৷ সর্বপ্রকার ভন্ডামি থেকে আমাকে অবমুক্ত করো, আমাকে কাঠিন্যের হাতে তুলে দিও না৷ তুমিই আমার বিচারক ও নাজাতদাতা৷ কেবল তোমার ওপরই আমি আস্থা রাখি৷

প্রশ্ন:

২০. কোন গোপন বিষয়টি পৌল আমাদের কাছে প্রকাশ করেছেন খোদার বিচারের বিষয়ে?

www.Waters-of-Life.net

Page last modified on February 25, 2014, at 12:42 PM | powered by PmWiki (pmwiki-2.2.109)