Waters of Life

Biblical Studies in Multiple Languages

Search in "Bengali":
Home -- Bengali -- Romans - 077 (Paul’s Expectations in his Journeys)
This page in: -- Afrikaans -- Arabic -- Armenian -- Azeri -- BENGALI -- Bulgarian -- Cebuano -- Chinese -- English -- French -- Hebrew -- Hindi -- Indonesian -- Malayalam -- Polish -- Portuguese -- Russian -- Serbian -- Spanish? -- Turkish -- Urdu? -- Yiddish

Previous Lesson -- Next Lesson

রোমীয়দের - প্রভুই আমাদের ধার্মিকতা
রোমীয়দের কাছে হযরত পৌলের লেখা পত্রের ওপর পর্যালোচনা
তৃতীয় খন্ডের পারশিষ্ট - রোমের জামাতের নেতাদের প্রতি পৌলের বিশেষ ইচ্ছা৷ (রামীয় ১৫:১৪ - ১৬:২৭)

৩. পৌলের প্রচার অভিযান যা প্রত্যাশা করেছিলেন (রোমীয় ১৫:২২-৩৩)


রোমীয় ১৫:২২-৩৩
২২. এজন্যই আমি তোমাদের কাছে অনেক বার যেতে চেয়েও বাধা পেয়েছি৷ ২৩. কিন্তু এখন এই সব এলাকায় আমার কাজ করবার আর জায়গা নেই৷ অনেক বচর ধরেই তোমাদের কাছে আমার যাবার ইচ্ছা, ২৪. তাই এখন স্পেন দেশে যাবার পথে আমি তোমাদের কাছে যেতে চাইছি৷ আমি আশা করি যে, ঐ পথ দিয়ে যাবার সময়ে তোমাদের কাছে যেতে পারব এবং তোমাদের সঙ্গে কিছু সময় আনন্দে কাটাবার পর তোমরাই আমাকে স্পেন দেশে যাবার ব্যবস্থা করে দেবে৷ ২৫. কিন্তু এখন আমি আলস্নাহর বান্দাদের সাহায্য করবার জন্য জেরম্নজালেমে যাচ্ছি, ২৬. কারণ জেরম্নজালেমে আলস্নাহর বান্দাদের মধ্যে যে সব গরীব লোক আছেন তাঁদের ম্যাসিডোনিয়া ও আখায়ার জামাতগুলোর লোকেরা কিছু চাঁদা তুলেছেন৷ ২৭. এই চাঁদা তাঁরা খুশী হয়েই তুলেছেন৷ এছাড়া এই জামাতগুলো জেরম্নজালেমের আলস্নাহর বান্দাদের কাছে ঋণী, কারণ ইহুদিরা যখন তাদের রম্নহানি দোয়ার ভাগ অ-ইহুদিদের দিয়েছে তখন অ-ইহুদিদেরও উচিত সাংসারিক বিষয়ে ইহুদিদের সাহায্য করা৷ ২৮. আমার এই কাজ শেষ হলে পর আমি যখন জানব যে, সেই চাঁদা ঠিকমত পৌছেছে তখন তোমাদের কাছে হয়ে আমি স্পেনে যাব৷ ২৯. আমি জানি যখন আমি তোমাদের কাছে যাব তখন মসিহের পরিপূর্ণ দোয়া নিয়েই যাব৷ ৩০. ভাইয়েরা, আমাদের হযরত ঈসা মসিহের মধ্য দিয়ে এবং পাকরূহের দেওয়া মহব্বতের মধ্য দিয়ে আমি তোমাদের বিশেষভাবে অনুরোধ করছি, তোমরা আলস্নাহর কাছে আমার জন্য আমার সঙ্গে মুনাজাতের যুদ্ধ চালাতে থাক৷ ৩১. তোমরা মুনাজাত কর, এহুদিয়াতে যারা আলস্নাহকে অমান্য করে তাদের হাত থেকে যেন আমি রক্ষা পাই, আর জেরম্নজালেমের আলস্নাহর বান্দারা যেন আমার এই সাহায্য গ্রহণ করেন৷ ৩২. তখন ইনশাআলস্নাহ আমি খুশী মনেই তোমাদের কাছে যেতে পারব এবং তোমাদের সঙ্গে থেকে প্রাণ জুড়াব৷ ৩৩. শানত্মিদাতা আলস্নাহ তোমাদের সকলের সঙ্গে সঙ্গে থাকুক৷ আমিন৷

মানুষ করে চিনত্মা আর খোদা করেন পরিচালনা দান৷ পৌল তাঁর হৃদয়ের মধ্যে প্রচারাভিযান নিয়ে চিনত্মা করেছেন, তাঁর ঐকানত্মিক আগ্রহ প্রকাশ করেছেন, আর এ বিষয়ে মুনাজাত করে চলছেন৷ ভূমধ্য সাগরের পূর্ব এবং উত্তর তীরবতর্ী অঞ্চলে তিনি প্রচার কার্য চালিয়েছেন, উক্ত এলাকায় তিনি অসংখ্য জামাত প্রতিষ্ঠা করেছেন, যদিও তার ওপর মারাত্মক নির্যাতন করা হয়েছিল তবুও তিনি তাঁর কাজে নিবৃত্ত হন নি৷ তার পরে তিনি রোমান রাজ্যের পশ্চিমাঞ্চলে প্রচার কাজের জন্য মনোনিবেশ করলেন৷ তাছাড়া ইউরোপের উত্তরে শীতের ঠান্ডা এলাকাতেও প্রচারের ইচ্ছা প্রকাশ করেন৷ উদ্দেশ্য হলো গোটা বিশ্ব মসিহের ছায়া তলে অর্থাত্‍ খোদার পুত্রের ছায়াতলে শানত্মির রাজ্যে নিয়ে আশা৷

পৌল স্বীকার করেন, তিনি বহুবার চেষ্টা করেছিলেন রোম শহরে প্রতিষ্ঠিত জামাতের সাথে দেখা করবেন, তাদের বিশ্বাস বৃদ্ধি কল্পে, প্রেম বাড়িয়ে দিতে, প্রত্যাশায় জাগ্রত করা ছিল এর মূল উদ্দেশ্য৷ কিন্তু এশিয়া মাইনর ও গ্রীসের সমস্যার কারণে হতাশ হতে হয়েছে ও প্রচারের ও ভ্রমণের বিষয়ে৷

বহু বছর ধরে তিনি রোমে যেতে চেয়েছিলেন ওখানকার জামাতের সাথে পরিচিত হবার জন্য, আসলে উক্ত জামাতগুলো প্রতিষ্ঠা লাভ করেছিলো তাঁর যাবার পূর্বেই, তবুও তিনি তাদের রম্নহানি প্রবৃদ্ধির জন্য অনুপ্রাণিত হলেন৷ স্পেনে তাঁর সফরের সময় তিনি ইচ্ছা পোষণ করেছিলেন কিছুদিনের জন্য তথায় যাত্রা বিরতি করার যেন জামাতের সদস্যদের সাথে সম্পর্ক স্থাপন করতে পারেন৷ তিনি প্রত্যাশা করেছিলেন, স্পেনে তাঁর নতুন প্রচার কাজে রোমের জামাত যেন তাকে সাহায্য করে৷ আর প্রার্থনার মাধ্যমে সার্বিক সহযোগিতা, দান দশমাংশ দিয়ে তারা এ অভিযানে যুক্ত থাকে যাতে করে তাঁর এ সেবাধমর্ী কাজটি কেবল তাঁর একক উত্‍সাহে গড়ে ওঠেনি বরং রোমের জামাত সমূহের সাধুদের প্রার্থনা, সহভাগিতা ও অবদানের সার্বিক সহযোগিতার ফলেই তা সম্ভব হয়েছে৷ পৌল নিজের কাছে দায়বদ্ধ মনে করেছিলেন প্রচার কাজে শুরম্নটা হবে জেরম্নজালেম থেকে সংগ্রহ করে ও গ্রীসের জামাত থেকে দান সংগ্রহ করে মূল জামাতের গরীব সদস্যদের মধ্যে বিতরণ করার উদ্দেশ্যে৷ কেননা তাদের বিশ্বাসের গভীরতার ফলে জমা-জমি বিক্রি করে মসিহের পুনরাগমনের অপেক্ষা করছিলেন, আর সে কারণে তারা দরিদ্র ও ক্ষুধাকাতর হয়ে পড়েছিলেন৷ গ্রীস ও আনাটোলিয়ার নতুন জামাতের সদস্যদের তিনি শিক্ষা দিলেন, উক্ত প্রচার কাজের ফলে তিনি যে অভিজ্ঞতা অর্জন করেছিলেন তার আলোকে, বিশ্বাসে দৃঢ় ও মজবুত ও অধ্যাবসায়ী হতে প্রেরণা যোগালেন৷ তিনি তাদের শিক্ষা দিলেন প্রজ্ঞা সহকারে কাজ করার জন্য, যেন মসিহের আগমনের অপেক্ষার কারণে তাদের জীবন-জীবিকার ক্ষেত্রে কোনো ঘাটতি না পড়ে অথবা বিশ্বাস থেকে সরে পড়তে না হয়৷ থিষলিনিকিয় জামাতের কাছে তিনি লিখেছেন, যে কাজে অনিহা প্রকাশ করে সে যেন না খেয়ে থাকে (থিষিলিনীয় ৩:১০)৷ যাহোক, জেরম্নজালে অবস্থিত জামাতের গরীব লোকদের আর্থিক সাহায্যের প্রয়োজন ছিল, যা পৌলের প্রতিয়মান হয়েছিল, আর অইহুদিদের মধ্য থেকে আগত বিশ্বাসীগণ সাহায্য দেবার জন্য আগ্রহী ছিলেন৷

প্রেরিত বলেছেন, অইহুদিদের মধ্য থেকে আগত বিশ্বাসিদের নতুন জামাতের সদস্যদের মূল ইহুদি বংশোদ্ভুত বিশ্বাসীদের সাথে সমন্বয়ে ও ঐকে কাজ করা প্রয়োজন, কেননা প্রভু প্রথমে ইহুদিদের আশির্বাদ করেছেন জেরম্নজালেমে প্রতিষ্ঠিত প্রথম জামাত, যারা তাদের কাছে দত্ত রম্নহানি আশির্বাদ ও প্রজ্ঞা মুক্তহসত্মে বিনামূল্যে সকলের মধ্যে বিতরণ করেছেন, সকলকে করে তুলেছেন সমৃদ্ধ৷ সুতরাং, পৌল লিখেছেন, নতুন জামাতের মধ্যে যারা নতুন জন্মের অভিজ্ঞতা লাভ করেছেন অর্থাত্‍ অইহুদিদের মধ্য থেকে তাদের নৈতিক দায়িত্ব রয়েছে জেরম্নজালেমের বিশ্বাসীদের প্রতি তাদের জাগতিক চাহিদা পুরণ করার বিষয়ে৷ পৌলের বক্তব্য অনুযায়ী আমরা বলতে চাই, অভাবি লোকদের সাহায্য করা হলো একটি পবিত্র দায়িত্ব যা সর্বক্ষেত্রে এবং সকল সময়ে কার্যকর থাকবে৷

তিনি যখন আর্থিক সাহায্য নিয়ে জেরম্নজালেমে পৌছালেন, পৌল তখন রোম শহরের মধ্য দিয়ে স্পেনে যেতে চেয়েছিলেন তাদের জন্য মসিহের পরিপূর্ণ আশির্বাদ নিয়ে তথায় যেতে চেয়েছিলেন৷ তিনি নিজে নিজে অনুভব করেছিলেন, জেরম্নজালেমে তার প্রচার যাত্রা একটি মারাত্মক সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়ে ছিল, কেননা তিনি স্থানীয় জামাতের আওতায় অবস্থান করতে, যেখানে মুসা নবীর কাছে দত্ত শরীয়তের প্রভাব ছিল কঠিনভাবে৷ তিনি তাদের আপত্তি বুঝতে পেরেছিলেন যে অইহুদিদের মধ্য থেকে অর্থাত্‍ শরীয়তের বাইরের লোকদের জড়ো করেছে মসিহের অনুসারী হিসেবে৷ ইহুদিদের মধ্য থেকে আগত মসিহের অনুসারীগণেরও যথেষ্ট আপত্তি ছিল অইহুদিদের মধ্য থেকে বিশ্বাসীদের সাথে একই সহভাগিতায় মিলিত হবার প্রশ্নে৷ অধিকন্তু, ফরিশি ও সদ্দুকীদের শত্রম্নতা ছিল প্রত্যক্ষভাবে পৌলের বিরম্নদ্ধে, তারা সিদ্ধানত্ম নিয়েছিল পৌলকে হত্যা করার৷ তাই রোমের বিশ্বাসীদের কাছে পৌল অনুরোধ করেছিলেন মসিহের নামে তারা যেন তাঁর প্রতিরক্ষার জন্য প্রার্থনা করে, আর তাঁর রম্নহানি যুদ্ধে সত্যের পক্ষে তাঁর সাহায্য করে, এবং তারা যেন বুঝতে পারে, শরীয়ত পালনের দ্বারা মানুষ নাজাত লাভ করে না, নাজাত কেবল খোদার রহমতে হয় অর্জিত৷ মসিহ তেকে যে সকল ইহুদিরা দূরে সরে থাকতো তিনি তারেদ অবিশ্বাসী হিসেবে সাব্যস্থ করেছেন, আর এরাই পৌলকে হত্যা করার হুমকি দিয়েছিল ও হত্যা করেছিল৷ জেরম্নজালেমে যে মারাত্মক বিপদ তাঁর জন্য অপেক্ষা করছিল তা জানা সত্ত্বেও তিনি সেখানে অর্থাত্‍ মারাত্মক স্থানে যাবার জন্য আগ্রহে ক্ষানত্ম হলেন না, যেমন তাঁর পূর্বে মসিহ এগিয়ে গিয়েছিলেন তেমন মারাত্মক শহরে যেখানে তাকে হত্যা করা হয়েছিল৷ ওই শহরে আমাদের জন্য মসিহ প্রাণ দিলেন, আর কবর থেকে পুনরম্নত্থিত হলেন আমাদের বেগুনাহ অর্থাত্‍ মুক্তপাপ করার জন্য, মসিহের দুর্বলতা তার বিজয়ের কারণ হয়ে দেখা দিল৷

পৌল তাঁর সকল পরিকল্পনা ও প্রত্যাশার সারসংক্ষেপ করলেন এ কথা বলে, খোদার ইচ্ছাতেই তিনি আনন্দের সাথে রোমের জামাতের ভাইদের কাছে হাজির হবেন৷ তিনি তার পত্র সমাপ্ত করলেন খোদার কাজে মুনাজাতের মাধ্যমে, খোদার শানত্মি যেন সকলের ওপর বর্শিত হয়, এমন কি যারা তার সাথে মতদ্বৈততা করেছে খাদ্য, ত্বকচ্ছেদ ও অন্যান্য গৌণ বিষয় নিয়ে৷

প্রার্থনা: হে আমাদের বেহেশতি পিতা, তোমার পুত্রের সুবাদে আমাদের সুযোগ ঘটেছে তোমাকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করার কেননা, প্রেরিত পৌল দৃঢ় প্রতিজ্ঞ ছিলেন সর্বজনের কাছে সুসমাচার পৌছে দেবার জন্য, আর অইহুদিদের তোমার কাছে নিয়ে আসার জন্য, কিন্তু তাকে জেলখানায় বন্দি হতে হয়েছে, হতে হয়েছে অপমানিত, হতে হয়েছে ঘৃণিত হতে৷ তার পত্রের জন্য আমরা তোমাকে ধন্যবাদ দিচ্ছি, প্রার্থনা করছি, বিশ্বাস ও প্রত্যাশার জন্য৷ তোমার প্রেমে তোমার কাছে এগিয়ে আসার জন্য আমাদের পরিচালনা দান করো যেন তোমাকে ছেড়ে উল্টো পথে চলে নাই যাই৷

প্রশ্ন:

৯৫. জেরম্নজালেমে তার জন্য মৃতু্যপরোয়ানা অপেক্ষারত রয়েছে, তা জানা সত্বেও কেন পৌল স্পেনমুখী প্রচার যাত্রায় জেরম্নজালেমের মধ্য দিয়ে যেতে চেয়েছিলেন?

www.Waters-of-Life.net

Page last modified on February 25, 2014, at 02:04 PM | powered by PmWiki (pmwiki-2.2.109)