Waters of Life

Biblical Studies in Multiple Languages

Search in "Bengali":
Home -- Bengali -- Romans - 035 (The Believer Considers Himself Dead to Sin)
This page in: -- Afrikaans -- Arabic -- Armenian -- Azeri -- BENGALI -- Bulgarian -- Cebuano -- Chinese -- English -- French -- Hebrew -- Hindi -- Indonesian -- Malayalam -- Polish -- Portuguese -- Russian -- Serbian -- Spanish -- Turkish -- Urdu? -- Yiddish

Previous Lesson -- Next Lesson

রোমীয়দের - প্রভুই আমাদের ধার্মিকতা
রোমীয়দের কাছে হযরত পৌলের লেখা পত্রের ওপর পর্যালোচনা
প্রথম খন্ড - খোদার ধার্মিকতা সকল পাপীকে দোষী সাব্যস্থ করে, আর মসিহের ওপর বিশ্বাসিদের ন্যায়বান ও আলাদা করে (রোমীয় ১:১৮ - ৮:৩৯)
ডি - পাপের ক্ষমতা থেকে খোদার শক্তি আমাদের উদ্ধার করেন (রোমীয় ৬:১ - ৮:২৭)

১. বিশ্বাসিগণ নিজেদেও পাপে মৃত ভাবলো (রোমীয় ৬:১-১৪)


রোমীয় ৬:১২-১৪
১২. এজন্য তোমাদের এই মৃতু্যর অধীন শরীরের উপর গুনাহকে আর রাজত্ব করতে দিয়ো না৷ যদি দাও তবে তোমাদের শরীরের খারাপ ইচ্ছার অধীনেই তোমরা চলতে থাকবে৷ ১৩. শরীরের কোন অংশকে অন্যায় কাজ করবার হাতিয়ার হিসাবে গুনাহের হাতে তুলে দিয়ো না৷ মৃতু্য থেকে জীবিত হয়ে ওঠা লোক হিসাবে তোমরা বরং আল্লাহর হাতে নিজেদের তুলে দাও এবং ন্যায় কাজ করবার হাতিয়ার হিসেবে তোমাদের সম্পূর্ণ শরীরকেই আল্লাহকে দিয়ে দাও৷ ১৪. তোমরা তো গুনাহের গোলাম নও, কারণ তোমরা আল্লাহর রহমতের অধীন, শরীয়তের অধীন নও৷

যিনি পাপের শক্তি থেকে মুক্ত হয়েছে এবং মসিহের সাথে হয়েছে যুক্ত, তিনি অবশ্যই ঘৃণা করবে পাপ এবং এর প্রতি থাকবে তার বিরাগ আর কখনোই সে পাপে সম্পৃক্ত হতে চাইবেন না৷ কামনা বড়ই শক্তিধর বটে মসিহের মহব্বত এর চেয়েও মহাশক্তিধর৷ যিনি সুসমাচারের জন্য একাগ্রচিত্ত আর প্রার্থনায় অধ্যাবসায়ী, তিনি দেহের ও মনের সকল কামনা বাসনার প্রতিরোধ করার শক্তি লাভ করে থাকেন৷ তিনি আর নিজের সেবার কাজে ব্যস্ত থাকেন না, অথবা মন্দ মতবাদে অনুরক্ত থাকেন না, বরং স্বেচ্ছায় সর্বপ্রকার মন্দ আচরণ থেকে বিরত থাকেন৷ সে প্রলোভনের ডাক আর শুনতে পান না, কেননা বিজয়ী মসিহের সহভাগিতায় তিনি থাকেন সদাব্যস্ত, যার পরাক্রম আপনার মৃতু্য ও দেহজ সর্বপ্রকার চাহিদার আকর্ষণের চেয়ে অনেক বেশি৷ পাকরূহ আপনার মধ্যে প্রজ্ঞা প্রতিষ্ঠা করেন যা বিশ্বের সকল প্রকার জ্ঞানি মহাজ্ঞানির বোধের অনেক উর্দ্ধে৷

সর্বপ্রকার মন্দ কাজ, মন্দ বইপত্র, সিনেমা এবং মন্দ সঙ্গ থেকে বিরত থাকুন৷ মসিরেহ সহভাগিতা থাকুন ঐসকল মন্দ শক্তিকে সুযোগ দিবেন না আপনাকে স্খলিত করতে আরআপনার মধ্যে যে পাপ আছে তার শক্তিকে ভয় পাবেন না, কিন্তু মসিহে বিশ্বাস রাখুন, আস্থাবান থাকুন, তার নাজাতের ক্ষমতার উপর৷

আপনি হয়ে উঠেছেন খোদার খাস বান্দা, খোদার নিজস্ব ব্যক্তি! আপনার স্বাসপ্রস্বাসে তাঁর রূহ আসা যাওয়া করে৷ আর আপনার অভিজ্ঞতা জন্মেছে অনন্ত সত্যের বিষয়ে৷ তাই কি করে সম্ভব খোদাকে বাদ দিয়ে আপনার চিন্তাধারা আবর্তিতত হতে পারে৷ নিজেকে প্রভুর কাছে নিয়ে আসুন, যেমন একজন সৈনিক ধর্মযুদ্ধে তাঁর সময়, শক্তি আর অর্থ তার কাছে সমর্পণ করে৷ আপনার কোরবানি কর্তব্য নয়, কিন্তু তা একটা সুযোগ তাঁকে ধন্যবাদ দেয়া এবং তাতে আনন্দ লাভ করা৷ প্রভুর কাছে জানতে চান কোথায় কোন কাজে তিনি আপনাকে ব্যবহার করতে চান, কেননা সস্য প্রচুর বটে, কিন্তু কমর্ীর সংখ্যা খুবই কম৷ তাই সস্যের মালিকের কাছে অনুরোধ করুন, তিনি যেন তার সস্য ক্ষেত্রে প্রচুর পরিমানে কমর্ীবাহিনী প্রেরণ করেন৷ তথাপি একগুয়েমি বা হটকারিতার আশ্রয় নিবেন না, বরং তাঁর নির্দেশনার অপেক্ষায় থাকুন৷ তিনি আপনার মধ্য দিয়ে তাদের পুনরুজ্জীবিত করতে চান যারা পাপে হয়ে পড়েছে মৃত, যেন তারাও তাঁর সাথে অনন্ত জীবন যাপন করতে পারে৷ তাই আপনার দেহ-মন ও সকল সম্পদ খোদার ধার্মিকতার ধারক-বাহক হিসেবে তাঁর হাতে তুলে দিন৷

ধন্যবাদ দিতে ভুলবেন না, কেননা আপনি পাপে মৃত ছিলেন, কিন্তু বর্তমানে মসিহের মধ্যে হয়েছেন জীবিত৷ আপনার দান উপহার খোদার কাছে নিয়ে আসুন যেন তিনি ওগুলো বহুজনের নাজাতের সহায়ক উপকরণ হিসেবে খোদা ব্যবহার করতে পারেন৷ খোদা মসিহের পক্ষে কাজ করার জন্য আপনাকে যোগ্য করে তুলছেন, আর আপনাকে জনসমক্ষে প্রেরণ করছেন, আপনার দুর্বলতা সত্ত্বেও তাঁর পক্ষে ধার্মিকতা প্রকাশার্থে কাজ করতে পারেন৷ সন্দিহান হবেন না৷ সাহাবি পৌল নিজেকে মসিহের সহবন্দি হিসেবে বিবেচনা করেছেন৷ তাই যখনই আপনি তাঁর সেবায় নিয়োজিত হন সদাসর্বদা তাঁর মধ্যে সমর্পিত জীবন কাটান৷ আপনি কখন তার পক্ষে কর্মরত থাকবেন?

পৌলের মত যারাই তাঁর সেবায় থাকে নিবেদিত, তার প্রেমে ব্যস্ত থাকেন, তারা পাকরূহের অভিজ্ঞা নিত্যদিন অর্জন করে থাকেন৷ আর বুঝতে পারেন তাদের হৃদয়ে একটা প্রাথমিক পরিবর্তন ইতোমধ্যে হয়েছে সাধিত৷ আপনার হৃদয়ে পাপ সহাস্যে আর নয় সমাসীন, কিন্তু মসিহ তা নিজের নিয়ন্ত্রণে নিয়ে সেরেছেন, আর তাঁর আবাসনের ফলে আমাদের জীবনে একটা নতুন যুগের শুরু হয়ে গেছে৷ খোদার আজ্ঞায় জীবন যাপন করা আমাদের জন্য আর কোনো কঠিন বিষয় নয়, কিন্তু সাগ্রহে তা পালন করার জন্য রয়েছি ব্যস্ত, অনুরোধ জানাই, উদ্দিপীত হই তাঁর বিনম্র রূহের পরিচালনায়৷ প্রত্যেক মসিহি রহমতের পরাক্রমে অভিষিক্ত৷ মৃতু্য ও কলুষতা আর তাদের ওপর রাজত্ব করার ক্ষমতা রাখে না৷ যিনি আমাদের হৃদয় মন জুড়ে রাজত্ব করেন তিনি হলেন মসিহ, তার রহমতের ভান্ডার ঢেলে দিয়েছেন আমাদের মধ্যে৷

প্রার্থনা: হে প্রভু মসিহ, প্রত্যেক প্রাতে ও প্রত্যেক বিকেলে আমরা তোমাকে ধন্যবাদ দেই৷ তুমি নিজেকে আমাদরে মরণশীল দেহের মধ্যে জুড়ে নিয়েছো, তোমার অনন্ত জীবনের অংশিদার করার জন্য৷ তুমি আমাদের হৃদয় মনজুড়ে রাজত্ব করো৷ আমাদের শিক্ষা দাও প্রজ্ঞাপূর্ণ আচরণমালা, যেন আমরা তোমার আর তোমার বেহেশতি পিতার প্রশংসা করতে পারি আমাদের সমস্ত মন-প্রাণ, ঐকান্তিকতা, শক্তিসামর্থ, অর্থবিত্ত দিয়ে যেন সকল বিশ্বাসীদের সহ তোমার সহদাস হিসেবে হতে পারি গণ্য৷

প্রশ্ন:

৩৯. খোদার ধার্মিকতা উপকরণ হিসেবে কী করে আমরা আমাদের দেহ-মন-আত্মা তাঁর কাছে নিয়ে আসতে পারি?

আমি এমন বিবেচনার জন্য সাধনা করছি যাতে খোদা
ও মানুষের বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ না থাকে৷

(প্রেরিত ২৪:১৬)

www.Waters-of-Life.net

Page last modified on February 25, 2014, at 01:13 PM | powered by PmWiki (pmwiki-2.2.109)